বিজ্ঞাপন

জৈব সুরক্ষা বলয়ের বন্দি দশায় হাঁপিয়ে উঠেছেন স্টার্ক

July 27, 2021 | 4:31 pm

স্পোর্টস ডেস্ক

করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের পর থেকে বদলে গেছে ক্রিকেটারদের জীবনচক্র। ম্যাচ শেষে আগে যেমন পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে পারতেন কিংবা বাইরে চলাফেরা করতে পারতেন, তা এখন আর সম্ভবপর নয়। বায়োবাবলের পরিচয়ের পর থেকে করোনা মহামারির মধ্যেও চলছে ক্রিকেট। তবে বন্দিদশায় পড়েছেন ক্রিকেটাররা। আর এই বন্দিদশায় দীর্ঘদিন থাকতে থাকতে হাঁপিয়ে উঠেছে অস্ট্রেলিয়ার তারকা পেসার মিচেল স্টার্ক।

বিজ্ঞাপন

ঘরোয়া ক্রিকেট, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মিলিয়ে বেশ বড়সড় সময়ে ধরে পরিবারের থেকে দূরে স্টার্ক। এছাড়া স্টার্কের স্ত্রী অ্যালিসা হিলিও একজন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার আর তিনিও খেলেছেন অস্ট্রেলিয়া নারীদের জাতীয় দলে। সব মিলিয়ে দুইজনকেই বড়সড় সময়ের জন্য থাকতে হচ্ছে জৈব সুরক্ষা বলয়ে। আর পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে না পেরে আরও বেশি হাঁপিয়ে উঠেছেন স্টার্ক।

আসন্ন বাংলাদেশ সফর শেষ করেই পরিবারের কাছে ফিরবেন স্টার্ক। আর একারণে আইপিএলে খেলার সুযোগও পায়ে ঠেলেছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

স্টার্ক বলেন, ‘আইপিএলে না যাওয়ার অন্যতম কারণই হলো আমি যাতে আমার স্ত্রী ও পরিবারের সঙ্গে কিছু সময় কাটাতে পারি, কিছু সময় নির্ভার থাকতে পারি। জৈব সুরক্ষা বলয়ের বাইরে থাকা এটা একটা মোক্ষম সুযোগ। এখানে থাকা মোটেও সহজ কিছু নয়। ক্রিকেট বা হোটেল থেকে দূরে থাকার কোনো সুযোগ নেই। বাংলাদেশ সফরে গেলেও তা বদলাবে না।’

করোনাকালে ক্রিকেটারদের জৈব সুরক্ষা বলয় ও কোয়ারেনটাইনের গ্যাঁড়াকলে পড়ে খেলার বাইরেও অনেক সময় কাটাতে হচ্ছে নিভৃতে। স্ত্রীও পেশাদার ক্রিকেটার বলে স্টার্কের পরিবারের সঙ্গ পাওয়া খুবই কঠিন বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। তিনি জানান, ‘এভাবে বলয়ে থাকা অনেক কঠিন। অন্যদের কথা জানি না, তবে আমার ও অ্যালিসার জন্য এটা চ্যালেঞ্জ, বিশেষ করে দুইজন যখন আলাদা দুই বলয়ে থাকি।’

বিজ্ঞাপন

স্টার্কের মতে, জৈব সুরক্ষা বলয়ে পরিবারের সঙ্গ খেলোয়াড়দের মানসিক স্বস্তি এনে দিবে, যা ভূমিকা রাখবে পারফরম্যান্সেও।

তিনি বলেন, ‘এটা অবশ্যই একটা পার্থক্য গড়ে দিবে, কোনো সন্দেহ নেই। কত কারণ আছে সবার। কারও বাচ্চা আছে, কারও বাড়িতে স্ত্রী আছে। গ্রীষ্মে তাদের সাথে সময় কাটানো বিশেষ কিছু।’

বিজ্ঞাপন

স্বাগতিক বাংলাদেশের বিপক্ষে পাঁচটি টি-টোয়েন্টি খেলতে ২৯ জুলাই বিকেলে ঢাকায় আসছে অস্ট্রেলিয়া। আগামী ৩, ৪, ৬, ৭ ও ৯ আগস্ট মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের টি-টোয়েন্টি খেলবে সফরকারীরা। প্রতিটি ম্যাচই শুরু হবে সন্ধ্যা ৬টায়।

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন