বিজ্ঞাপন

করোনায় ‘বেশি সতর্ক’ ইংরেজি মাধ্যম স্কুল, ক্লাস হচ্ছে অনলাইনেও

September 13, 2021 | 9:55 pm

তুহিন সাইফুল, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: করোনা মহামারির কারণে দেশের ইতিহাসে দীর্ঘ দিন বন্ধ থাকার পর অবশেষে খুলেছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। বাংলা মাধ্যমের পাশাপাশি ক্লাস চালু হয়েছে ইংরেজি মাধ্যমের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেও। তবে করোনায় সতর্ক থাকতে সশরীরে শ্রেণি কার্যক্রমের পাশাপাশি অনলাইন ক্লাসও চালু রেখেছে বিভিন্ন ইংরেজি মাধ্যম স্কুলে।

বিজ্ঞাপন

রাজধানীর বেশ কয়েকটি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রোববার (১২ সেপ্টম্বর) প্রথমদিনে বেশ আনন্দ উৎসাহে শিক্ষার্থীদের স্বাগত জানিয়েছেন শিক্ষকরা। তবে করোনা সংক্রমণ রুখতে শারীরিক দূরত্ব মানা নিয়ে বেশ সতর্কতা অবলম্বন করা হয়েছে। কিন্তু বেশ কয়েকটি স্কুল সশরীরে শ্রেণি কার্যক্রমের পাশাপাশি অনলাইনে পরিচালনা করছে শ্রেণি কার্যক্রম। এই পদ্ধতিটির নাম দেওয়া হয়েছে হাইব্রিড পদ্ধতি। যেখানে কোনো শিক্ষার্থী চাইলে ক্লাসেও আসতে পারে, আবার কেউ ইচ্ছে করলেই ঘরে বসে অনলাইনে প্রচার করা ওই একই ক্লাসেও অংশ নিতে পারে।’

তবে কিছু ইংরেজি মাধ্যম এখনও সশরীরে ক্লাস শুরু করেনি। এই মাধ্যমের পরিচিত স্কুলটির নাম স্কলাস্টিকা। যারা এখনও অনলাইনেই নিজেদের ক্লাস চালিয়ে নিচ্ছে। প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষক ও প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বিদ্যালয় খুলে দেওয়ার জন্য কাজ করছেন তারা।

বিজ্ঞাপন

রাজধানীর ধানমণ্ডি এলাকার সানিডেল স্কুলের অধ্যক্ষ তাজীন আহমেদ বলেছেন, ‘সরকার যেভাবে বলেছে আমরা সেভাবেই ক্লাস নিচ্ছি। প্রতিটি শ্রেণিতে শিক্ষার্থীরা উপস্থিত হয়ে ক্লাস করছে। একই ক্লাস আমরা অনলাইনেও প্রচার করছি। কোনো শিক্ষার্থী অসুস্থ থাকলে বা করোনা নিয়ে বেশি সতর্ক থাকলে সে যেন বাসায় বসেও ক্লাসটি করতে পারে।’

একই এলাকার লেকহেড স্কুল কর্তৃপক্ষ জানায়, তারাও বাংলা মাধ্যমের মতো ক্যাম্পাস খুলে দিয়েছে। শিক্ষার্থীরা বেশ আনন্দের সঙ্গেই ক্লাস করছে। কিছু শিক্ষার্থী ও তাদের পরিবার করোনা নিয়ে বেশ সতর্ক। তারা অনলাইনে শ্রেণি কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

সানবিমস স্কুলের প্রশাসনিক কর্মকর্তা আব্দুল কাদির এবং হাসিনা আহমেদ সারাবাংলাকে জানান, এই প্রতিষ্ঠানটিও সরকারি নিয়ম মেনেই রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) থেকে সীমিত পরিসরে ক্লাস নিচ্ছে। পাশাপাশি সুযোগ রাখা হয়েছে অনলাইন ক্লাসেরও। হাসিনা আহমেদ বলেন, ‘ক্যাম্পাস খুলেছে। তবে বেশ কিছু বিষয় এখনও গোছানো বাকি। দীর্ঘ বন্ধের কারণে এই বিষয়গুলো এখন গোছানো হচ্ছে।’

আব্দুল কাদির বলেন, ‘স্কুলের অনলাইন ক্লাস পুরোদমে চলছে। সরকারের দেওয়া সশরীরে ক্লাসের নির্দেশনা আমরা মান্য করছি। তবে শিক্ষার্থীদের অভিভাবকের মতকেও গুরুত্ব দিয়েছি। যারা সরাসরি ক্লাস করতে চায় না, তাদের আমরা ক্লাস করতে বাধ্য করছি না।’

বিজ্ঞাপন

ম্যাপল লিফ ইন্টারন্যাশনাল স্কুলে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সেখানেও প্রতিদিন অনেক শিক্ষার্থী উপস্থিত হয়ে ক্লাস করছেন। করোনার পাশাপাশি এখন ডেঙ্গু নিয়েও একটা ভয় রয়েছে অভিভাবকদের মধ্যে। সেটি কাটাতে এখানে ব্যাপকভাবে স্বাস্থবিধি মানা হচ্ছে এবং সচেতনতা বাড়ানো হচ্ছে।

সারাবাংলা/টিএস/এসএসএ/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন