বিজ্ঞাপন

শুক্রবারই বন্ধ হচ্ছে অবৈধ মোবাইল ফোন

September 30, 2021 | 7:14 pm

এমদাদুল হক তুহিন, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: আগামীকাল (১ অক্টোবর) থেকে দেশে আর নতুন করে কোনো অবৈধ মোবাইল হ্যান্ডসেট ব্যবহারের সুযোগ থাকছে না। সরকারের রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে চোরাইপথে আমদানি করা কোনো মোবাইল ফোন আগামীকাল থেকে নতুন করে আর ব্যবহার করা যাবে না। বাজারে থাকা এমন কোন মোবাইল ফোন দেশের নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে চালু হলেই স্বয়ংক্রিয়ভাবে মেসেজ পাঠিয়ে তা বন্ধ হয়ে যাবে। তবে কারিগরি ত্রুটি বা অন্য কোনো কারণে বৈধ কোনো মোবাইল হ্যান্ডসেট চালু না হলে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) সাহায্য নেওয়া যাবে। রেজিস্ট্রেশনের পথ বাতলে দিতে পারবে সংশ্লিষ্ট মোবাইল অপারেটরগুলো।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) বিটিআরসির ভাইস-চেয়ারম্যান সুব্রত রায় মৈত্রের সঙ্গে আলাপকালে এমন তথ্য জানা গেছে।

বিটিআরসির ভাইস-চেয়ারম্যান সুব্রত রায় মৈত্র সারাবাংলাকে বলেন, ‘ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টার (এনইআইআর) সিস্টেমের ৩ মাসের পরীক্ষামূলক কার্যক্রম বৃহস্পতিবার শেষ হচ্ছে। কাল (১ অক্টোবর) থেকে অবৈধ মোবাইল সেট আর নতুন করে চালু করা যাবে না। কোনো মোবাইল সেট যদি বৈধ হয়, কোনো কারণে সমস্যা দেখা দেয়, তাহলে সেই গ্রাহক রেজিস্ট্রেশন করতে পারবে। আর অবৈধ সেট হলে গ্রাহক এসএমএস পাবে, এসএমএস পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সেটটি বন্ধ হয়ে যাবে। বৈধ মোবাইল ফোনের ক্ষেত্রে কোনো সমস্যা হলে গ্রাহক বিটিআরসিতে আসতে পারবে। রেজিস্ট্রেশনের জন্য আবেদন করতে পারবে। এ ছাড়া তারা সংশ্লিষ্ট অপারেটরের কল সেন্টার বা কাস্টমার কেয়ারের সহায়তা নিতে পারবে। তারা পন্থা বাতলে দেবে।’

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, ‘আমাদের মূল লক্ষ্য হচ্ছে অবৈধ বা নকল সেটের বাজারজাতকরণ বন্ধ করা।’

এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘আমাদের ডাটাবেজে প্রতিদিন বৈধ মোবাইল সেটের তথ্য যুক্ত হচ্ছে। এখন পর্যন্ত কতগুলো মোবাইল ফোনের রেজিস্ট্রেশন বা ডাটাবেজে যুক্ত হয়েছে তা বলা যাবে না। অনেকে বলেন বাজারে ১০ থেকে ১৫ শতাংশ অবৈধ বা নকল সেট রয়েছে।’

বিজ্ঞাপন

আরেক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘বাজারে আজ পর্যন্ত যেসব নকল বা অবৈধ সেট ছিল, ওই সব সেট সিম ব্যবহার করে চালু হয়েছে, সেইসব সেট আপতত বন্ধ হবে না। অর্থাৎ আজ পর্যন্ত যেসব সেট দেশের নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে চালু রয়েছে তা বন্ধ হচ্ছে না। তবে কাল থেকে কোনো অবৈধ সেট নতুন করে আর চালু হবে না। সিম দিয়ে সেটটি চালু করার সঙ্গে সঙ্গে স্বয়ংক্রিয়ভাবে মেসেজ আসার পর তা বন্ধ হয়ে যাবে। এর ফলে দেশে আর অবৈধভাবে রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে কোন সেট আসবে না। সরকার রাজস্ব হারাবে না।’

বিটিআরসি আরও জানিয়েছে, অবৈধ মোবাইল ফোনের ক্ষেত্রে এসএমএসে জানানো হবে, ‘সেটটি অবৈধ, কিছুক্ষণের মধ্যে সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যাবে’।

বিজ্ঞাপন

এর আগে, ১ জুলাই দেশে চালু হয় ন্যাশলাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিফিকেশন রেজিস্ট্রার (এনইআইআর) প্রযুক্তি। পরীক্ষামূলকভাবে তিন মাস এই কার্যক্রম চলার পর কাল থেকে পুরোদমে শুরু হচ্ছে এর যাত্রা। বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনে (বিটিআরসি) এই যন্ত্র বসানোর মধ্য দিয়ে কর ফাঁকি দিয়ে চোরাই পথে মোবাইল আমদানির দিন শেষ হতে চলছে। ১ অক্টোবর থেকে জেনে নিতে হবে মোবাইল ফোনের আইএমইআই নম্বরটি বিটিআরসিতে বসানো এনইআইআর ডিভাইসে যুক্ত আছে কিনা। অর্থাৎ অবৈধ পথে আসা মোবাইল হ্যান্ডসেট দেশে আর ব্যবহার করা যাবে না।

এর আগে বিটিআরসি জানিয়েছিল, দেশে বন্ধ হতে যাচ্ছে ক্লোন বা নকল আইএমইআই সংবলিত মোবাইল ফোন। ‘ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেনটিটি রেজিস্টার (এনইআইআর)’ প্রযুক্তি স্থাপনের মধ্য দিয়ে এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে। সেইসঙ্গে ক্রেতাদের আইএমইআই যাচাই করে নতুন সেট কেনার পরামর্শ দিয়েছিল সংস্থাটি।

বিজ্ঞাপন

বিটিআরসি জানিয়েছে, নতুন মোবাইল ফোন কেনার সময় মেসেজ অপশনে গিয়ে KYD<space> ১৫ ডিজিটের আইএমইআই নম্বর লিখে ১৬০০২-তে পাঠাতে হবে। মোবাইল ফোনের বক্সে বা প্যাকেটে প্রিন্টেড স্টিকার থেকে অথবা *#০৬# ডায়াল করার মাধ্যমে তাৎক্ষকিভাবে সংশ্লিষ্ট ফোন সেটের আইএমইআই জানা যায়।

প্রযুক্তিটি চালু হলে অবৈধ মোবাইল ফোনে প্রাথমিকভাবে নির্দিষ্ট একটি সিম ছাড়া অন্য কোনো সিম কাজ করবে না। এমনকি পরবর্তী সময়ে কোনো সিমই কাজ করবে না ওই ফোন সেটে। এতে গ্রাহকরা বাধ্য হয়েই অবৈধ ফোন ব্যবহার বন্ধ করবেন। অবৈধ মোবাইল আমদানি বন্ধ, চুরি, নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ ও রাজস্ব ফাঁকি ঠেকাতে এ উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে বিটিআরসি।

আরও পড়ুন
অবৈধ ও নকল ফোন বন্ধে এনইআইআর চালু
সীমান্ত থেকে ৯ লাখ টাকার ভারতীয় অবৈধ মোবাইল জব্দ
১ আগস্টের আগে কেনা মুঠোফোন অবৈধ নয়: বিটিআরসি
অবৈধ মোবাইল ফোন নিবন্ধনের আওতায় আনা জরুরি: টিক্যাব
থাকবে না অবৈধ মোবাইল, সতর্ক থাকার পরামর্শ বিটিআরসি’র

সারাবাংলা/ইএইচটি/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন