বিজ্ঞাপন

সিআরবি রক্ষায় প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিএনপি’র স্মারকলিপি

August 4, 2021 | 7:58 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: হাসপাতাল প্রকল্প বাতিল করে চট্টগ্রামের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যমণ্ডিত সিআরবি রক্ষার দাবি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে স্মারকলিপি পাঠিয়েছে মহানগর বিএনপি।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (৪ আগস্ট) বিকেলে নগর বিএনপির আহ্বায়ক শাহাদাত হোসেনের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমানের হাতে এই স্মারকলিপি হস্তান্তর করে।

নগর বিএনপির আহ্বায়ক শাহাদাত হোসেন ও সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর স্বাক্ষরিত স্মারকলিপিতে হাসপাতাল প্রকল্প বাতিলের আহ্বান জানিয়ে বলা হয়, চট্টগ্রাম শহর এখন ইট-পাথরের জঞ্জালে পরিণত হয়েছে। আমরা কোনো রাজনৈতিক বিতর্কে যেতে চাই না। এর জন্য কে দায়ী আর কে দায়ী নয়, সেই আলোচনা আমরা অমূলক মনে করি। আমরা শুধু শান্তিতে নিঃশ্বাস নিতে চাই আমাদের প্রাণের শহরে। সিআরবি চট্টগ্রামের ইতিহাস-ঐতিহ্য এবং সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অংশ। এটি চট্টগ্রাম শহরের প্রাণকেন্দ্রে সর্বশেষ একমাত্র উদ্যান, যেখানে নানা বয়সী, নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ গিয়ে একটু প্রাণভরে নিঃশ্বাস নিতে পারে। কিন্তু সেই সিআরবিও আজ আর অক্ষত থাকছে না।

বিজ্ঞাপন

এতে আরও বলা হয়, সিআরবিতে যে হাসপাতাল, মেডিকেল কলেজ ও নার্সিং ইনস্টিটিউট গড়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে, তাতে চট্টগ্রামবাসীর হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হচ্ছে। গত একমাস ধরে চট্টগ্রামের আপামর মানুষ, দলমত নির্বিশেষে সবাই বাতিল করে সিআরবিকে রক্ষার আকুতি জানাচ্ছেন। কিন্তু সরকারের দায়িত্বশীল পর্যায় থেকে এখনও এ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো বক্তব্য আসেনি। বিএনপি চট্টগ্রামবাসীর আবেগ-অনুভূতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল, তাদের দাবির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে হাসপাতাল প্রকল্প বাতিল করে সিআরবি রক্ষার দাবি জানাচ্ছে।

স্মারকলিপিতে হাসপাতাল প্রকল্প বাতিল করে সিআরবি রক্ষায় সুনির্দিষ্ট ১০ দফা কারণ ও প্রস্তাবনা তুলে ধরে নগর বিএনপি।

বিজ্ঞাপন

এদিকে স্মারকলিপি প্রদানের পর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে শাহাদাত হোসেন বলেন, ‘সিআরবিতে আছে মুক্তিযুদ্ধের শহিদ আবদুর রবের সমাধি। সমাধি ভেঙে, প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ধ্বংস করে হাসপাতাল নির্মাণের অপচেষ্টা চলছে। চট্টগ্রামবাসী বারবার সিআরবি রক্ষার দাবি জানালেও সরকার তাদের অবস্থান পরিষ্কার করছে না। এমনকি আওয়ামী লীগও রাজনৈতিক দল হিসেবে তাদের অবস্থান এখনও স্পষ্ট করেনি। তারা কি হাসপাতালের পক্ষে নাকি বিপক্ষে ? তাদের এই অস্পষ্টতা থেকে অনুমান করা যায়, ভেতরে ভেতরে তারা হাসপাতাল নির্মাণের পক্ষে। কিন্তু বীর চট্টলার জনগণ সিআরবি ধ্বংস করে কোনো হাসপাতাল মেনে নেবে না।’

এসময় নগর বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক এম এ আজিজ, আহবায়ক কমিটির সদস্য কামরুল ইসলাম, সাবেক আইন বিষয়ক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, সাবেক সহ-দপ্তর সম্পাদক মো. ইদ্রিস আলী, মৎস্যজীবী দলের আহ্বায়ক নুরুল হক, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম শহিদ, নগর যুবদলের সহ-সাধারণ সম্পাদক আসাদুর রহমান টিপু উপস্থিত ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/আরডি/আইই

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন