বিজ্ঞাপন

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম টি-টোয়েন্টি জয়

August 3, 2021 | 9:41 pm

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট

অল্প রানের পুঁজি নিয়েও পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথমটিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২৩ রানে জিতেছে বাংলাদেশ। এই ফরম্যাটে অস্ট্রেলিয়াকে প্রথমবার হারাতে পারল টাইগাররা। এর আগে চার বারের দেখায় প্রতিবারই হেরেছিল বাংলাদেশ। দেশের মাটিতে দ্বিতীয়বারের দেখায় অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম জয় পেল বাংলাদেশ।

বিজ্ঞাপন

পুঁজি অল্প রানের হলেও শেখ মেহেদি হাসান, নাসুম আহমেদ, সাকিব আল হাসান অস্ট্রেলিয়ান শিবিরে আঘাত হানলেন শুরুতেই। পরে অভিজ্ঞ মিশেল মার্শ প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেছেন। তবে শুরুর দাপটটা ধরে রেখলেন নাসুম আহমেদ, মোস্তাফিজুর রহমান, শরিফুল ইসলামরা। সব মিলিয়েই ধরা দিল অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টি জয়।

মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের ১৩১ রানের জবাব দিতে নেমে ২০ ওভারে ১০৮ রানে গুটিয়ে গেছে অস্ট্রেলিয়া। এই জয়ে পাঁচ ম্যাচ সিরিজে ১-০তে এগিয়ে গেল বাংলাদেশ। একটা রেকর্ডও হয়েছে বাংলাদেশের। টি-টোয়েন্টিতে এর আগে এতো কম রানের পুঁজি নিয়ে ম্যাচ জিততে পারেনি বাংলাদেশ। ২০১৬ সালে আরব আমিরাতের বিপক্ষে ১৩৩ রানের সংগ্রহ গড়ে ম্যাচ জিতেছিল টাইগাররা, সেটাই ছিল এতোদিন সর্বনিম্ন পুঁজির জয়।

বিজ্ঞাপন

মিরপুরের উইকেট অস্ট্রেলিয়ানদের যে ভোগাবে সেটা বাংলাদেশ ইনিংসেই বুঝা গিয়েছিল। তবে উইকেট যেমনই হোক টি-টোয়েন্টিতে ১৩১ রান মোটেও শক্ত পুঁজি নয়, একটা ভালো ইনিংসেই এই রান পেরিয়ে যাওয়া সম্ভব। ম্যাচ জিততে হলে শুরুতেই আঘাত হানতে হতো বাংলাদেশকে। স্বাগতিকরা সেটা করল দারুণভাবে। প্রথম বলেই অ্যালেক্স ক্যারিকে বোল্ড করলেন শেখ মেহেদি হাসান।

দ্বিতীয় ওভারে উইকেট এনে দেন নাসুম আহমেদ, তৃতীয় ওভারে সাকিব আল হাসান। পাওয়ার প্লের ছয় ওভারে ২৮ রান তুলতেই তিন উইকেট নেই অস্ট্রেলিয়ার। মিশেল মার্শ অনেকক্ষণ একপ্রান্ত আগলে রাখলেও শুরুর এই ধাক্কাটা কাটিয়েই উঠতে পারেনি অজিরা। এক মার্শ ছাড়া বাকিদের সবাই বাংলাদেশি স্পিনারদের সামনে ধুঁকেছেন। নাসুন আহমেদ নিয়মিত বিরতিতে উইকেট তুলে নিয়ে চাপটা ধরে রাখেন। শেষ দিকে অস্ট্রেলিয়াকে কোমড় সোজা করতে দেননি দুই পেসার মোস্তাফিজুর রহমান ও শরিফুল ইসলাম।

বিজ্ঞাপন

৮৪ রানের মাথায় মিশেল মার্শ ৪৫ বলে ৪টি চার ১টি ছয়ে ৪৫ রান করে ফিরলে বাংলাদেশের জয়ের রাস্তা পরিস্কার হয়ে পড়ে। অস্ট্রেলিয়ার ১১ ব্যাটারের মধ্যে মার্শ ছাড়া দুই অঙ্কের কোটা পেরুতে পেরেছেন আর কেবল মিচেল স্টার্ক (১৪) ও ম্যাথু ওয়েড (১৩)।

বাংলাদেশের পক্ষে ১৯ রানে চার উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরা হয়েছেন নাসুম আহমেদ। পাঁচ টি-টোয়েন্টির ক্যারিয়ারে এটাই নাসুমের সেরা বোলিং। মোস্তাফিজুর রহমান ৪ ওভারে ১৬ রানে নিয়েছেন দুই উইকেট। শরিফুল তিন ওভারে ২ উইকেট শিকার করতে খরচ করেছেন ১৯ রান। সাকিব আল হাসান ২৪ ও শেখ মেহেদি হাসান ২২ রানে একটি করে উইকেট নিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম টি-টোয়েন্টি জয়

এর আগে প্রথমে ব্যাটিং করতে নেমে অতি সাবধানী ছিল বাংলাদেশ। দেখেশুনে এগুতে থাকা বাংলাদেশ প্রথম উইকেট হারিয়েছে দলীয় ১৫ রানে। হ্যাজেলউডকে কাট করতে গিয়ে বোল্ড সৌম্য সরকার। মিচেল স্টার্ককে দুই ছক্কা হাঁকিয়ে দারুণ কিছুর বার্তা দেওয়া মোহাম্মদ নাইম শেখ অ্যাডাম জাম্পাকে রিভার্স খেলতে গিয়ে বোল্ড হয়েছেন দলীয় ৩৭ রানে। ২৯ বলে ৩০ রান করে ফেরেন নাইম।

বিজ্ঞাপন

এরপর দুই সাকিব আল হাসান ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ সবচেয়ে বড় জুটিটা গড়েছেন। তবে তৃতীয় উইকেটে দুজন ৩৬ রান তুলতে বল খেলেছেন ৩২টি। হ্যাজেলউডকে হাঁকাতে গিয়ে ধরা পড়েছেন ২০ বলে ২০ রান করে। এরপর সাকিব ইনিংস ধরে এগুনোর চেষ্টা করেছেন, তবে বলের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে রান তুলতে পারেননি তিনিও।

ছয়ে নেমে আফিফ হোসেনের ১৭ বলে ৩ চারে ২৩ রানের ইনিংসটাই বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ দ্রুততম! সাকিব তিন চারে ৩৬ রান করেছেন ৩৩ বল খেলে। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ২৩ রানে তিন উইকেট নিয়েছেন হ্যাজেলউড। ৩৩ রানে দুই উইকেট নিয়েছেন মিচেল স্টার্ক।

বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের সবগুলো ম্যাচই দেশে এবং দেশের বাইরে থেকে দেখা যাবে র‍্যাবিটহোলে। লাইভ দেখতে Rabbitholebd Sports Youtube Channel -এ সাবস্ক্রাইব করুন। সাবস্ক্রাইবের জন্য ক্লিক করুন এই লিংকে র‍্যাবিটহোলবিডি স্পোর্টস

সারাবাংলা/এসএইচএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন