বিজ্ঞাপন

প্রতিশ্রুতি রক্ষা করলে তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি দেবে পাকিস্তান

September 14, 2021 | 10:46 pm

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মানবাধিকারসহ নানা ইস্যুতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি তালেবানের করা প্রতিশ্রুতি পূরণের স্পষ্ট অগ্রগতি না দেখলে আফগানিস্তানের অন্তর্বর্তীকালীন সরকারকে স্বীকৃতি দেবে না পাকিস্তান। যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত মজিদ খান দ্য ওয়াশিংটন ডিপ্লোমেটকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তার দেশের এমন অবস্থানের কথা জানান।

বিজ্ঞাপন

সাক্ষাৎকারে মজিদ খান জানান, তালেবান সরকারের কর্মকাণ্ড নজরে রাখছে ইসলামাবাদ। তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে দেওয়া প্রতিশ্রুতি তালেবান রক্ষা করবে কি না সেটা তাদের সিদ্ধান্ত। কিন্তু আমরা একটি প্রত্যাশার জায়গা রেখেছি— যেটা হলো তালেবান সবার অধিকার ও সম্মান নিশ্চিত করবে।

তিনি বলেন, আমরা চাই আফগানিস্তানের ভূমি যেন পাকিস্তানসহ কোনো ভিন দেশের বিরুদ্ধে ব্যবহৃত না হয়। আমরা চাই সেদেশে নারী অধিকারসহ মানবাধিকার যেন সুরক্ষিত থাকে।

বিজ্ঞাপন

রাষ্ট্রদূত মজিদ খান এক প্রশ্নের জবাবে জানান, পাকিস্তান বিশ্বাস করে যে, তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি দেওয়ার ক্ষেত্রে পারস্পরিক লেনদেনের পরিবর্তে মানবিক সংকট এড়ানোর বিষয়টি বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি বলেন, এখন জরুরি হলো— আফগানিস্তানে সবকিছু যেন ভেঙে না পড়ে সেটা নিশ্চিত করা। স্পষ্টত আফগানিস্তানে একটি নতুন বাস্তবতা বিরাজ করছে—আর তা হলো তালেবান সরকার।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। তারা হয় আফগানিস্তান ইস্যুতে জড়াবে—যার অর্থ এই নয় যে সরকারকে স্বীকৃতি দিয়েই তা করতে হবে। আর আরেকটি বিকল্প হলো আফগানিস্তানকে পরিত্যাগ করা।

উল্লেখ্য যে, গত ১৫ আগস্ট রাজধানী কাবুল দখলের মাধ্যমে আফগানিস্তানের গণতান্ত্রিক সরকার উৎখাত করে তালেবান। ওইদিন প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি দেশ ছেড়ে পালিয়ে যান। এর কয়েক সপ্তাহ পর গত ৭ সেপ্টেম্বর আফগানিস্তানে অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন করে তালেবান। উগ্রবাদী গোষ্ঠীটির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত মোল্লা ওমরের ঘনিষ্ঠ সহযোগী মোল্লা হাসান আখুন্দকে সরকারের প্রধান হিসেবে মনোনীত করে শীর্ষ নেতৃত্ব। মোল্লা আখুন্দ প্রতিবেশী পাকিস্তানের ঘনিষ্ঠ বলেও পরিচিত।

বিজ্ঞাপন

তালেবানের সরকার গঠন প্রক্রিয়ায় চীন ও পাকিস্তানের প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষ হস্তক্ষেপ রয়েছে বলেও মনে করছেন বিশ্লেষকরা। তালেবান সরকার গঠনের আগের দিন কাবুলে পাকিস্তান দূতাবাসের সামনে পাকিস্তান বিরোধী সমাবেশ করেন সাধারণ আফগানরা। তালেবান সরকার গঠনের পর ধারণা করা হয়েছিল প্রতিবেশী পাকিস্তান সবার আগে স্বীকৃতি দেবে। তবে এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও এখনও কাবুলের নতুন কর্তৃপক্ষকে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দেয়নি ইসলামাবাদ।

সারাবাংলা/আইই

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন