বিজ্ঞাপন

চাঁপাইনবাবগঞ্জে বরযাত্রীবাহী নৌকায় বজ্রপাত, নিহত ১৭

August 4, 2021 | 3:17 pm

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

চাঁপাইনবাবগঞ্জ: জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের দক্ষিণ পাঁকা গ্রামে বিয়ের অনুষ্ঠানে যাওয়ার সময় পদ্মা নদীতে বরযাত্রীবাহী একটি নৌকায় বজ্রপাতে ১৭ জন নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৯ জন। বুধবার (৪ আগস্ট) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

বিজ্ঞাপন

শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাকিব আল রাব্বি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

নিহতরা হলেন, সদর উপজেলার চরবাগডাঙ্গা ঘাটাপাড়ার সাত্তার আলীর ছেলে সহবুল (৩০), চর সূর্যনারায়নপুর গ্রামের টিপুর স্ত্রী বেলী বেগম (৩২), মহরাজনগর ডানপাড়ার জামালের ছেলে লেচন (৫০), রফিকুল ইসলামের ছেলে বাবলু (২৬), একই গ্রামের মৃত সৈয়ব আলীর ছেলে তবজুল (৭০), তবজুলের স্ত্রী জমিলা (৫৮), ছেলে সাদল (৩৫), তেররশিয়া দক্ষিণপাড়ার মৃত মহবুলের ছেলে রফিকুল (৬০), সূর্যনারায়নপুরের ধুনু মিয়ার ছেলে সজিব (২২), একই গ্রামের সাহালালের স্ত্রী মৌসুমী (২৫), বাবুডাইংয়ের মকবুলের ছেলে টিপু (৪৫), কালুর ছেলে আলম (৪০), মোস্তফার ছেলে পাতু (৪০), সুন্দরপুরের সেরাজুলের ছেলে আতিকুল ইসলাম ডাকু (২৪), ফাটাপাড়ার সাদিকুলের স্ত্রী টকি বেগম (৩০)।

বিজ্ঞাপন

পাঁকা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক জানান, কয়েকদিন আগে বিয়ে হয় পাঁকা ইউনিয়নের মৃত সুলতান আলীর ছেলে হোসেন আলীর মেয়ের। বুধবার দুপুরে বরপক্ষের লোকজন একটি নৌকায় করে বৌভাতে আসছিল। দুপুর ১২টার দিকে বৃষ্টি শুরু হলে পদ্মা নদীর দক্ষিণ পাঁকা ঘাটের একটি ছাউনিতে আশ্রয় নেয় বৌভাতে আসা লোকজন এবং স্থানীয় পাঁকা গ্রামের সহবুলের ছেলে রফিকুল ইসলাম (৫৫)। এসময় বজ্রপাত হলে রফিকুলসহ বর পক্ষের ১৬ জনসহ মোট ১৭ জন মারা যায় ঘটনাস্থলেই। কয়েকজনকে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে নেওয়া হয়। তবে কয়েকজন শিশু ছিলো সেখানে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের উপ-পরিচালক সাবের আলী জানান, নিহত ও আহতদের পদ্মা নদী পেরিয়ে নৌকায় করে সদর উপজেলার আলিমনগরের ঘাটে নিয়ে আসলে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা হাসপাতালে ভর্তি করে।

বিজ্ঞাপন

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. কামরুন নাহার নাসু বলেন, বিকেল ৩টা পর্যন্ত হাসপাতালে ১২ জনকে নিহত অবস্থায় ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়াও আহত অবস্থায় আরও ৯ জনকে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে এক শিশুকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে।

শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাকিব-আল-রাব্বী জানান, ১৭ জন মারা গেছেন। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিহতদের প্রত্যেক পরিবারের জন্য ২৫ হাজার টাকা করে সহায়তা দেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএসএ

বিজ্ঞাপন

Tags: ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন