বিজ্ঞাপন

রিজেন্ট কেলেঙ্কারিতে আসামি হচ্ছেন সাবেক ডিজি হেলথ

September 20, 2021 | 7:10 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: হালনাগাদ লাইসেন্স না থাকা রিজেন্ট হাসপাতালকে কোভিড ডেডিকেটেড হাসপাতালে পরিণত করার ঘটনায় স্বাস্থ্য অধিদফতরের সাবেক মহাপরিচালক (ডিজি হেলথ) আবুল কালাম আজাদকেও আসামি করা হচ্ছে। এ ঘটনা তদন্ত করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) এরই মধ্যে অভিযোগপত্র তৈরি করেছে। সেই অভিযোগপত্রে আবুল কালাম আজাদসহ স্বাস্থ্য অধিদফতরের আরও চার কর্মকর্তার নাম রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) এ মামলার অভিযোগপত্র অনুমোদন দিয়েছে দুদক। এই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ছিলেন দুদকের উপপরিচালক মো. ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী। দুদক কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপাকালে এ তথ্য জানিয়েছেন দুদক সচিব মো. আনোয়ার হোসেন।

দুদকের তদন্ত শেষে যে অভিযোগপত্র তৈরি করা হয়েছে তাতে আসামি হিসেবে থাকছেন— স্বাস্থ্য অধিদফতরের সাবেক মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ, সাবেক পরিচালক আমিনুল হাসান, উপপরিচালক (হাসপাতাল-১) ডা. মো. ইউনুস আলী, সহকারী পরিচালক (হাসপাতাল-১) ডা. মো.শফিউর রহমান ও গবেষণা কর্মকর্তা ডা. মো. দিদারুল ইসলাম। এছাড়া রিজেন্ট গ্রুপ ও রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহেদ ওরফে সাহেদ করিম আসামি হিসেবে থাকছেনই।

বিজ্ঞাপন

দুদক সচিব সাংবাদিকদের বলেন, রিজেন্ট হাসপাতালের লাইসেন্স নবায়নের বিষয়ে মন্ত্রণালয় কিছুই জানত না। প্রয়োজন হলে স্বাস্থ্য খাতের দিকে দুদক আরও নজরদারি বাড়াবে। তদন্ত কর্মকর্তা তদন্তের সময় ছয় জনের সংশ্লিষ্টতা পাওয়ায় কমিশনে তদন্ত রিপোর্ট দাখিল করে চার্জশিটের (অভিযোগপত্র) জন্য আবেদন করেছে। কমিশন সেটার অনুমোদন দিয়েছে।

সচিব আনোয়ার হোসেন আরও বলেন, আসামিদের বিরুদ্ধে লাইসেন্স নবায়নবিহীন বন্ধ রিজেন্ট হাসপাতালকে ডেডিকেটেড কোভিড হাসপাতালে রূপান্তর, সমঝোতা স্মারক সম্পাদন এবং নমুনা পরীক্ষা ও করোনা চিকিৎসায় খরচ বাবদ ৩ কোটি ৩৪ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসজে/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন