বিজ্ঞাপন

২৪ ঘণ্টায় ২৬ মৃত্যু, সংক্রমণ কমে ৫ শতাংশের নিচে

September 21, 2021 | 4:42 pm

সারাবাংলা ডেস্ক

ঢাকা: দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে ২৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। আগের দিনও এই সংখ্যা ছিল ২৬। এছাড়া আগের দিন ১ হাজার ৫৫৫ জনের শরীরের কোভিড-১৯ সংক্রমণ শনাক্ত হলেও গত ২৪ ঘণ্টায় এই সংখ্যা ছিল ১ হাজার ৫৬২।

বিজ্ঞাপন

এদিকে, আগের দিন সংক্রমণ শনাক্তের হার ৫ দশমিক ৬৭ শতাংশ থাকলেও গত ২৪ ঘণ্টায় সেটি কমে ৪ দশমিক ৬৯ শতাংশে দাঁড়িয়েছে।

মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানার সই করা বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞপ্তির তথ্য বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে ৮১০টি ল্যাবে করোনা নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এই সময়ে এসব ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ করা হয় ৩৩ হাজার ৩৭৫টি। আর নমুনা পরীক্ষা করা হয় ৩৩ হাজার ৩২৭টি। গত ২৪ ঘণ্টার নমুনা পরীক্ষা মিলিয়ে এ নিয়ে দেশে করোনাভাইরাসের মোট নমুনা পরীক্ষা হলো ৯৪ লাখ ৯৮ হাজার ৪১৪টি।

গত ২৪ ঘণ্টায় পরীক্ষা করা নমুনার ১ হাজার ৫৬২টিতে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট সংক্রমণ দাঁড়াল ১৫ লাখ ৪৫ হাজার ৮০০টি। গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে সংক্রমণ শনাক্তের হার ৪ দশমিক ৬৯ শতাংশ। আর এখন পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে সংক্রমণ শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ২৭ শতাংশ।

বিজ্ঞাপন

একই সময়ে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৬০৩ জন। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমণ থেকে সুস্থ হওয়া ব্যক্তির সংখ্যা দাঁড়াল ১৫ লাখ ৪ হাজার ৭০৯ জনে। সংক্রমণ বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৩৪ শতাংশ।

বিজ্ঞপ্তির তথ্য বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণ নিয়ে মারা যাওয়া ২৬ জনসহ দেশে করোনায় মৃত্যু দাঁড়াল ২৭ হাজার ২৭৭ জনে। সংক্রমণ বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৭৬ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃতদের মধ্যে পুরুষ ১৬ জন, নারী ১০ জন। এই ২৬ জনের মধ্যে এক জন বাসায় এবং ২৫ জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

বিজ্ঞাপন

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণ নিয়ে মৃত ২৬ জনের মধ্যে সর্বোচ্চ আট জনের বয়স ৬১ থেকে ৭০ বছর। এছাড়া ৫১ থেকে ৬০ এবং ৭১ থেকে ৮০ বছর বয়সীদের মধ্যে পাঁচ জন করে মারা গেছেন। এর বাইরে ৪১ থেকে ৫০ বছর বয়সী তিন জন, ৩১ থেকে ৪০ বছর বয়সী দু’জন, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে এক জনের মৃত্যু হয়েছে। এর বাইরে ৮১ থেকে ৯০ বছর ও ৯১ থেকে ১০০ বছর বয়সী এক জন করে মারা গেছেন। এই সময়ে ২০ বছরের নিচে ও ১০০ বছরের বেশি বয়সী কেউ মারা যায়নি।

এই ২৬ জনের মধ্যে সর্বোচ্চ ১৫ জন ঢাকা বিভাগের। এছাড়া চট্টগ্রাম ও রাজশাহী বিভাগের তিন জন করে, খুলনা ও সিলেট বিভাগের দুই জন করে এবং ময়মনসিংহ বিভাগের এক জনের মৃত্যু হয়েছে। এই সময়ের মধ্যে বরিশাল ও রংপুর বিভাগের কেউ মারা যায়নি।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/পিটিএম

বিজ্ঞাপন

Tags:

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন