বিজ্ঞাপন

বিএনপি অন্ধকারে তলিয়ে গেছে: খালিদ মাহমুদ চৌধুরী

September 19, 2021 | 3:16 pm

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

দিনাজপুর: বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের পুরস্কৃত করা বিএনপি আজকে তারা অন্ধকারে তলিয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

বিজ্ঞাপন

দিনাজপুরের বিরলে ফুলবাড়ী হাট উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে এক সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ মন্তব্য করেন তিনি।

নৌ প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধুর আদর্শে এগিয়ে যাচ্ছে। আমরা জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী পালন করছি। যারা বঙ্গবন্ধুকে কলঙ্কিত করার চেষ্টা করেছিল; যারা বঙ্গবন্ধুকে অপমানিত করেছে; যারা বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের পুরস্কৃত করেছে আজকে তারা মহাঅন্ধকারে তলিয়ে গেছে। তারা আজকে কোথাও নেই। আজকে জিয়াউর রহমানের কী অবস্থা! জিয়া পরিবারের কী অবস্থা! তার সহধর্মিনী অপরাধী হয়ে জেল খাটছে। তার এক ছেলে পলাতক। আরেক ছেলে মাদকাসক্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছে। এই হচ্ছে জিয়া পরিবারের অবস্থা। জিয়া, খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধুকে অনেক অপমান ও অপদস্থ করেছে। কিন্তু আজকে বঙ্গবন্ধু শুধু বাংলাদেশে নয়; তাবত দুনিয়ায় বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারন করে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে।’

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ এগিয়ে গেলেও বিএনপির রাজনীতিতে কোনো গতি নেই মন্তব্য করে খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘তাদের ধারাবাহিক মিটিংয়ে মধ্যম সারি ও নিম্নসারির নেতারা বলেছেন, আন্দোলনের আগেই যেন তাদের নেতারা মেডিক্যাল চেকআপ করে আসেন। পাসপোর্ট জমা দিয়ে আন্দোলনে নামেন। এই হচ্ছে বিএনপি।’

খালিদ বলেন, ‘রোজার ঈদ, কোরবানির ঈদ বা দূর্গা পুজার পরে নয়; এবার কনকনে শীতের মধ্যে ডিসেম্বরে আন্দোলন করতে হবে!’

বিজ্ঞাপন

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘পঁচাত্তর পরবর্তী সময়ে অন্ধকার থেকে অন্ধকারে তলিয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশ। তাদের কোনো লক্ষ্য ছিল না, দূরদর্শিতা ছিল না। লক্ষ্য না থাকার কারণে বাংলাদেশ এগুতে পারে নাই। গুটিকয়েক মানুষ আঙুল ফুলে কলাগাছ হয়েছে। বাংলাদেশের সার্বিক উন্নয়ন হয় নাই।’

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দেশ পরিচালনা করছেন বলেই বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। দেশ নিয়ে তার লক্ষ্য ও পরিকল্পনা আছে বলেই তিনি ডেল্টা প্ল্যান ২১০০ দিয়েছেন।’

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশের শক্তিশালী অর্থনীতির কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘পৃথিবীর অনেক বড় দেশ করোনায় বিধ্বস্ত হলেও; বাংলাদেশের অর্থনীতি ধ্বংস হয়ে যায়নি। ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি। আজকে পদ্মাসেতু দৃশ্যমান। সেতুর পিলারে ফেরির আঘাতে বাংলাদেশের মানুষের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হয়েছে। আমরা বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয়েছি। বাংলাদেশের জনগণ সেই কষ্ট ধারণ করতে পারছিল না। কেন এ কষ্ট? কারণ বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশকে কষ্ট দিয়েছে। বাংলাদেশকে দুর্নীতিবাজ বানানোর পদক্ষেপ নিয়েছিল। সেই পদক্ষেপে ঘি ঢেলেছিল বেগম খালেদা জিয়া আর নোবেল জয়ী ড. ইউনূস। বাংলাদেশের জনগণ সেদিন আশাহত হয়েছিল। শেখ হাসিনা বলেছিল বিশ্বব্যাংককে প্রমাণ করতে হবে। বিশ্বব্যাংক পদ্মাসেতু থেকে সরে যাওয়ার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছে।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘করোনার দেড় বছর সময়ে পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ একদিনের জন্য বন্ধ হয়নি। নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রম একদিনের জন্য বন্ধ থাকেনি। নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের কাজ সময়মতো এগিয়ে যাচ্ছে। নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন প্রকল্পের কাজের অগ্রগতি ৯৫ ভাগ। এ হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার বাংলাদেশ।’

বিজ্ঞাপন

এলাকাবাসীর উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘জেলার আশপাশের নদীগুলো খনন হয়ে গেলে বাধ ভেঙে অতিবৃষ্টি হোক না কেন; নদী প্রবাহ নষ্ট হবে না। বন্যায় আর এ অঞ্চল প্লাবিত হবে না।’

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মশতবার্ষিকী এবং মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) তুলাই নদী খননের উদ্যোগ নেয়। খননকৃত তুলাই নদীর দুপাড়ে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি হয় রোববার। প্রতিমন্ত্রী বিরলের ফুলবাড়ী ব্রিজ সংলগ্ন স্থানে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন এবং ফুলবাড়ী হাট উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে সুধী সমাবেশে বক্তৃতা করেন।

বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিআইডব্লিউটিএ’র প্রকল্প পরিচালক রকিবুল ইসলাম তালুকদার, ইউএনও মো. আব্দুল ওয়াজেদ, বিরল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রমাকান্ত রায় এবং বোচাগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আবু সৈয়দ হোসেন।

এর আগে দুপুরে প্রতিমন্ত্রী ‘দৈনিক উত্তরা’র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে যোগ দেন। পরে সন্ধ্যায় বোচাগঞ্জ আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সভায় যোগ দেন তিনি।

সারাবাংলা/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন