বিজ্ঞাপন

ভ্যালেন্সিয়ার মাঠে রিয়ালের রোমাঞ্চকর জয়

September 20, 2021 | 3:03 am

স্পোর্টস ডেস্ক

ভ্যালেন্সিয়ার মাঠে ৮৬ মিনিট পর্যন্ত ১-০ গোলের ব্যবধানে পিছিয়ে ছিল রিয়াল মাদ্রিদ। তবে শেষ চার মিনিটে ভিনিসিয়াস জুনিয়র এবং করিম বেনজেমার গোলে ২-১ ব্যবধানের রোমাঞ্চকর জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে লস ব্ল্যাঙ্কোসরা।

বিজ্ঞাপন

৬৬তম মিনিটে লুকাস ভাস্কেজের ভুলে বল পেয়ে জোরালো শটে বল জালে জড়িয়ে ভ্যালেন্সিয়াকে উল্লাসে ভাসান হুগো দুরো। শেষ মুহূর্তে ম্যাচে জয়ের দিকেই এগোচ্ছিল ভ্যালেন্সিয়া। তবে তখনও হাল ছাড়েনি রিয়াল। ৮৬তম মিনিটে করিম বেনজেমার পাস থেকে ভিনিসিয়াস জুনিয়র ১-১ গোলে সমতায় ফেরায় রিয়ালকে। এর চার মিনিট পর ভিনিসিয়াসের ক্রস থেকে লাফিয়ে উঠে হেডে গোল করে রিয়ালকে জয় এনে দেন করিম বেনজেমা।

ভ্যালেন্সিয়ার মাঠে রিয়ালের রোমাঞ্চকর জয়

বিজ্ঞাপন

এই জয়ে লা লিগার পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠে এসেছে রিয়াল মাদ্রিদ। লিগের প্রথম পাঁচ ম্যাচের চারটিতে জয় আর এক ড্রতে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রিয়াল। সমান ম্যাচে তিন জয় আর একটি ড্র এবং হারে ১০ পয়েন্ট নিয়ে তিনে ভ্যালেন্সিয়া। পাঁচ ম্যাচে ১১ পয়েন্ট পাওয়া অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ আছে দুইয়ে। আর তিন ম্যাচে দুই জয় ও এক ড্রতে ৭ পয়েন্ট নিয়ে ১০ নম্বরে বার্সেলোনা।

গেল মৌসুমে নিজ সমর্থকদের কাছ থেকেই শুনতে হয়েছে কটূক্তি। নতুন মৌসুমে এসে যেন সেসবেরই জবাব দিচ্ছেন তরুণ ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড ভিনিসিয়াস জুনিয়র। রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে এর মধ্যেই পাঁচ গোল করেছেন লা লিগায়। ভ্যালেন্সিয়ার ঘরের মাঠে মাস্তেয়ায় ম্যাচের ৮৬ মিনিট পর্যন্ত পিছিয়ে থাকা রিয়ালকে সমতায় ফেরান ভিনিসিয়াস। এরপর দলের জয়সূচক গোলেও অবদান সেই ভিনিসিয়াসেরই। তার ক্রস থেকে আসা বল হেড করেই জালে জড়িয়ে দলকে জয় এনে দেন বেনজেমা।

বিজ্ঞাপন

ভ্যালেন্সিয়ার মাঠে রিয়ালের রোমাঞ্চকর জয়

মাস্তেয়ায় ম্যাচের প্রথমার্ধে দুই দলের কেউই তেমন সুযোগ করে উঠতে পারেনি। রিয়ালের আক্রমণ থেমেছে ভ্যালেন্সিয়ার ডি বক্সে গিয়েই। তৈরি করতে পারেনি কোনো পরিস্কার সুযোগ। অন্যদিকে কম যায়নি ভ্যালেন্সিয়াও। প্রথমার্ধের শেষ দিকে রিয়ালের ত্রাতা হয়ে আসেন থিবো কোর্তোয়া। ফ্রিকিক থেকে ভেসে আসা বল হেড করেন গ্যাব্রিয়েল কিন্তু ঝাঁপিয়ে পড়ে কোর্তোয়া শক্ত হাতে বল ফেরান। আর রিয়ালকে সমতায় ধরে রাখেন। এতেই প্রথমার্ধ গোলশূন্যতে শেষ হয়।

বিজ্ঞাপন

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই দুর্দান্ত খেলতে থাকে ভ্যালেন্সিয়া। রিয়ালের রক্ষণকে একের পর এক পরীক্ষা নিচ্ছিল স্বাগতিকরা। তবে গোল পাচ্ছিল না কিছুতেই। বারবার তাদের চেষ্টা ব্যর্থ করছিলেন কোর্তোয়া। ৫৩তম মিনিটে ডি বক্সের ভেতর থেকে ফাঁকায় পাওয়া বল দুই ডিফেন্ডারের মধ্য থেকে শট নেনে হুগো দুরো কিন্তু তার দুর্বল শট রুখে দেন বেলজিয়ান গোলরক্ষক।

ভ্যালেন্সিয়ার মাঠে রিয়ালের রোমাঞ্চকর জয়

বিজ্ঞাপন

তবে আর বেশি সময় রিয়ালকে সমতায় ধরে রাখতে পারেননি কোর্তোয়া। তবে এবার প্রতিপক্ষের চেয়ে নিজেদেরই হয়ত দুষছেন কোর্তোয়া। ৬৬তম মিনিটে ডি বক্সে আসা ক্রস ঘাড়ে লাগান রিয়ালের লুকাস ভাস্কেজ। আর তার ঘাড়ে লাগা বল গিয়ে পড়ে হুগো দুরোর পায়ে। বলে কয়েকটি টাচ দিয়ে এগিয়ে গিয়ে জোরালো শটে কোর্তোয়াকে পরাস্ত করে ভ্যালেন্সিয়াকে ১-০ গোলের লিড এনে দেন দুরো।

এরপরেই যেন খেলাটা শুরু করে লস ব্ল্যাঙ্কোসরা। ম্যাচের বাকি সময়টা ভ্যালেন্সিয়াকে আর পাত্তায় দেয়নি রিয়াল। একের পর এক আক্রমণে ভ্যালেন্সিয়ার রক্ষণকে ছিন্নভিন্ন করে দিতে থাকে লস ব্ল্যাঙ্কোসরা। কিন্তু গোলের দেখা মিলছিল না কিছুতেই। তাই তো আক্রমণ ভাগে শক্তি বৃদ্ধি করেন কার্লো আনচেলোত্তি। রদ্রিগো, লুকা জোভিচের সঙ্গে ইস্কো এবং কামাভিঙ্গাকেও মাঠে নামান আনচেলোত্তি আর তুলে নেন হ্যাজার্ড, ক্যাসেমিরো এবং লুকা মদ্রিচকে। এরপরেই ম্যাচের চিত্র বদলে যায়।

ভ্যালেন্সিয়ার মাঠে রিয়ালের রোমাঞ্চকর জয়

খেলার সময় যতই গড়াছে রিয়ালের আক্রমণ ততই বাড়ছে। গোল পাওয়াটা কেবল সময়ের ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায় রিয়ালের জন্য। অবশেষে সুযোগ আসে ম্যাচের ৮৬ মিনিটের মাথায়। ডি বক্সের ভেতর রিয়ালের খেলোয়াড়দের আধিক্যের কারণে যেন কিছু বুঝেই উঠতে পারছিল না ভ্যালেন্সিয়া। ডি বক্সের ভেতর কারিকুরি দেখিয়ে বাঁ দিকে ভিনিসিয়াস জুনিয়রকে বল পাস দেন করিম বেনজেমা। সেখানে বল পেয়ে দারুণ এক শটে বল জালে জড়িয়ে রিয়ালকে সমতায় ফেরান ভিনিসিয়াস।

এবারের মৌসুমে রিয়ালের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতা ভিনিসিয়াস জুনিয়র। কেবল রিয়ালেরই নন গোটা লা লিগারও দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতা তিনিই। তার নামের পাশে আছে পাঁচটি গোল আর সঙ্গে দুটি অ্যাসিস্টও।

ভ্যালেন্সিয়ার মাঠে রিয়ালের রোমাঞ্চকর জয়

ম্যাচ তখন ড্র-এর দিকেই এগোচ্ছে। কিন্তু তখনও এক পয়েন্ট পাওয়ায় তুষ্ট হতে পারেনি রিয়াল। ৮৮ মিনিটের মাথায় বাঁ দিক থেকে ভাসানো বল ডি বক্সে ক্রস করেন ভিনি। ডি বক্সের ভেতর দুই ডিফেন্ডার এবং এগিয়ে আসা গোলরক্ষকের মধ্য থেকে হেড করে বল জালে জড়ান করিম বেনজেমা। আর তাতেই ২-১ গোলে এগিয়ে যায় রিয়াল। শেষ পর্যন্ত ওই ২-১ ব্যবধানের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে বেনজেমারা। চলতি মৌসুমে এটি বেনজেমার ষষ্ঠ গোল, সেই সঙ্গে আছে পাঁচটি অ্যাসিস্টও। গোল এবং অ্যাসিস্ট দুই দিক দিয়ে লা লিগার শীর্ষে অবস্থান করছেন করিম বেনজেমা।

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন