বিজ্ঞাপন

সেই শিক্ষকের বিরুদ্ধে এবার রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা

April 4, 2018 | 1:48 pm

।। স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট।।

বিজ্ঞাপন

চট্টগ্রাম ব্যুরো: জাতির জনকের অবমাননা, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতি ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাসন আমল নিয়ে মিথ্যা, বানোয়াট ও মনগড়া তথ্য পরিবেশনের দায়ে অভিযুক্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের অধ্যাপক মোর্শেদ হাসান খানের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামের আদালতে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বুধবার (০৪ এপ্রিল) চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম আল ইমরানের আদালতে মামলাটি দায়ের করেছেন চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি জাবেদুল আলম মাসুদ। এ ছাড়া লেখাটি প্রকাশ করায় দৈনিক নয়াদিগন্ত পত্রিকার সম্পাদক আলমগীর মহিউদ্দিন এবং প্রকাশক সামসুল হুদাকেও মামলায় আসামি করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বাদীর আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী সারাবাংলাকে বলেন, আদালত মামলার আরজি গ্রহণ করে ২০০ ধারায় বাদির জবানবন্দি রেকর্ড করেছেন। এরপর বাদির ঠিকানা অনুযায়ী পাঁচলাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) মামলাটি থানায় নিয়মিত এজাহার হিসেবে রেকর্ডের নির্দেশ দিয়েছেন। তবে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ হওয়ায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন আনার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাও গ্রহণের নির্দেশ ওসিকে দিয়েছেন আদালত।

মামলার আরজিতে বলা হয়েছে, গত ২৬ মার্চ দৈনিক নয়াদিগন্ত পত্রিকায় ‘জ্যোর্তিময় জিয়া’ শিরোনামে একটি নিবন্ধ প্রকাশিত হয়। নিবন্ধে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের শিক্ষক ড. মোর্শেদ হাসান খান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানসহ তৎকালীন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের হেয় করেন এবং জিয়াউর রহমানকে ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চের স্বাধীনতার ঘোষক হিসেবে উপস্থাপন করেন।

বিজ্ঞাপন

বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণের পুরো অংশ তুলে ধরে মামলার আরজিতে বলা হয়, আসামি সংবিধানে স্বীকৃত তথ্য বিকৃত করে বাংলাদেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্বের প্রতি আঘাত করেছেন যা সংবিধানের ৭(ক)-এর ২ অনুচ্ছেদে সম্পূর্ণভাবে নিষিদ্ধ। এই নিষিদ্ধ কার্যক্রম করা রাষ্ট্রদ্রোহীতার অপরাধ।

মামলার আরজিতে আসামিদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ১২৩ (ক), ১২৪ (ক), ১৭৭, ৫০০, ৫০১ ও ৫০২ ধারায় অপরাধ সংঘঠনের অভিযোগ এনেছেন বাদি।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/আরডি/এমআইএস/এমআই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন