বিজ্ঞাপন

অলিম্পিকের দ্বৈত ইভেন্ট থেকেও বিদায় মারের

July 28, 2021 | 1:42 pm

স্পোর্টস ডেস্ক

২০১২ লন্ডন আর ২০১৬ রিও অলিম্পিকে সোনা জয়ের পর এবার টোকিওতেও এসেছিলেন গৌরবের হ্যাটট্রিক করতে। কিন্তু চোট সে সুযোগ দেয়নি গ্রেট ব্রিটেনের টেনিস তারকা অ্যান্ডি মারেকে। চিকিৎসক দলের সঙ্গে পরামর্শ করে অলিম্পিকের একক লড়াই থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছিলেন। তবে একক থেকে সরে দাঁড়ালেও দ্বৈতে খেলবেন জো সালিসবিউরির সঙ্গে জানিয়েছিলেন সেকথা। তবে এবার দ্বৈত থেকেও বিদায় নিতে হলো মারেকে। কোয়ার্টার ফাইনালে মারে-সালিসবিউরি জুটী হেরে গেছেন ক্রোয়েশিয়ার মারিন চিলিচ ও ইভান দোদিগের কাছে।

বিজ্ঞাপন

ক্রোয়েশিয়ার মারিন চিলিচ ও ইভান দোদিগের কাছে ৪-৬, ৭-৬ (৭-২) এবং ১০-৭ সেটে হেরে কোয়ার্টারেই শেষ হয় যায় মারের অলিম্পিক যাত্রা।

এককে নিজের সোনা জয়ের হ্যাটট্রিকটা করার সুযোগ হাতছাড়া হওয়ায় হতাশ ছিলেন গ্রেট ব্রিটেনের এই স্কটিশ টেনিস তারকা, ‘আমি খুবই হতাশ। চোটের কারণে নিজেকে সরিয়ে নিতে হলো। সিদ্ধান্তটা খুবই কঠিন ছিল। কিন্তু কিছু করার নেই। তবে আমি সালিসবুরির সঙ্গে দ্বৈতের শিরোপা জিততে মুখিয়ে আছি।’

বিজ্ঞাপন

তবে দ্বৈততেও সেই সুযোগ হলো না, কোয়ার্টারে হেরে বাদ পড়াতে।

তিনবারের গ্র্যান্ডস্লামজয়ী মারের অলিম্পিক রেকর্ডটা দুর্দান্ত। তিনিই একমাত্র খেলোয়াড় যিনি অলিম্পিকের এককে দুটি শিরোপা জিতেছেন। এবার সে রেকর্ডটাকে আরও সুসংহত করার দারুণ সুযোগ ছিল তাঁর সামনে। সাম্প্রতিক সময়ে চোটের সঙ্গেই ঘরবসতি মারের। ২০১৬ সালে বিশ্বের এক নম্বর তারকা হওয়ার পর থেকে নিতম্বে দুটি অস্ত্রোপচারও করাতে হয়েছে। গত মাসে উইম্বলডনে তৃতীয় রাউন্ড থেকেই বিদায় নিতে হয়েছে মারেকে। এটি গত ১৬ বছরের মধ্যে এই স্কটিশ তারকার উইম্বলডনে সবচেয়ে বাজে ফলাফল। তিনি হেরেছিলেন কানাডার ডেনিস শাপোভালভ।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন