বিজ্ঞাপন

আফগানিস্তানে নারী মন্ত্রণালয়ের নাম বদলে পাপ-পূণ্য মন্ত্রণালয় গঠন

September 18, 2021 | 2:16 am

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

আফগানিস্তানের নারী বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের নাম পরিবর্তন করে পাপ-পূণ্য মন্ত্রণালয় গঠন করছে তালেবান। শুক্রবার তালেবানের নীতি পুলিশদের কাবুলে নারী বিষয়ক মন্ত্রণালয় ভবনের নামফলক পরিবর্তন করতে দেখেছেন সাংবাদিকরা। এতে তালেবান সরকারের অধীনে কোনো নারী মন্ত্রণালয় সেদেশে থাকছে না বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। বার্তাসংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, এ ব্যাপারে তালেবানের মুখপাত্রদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তারা কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

বিজ্ঞাপন

রয়টার্সের খবরে বলা হয়, শুক্রবার নারী মন্ত্রণালয়ের নাম পরিবর্তন করে বেশ বড় একটি নাম লেখা হয়েছে ওই মন্ত্রণালয় ভবনের সামনে। এতে লেখা হয়, ‘প্রার্থনা-নির্দেশনা এবং পুণ্য কাজে উৎসাহ ও অধার্মিকতা প্রতিরোধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়’। তবে সংক্ষেপে এ মন্ত্রণালয়ের নাম হচ্ছে পাপ-পুণ্য বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

সরকারিভাবে ওই মন্ত্রণালয়ের নাম পরিবির্তন হলে আফগানিস্তানে নারী বিষয়ক কোনো মন্ত্রণালয় আর থাকবে না। ওই মন্ত্রণালয়ের কয়েকজন নারী কর্মকর্তা বলেছেন, গত কয়েক সপ্তাহ ধরে মন্ত্রণালয়ের কাজে যোগ দেওয়ার চেষ্টা করে আসছেন তারা। কিন্তু তাদের বলা হয়েছে, বাড়িতে ফেরত যেতে।

বিজ্ঞাপন

আফগানিস্তানের নারী মন্ত্রণালয়ের এক নারী কর্মকর্তা বলেন, ‘গত বৃহস্পতিবার আমাদের জন্য চূড়ান্তভাবে ওই ভবনের ফটকে তালা দেওয়া হলো। আমার পরিবারে আমি একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি। যখন মন্ত্রণালয়ই থাকছে না, তখন আফগান নারীরা আর কী করতে পারে?’

উল্লেখ্য যে, আফগানিস্তানে পাপ-পুণ্য বিষয়ক মন্ত্রণালয় আগেও ছিল। ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল তালেবানের প্রথম শাসনামলে এ মন্ত্রণালয় দেশজুড়ে কুখ্যাত নীতি পুলিশ মোতায়েন করে। এ মন্ত্রণালয় আফগানিস্তানে কঠোর ধর্মীয় বিধিনিষেধ জারি ও তা পালন করে নাগরিকদের বাধ্য করে। মানুষের দৈনন্দিন জীবনযাপনে শরিয়া আইন পুঙ্খানুপুঙ্খ পালনে মন্ত্রণালয়টি সরাসরি হস্তক্ষেপ করে থাকে।

বিজ্ঞাপন

তালেবানের জারি করা নির্দেশ অনুযায়ী যেসব নারী কথিত শালীন পোশাক পরেন না বা পুরুষ অভিভাবক ছাড়াই বাইরে বের হন, তাদের প্রকাশ্যে মারধর করে থাকে এ মন্ত্রণালয়ের অধীন নীতি পুলিশ। তালেবানের প্রথম শাসনামলে মেয়েদের স্কুল যাওয়া থেকে বিরত রাখতে কাজ করত এ মন্ত্রণালয়। এছাড়া গান, বাজনা, নৃত্যসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড আফগানিস্তানে যাতে অনুষ্ঠিত না হয় সে ব্যাপারে কড়া নজর রাখে পাপ-পূণ্য মন্ত্রণালয়।

উল্লেখ্য যে, গত ১৫ আগস্ট রাজধানী কাবুল দখলের মাধ্যমে আফগানিস্তানের গণতান্ত্রিক সরকার উৎখাত করে তালেবান। ওইদিন প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি দেশ ছেড়ে পালিয়ে যান। এর কয়েক সপ্তাহ পর গত ৭ সেপ্টেম্বর আফগানিস্তানে অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন করে তালেবান। এ সরকারে কোনো নারী জায়গা পাননি। এবার নারী মন্ত্রণালয়ের নামও পরিবর্তন করল তালেবান সরকার।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/আইই

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন