বিজ্ঞাপন

বিএনপির নির্বাহী সদস্যদের সঙ্গে বৈঠক মঙ্গলবার থেকে

September 19, 2021 | 4:07 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: নির্বাহী কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্যদের সঙ্গে বৈঠকের পর এবার নির্বাহী সদস্যদের সঙ্গে বৈঠকের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি। আগামী মঙ্গলবার এ বৈঠক শুরু হবে।

বিজ্ঞাপন

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) দলের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসেরন রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি জানান, নির্বাহী কমিটির সদস্য ছাড়াও জেলার নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। আগামী মঙ্গলবার ও বুধবার নির্বাহী সদস্য এবং বৃহস্পতিবার জেলার নেতাদের সঙ্গে এ বৈঠক হবে। গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ সব বৈঠক হবে।

বিজ্ঞাপন

এক প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘আমরা বড় পরিসরে সভা করতে পারিনি বলে, আলাদা আলাদা টিম করে সভাগুলো করছি। এতে করে বেশি সংখ্যক নেতার বক্তব্য শোনার সুযোগ হচ্ছে। আমরা কাউকে কম গুরুত্ব বা বেশি গুরুত্ব দিচ্ছি না। সবাইকে সমানভাবে দেখা হচ্ছে।’

এর আগে, মঙ্গলবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের ধারাবাহিক বৈঠক হয়। প্রথম দিন দলের ভাইস চেয়ারম্যান ও উপদেষ্টামণ্ডলী, দ্বিতীয় দিন বিএনপির নির্বাহী কমিটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব, যুগ্ম মহাসচিব, সাংগঠনিক সম্পাদক, সম্পাদক ও সহসম্পাদক এবং শেষ দিন দলের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতারা বৈঠকে অংশ নেন। তিন দিনের ধারাবাহিক বৈঠকে মোট ২৮৬ জন নেতা উপস্থিত ছিলেন, যাদের মধ্যে ১১৮ জন নেতা বক্তব্য দেন।

বিজ্ঞাপন

অপর এক প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আগামী দিনের আন্দোলনকে সামনে রেখে সংগঠনকে শক্তিশালী করা, সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন করার জন্য জনগণের মধ্যে ঐক্য সৃষ্টি করা, সরকারের দুঃশাসন, অনাচার, নিপীড়ন— এসব বিষয় নিয়েই বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। দায়িত্বশীল পদে থেকে এর চেয়ে বেশি কিছু বলার সুযোগ আমার নেই। দল যখন সিদ্ধান্ত নেবে সব কিছু জানানোর, তখন সবার আগে আমিই আপনাদের সব জানাব।’

তিনি জানান, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সভাপতিত্বে স্থায়ী কমিটির বৈঠকে সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আব্দুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, বেগম সেলিমা রহমান ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু উপস্থিত ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বিদেশ সফরে থাকা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুক্তিযুদ্ধ, মুক্তিযুদ্ধে জিয়াউর রহমানের অবদান এবং তার কবরে মরদেহ নিয়ে যেসব ভাষণ-বক্তব্য দিয়েছেন, সেসব বক্তব্য সম্পর্কে বিএনপির স্থায়ী কমিটিতে আলোচনা হয়েছে এবং এসব আপত্তিকর বক্তব্যের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।’

তিনি জানান, জাতীয় সংসদের কুইক রেন্টার বিদ্যুৎ স্টেশনের মেয়াদ বৃদ্ধি, ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষা আইনসহ বেশ কয়েকটা বিল পাস হয়েছে। বিএনপি মনে করে এসব বিল জনগণের স্বার্থ রক্ষার জন্য হয়নি। এতে শাসক শ্রেণির স্বার্থই রক্ষা করবে। সে কারণে জাতীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এগুলোর প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

১১ সাংবাদিক নেতার ব্যাংক হিসাব তলব প্রসঙ্গে মতামত জানতে চাইলে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমরা প্রথম দিনই এ ব্যাপারে বিবৃতি দিয়েছি। আমরা মনে করি, সাংবাদিকদের ওপর চাপ সৃষ্টির লক্ষ্যেই এ ধরনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।’

সারাবাংলা/এজেড/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন