বিজ্ঞাপন

ঈদে মিলাদুন্নবীর শোভাযাত্রা ২০ অক্টোবর, শঙ্কা উন্মুক্ত নালা নিয়ে

October 12, 2021 | 7:10 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে আগামী ২০ অক্টোবর চট্টগ্রাম নগরীর জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলীয়া কামিল মাদরাসার মাঠে ধর্মীয় সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। এদিন নগরীতে সম্মিলিত শোভাযাত্রারও আয়োজন করা হয়েছে। এতে নেতৃত্ব দেবেন পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়ার প্রদেশের সিরিকোট দরবার শরীফের উত্তরাধিকার সৈয়দ মুহাম্মদ সাবির শাহ।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়। আয়োজক সংগঠন আনজুমান-এ রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্টের মহাসচিব মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেন এতে লিখিত বক্তব্য পড়েন।

লিখিত বক্তব্যে জানানো হয়েছে, ২০ অক্টোবর বুধবার সকাল ৮টায় চট্টগ্রামের ষোলশহর জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলীয়া মাদরাসা সংলগ্ন আলমগীর খানকা থেকে সম্মিলিত শোভাযাত্রা শুরু হবে। নগরীর বিবিরহাট, মুরাদপুর, মির্জারপুল, কাতালগঞ্জ, অলিখাঁ মসজিদ, চকবাজার, প্যারেড মাঠের উত্তর-পূর্ব পাশ, চন্দনপুরা, সিরাজউদ্দৌলা সড়ক, দিদার মার্কেট, দেওয়ান বাজার, আন্দরকিল্লা, মোমিন রোড, কদম মোবারক, চেরাগি পাহাড় মোড়, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব, জামালখান, কাজীর দেউড়ি, আলমাস-ওয়াসা, জিইসি, দুই নম্বর গেইট প্রদক্ষিণ করবে শোভাযাত্রা। এরপর আবার সুন্নিয়া মাদরাসার মাঠে ফিরবে। সেখানে মিলাদ মাহফিল, জোহরের নামাজ আদায় এবং দোয়া-মোনাজাত হবে।

বিজ্ঞাপন

প্রতিবছরের মতো এবারও শোভাযাত্রায় লাখো মানুষের সমাগম হবে বলে আশা আয়োজকদের। তবে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা এবং চট্টগ্রামের বাইরের জেলাগুলো থেকে অংশগ্রহণ নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। এর পরিবর্তে গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশকে নিজ নিজ জেলা সদরে ২০ অক্টোবর শোভাযাত্রা আয়োজনের জন্য বলা হয়েছে।

তবে আয়োজকদের আশঙ্কা চট্টগ্রাম নগরীতে উন্মুক্ত নালা নিয়ে। ইতোমধ্যে একমাসের ব্যবধানে চট্টগ্রাম নগরীতে নালায় পড়ে এক সবজি বিক্রেতা ও এক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর করুণ মৃত্যু হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়েছে, শোভাযাত্রা নিয়ে শহর প্রদক্ষিণের সময় যাতে কোনো বিপদ না ঘটে, সেজন্য নালা-নর্দমার উপরিভাগ যেন উন্মুক্ত না থাকে, সে বিষয়ে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

বিজ্ঞাপন

এতে আরও বলা হয়, আনজুমান ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনায় ১৯৭৪ সাল থেকে চট্টগ্রামে সম্মিলিত শোভাযাত্রা বের হচ্ছে। এই জশনে জুলুস বা সম্মিলিত শোভাযাত্রা এখন চট্টগ্রামের ইতিহাস-ঐতিহ্যের নিদর্শন হিসেবে গণ্য হচ্ছে। সরকারি উদ্যোগে ঈদে মিলাদুন্নবীর শোভযাত্রা আয়োজনের দাবি জানানো হয়েছে। এছাড়া চট্টগ্রামের শোভাযাত্রাকে জাতিসংঘের ইউনেস্কো যাতে ‘বিশ্ব ঐতিহ্য’ ঘোষণা করে সেই দাবিও তুলে ধরা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলীয়া মাদরাসার অধ্যক্ষ সৈয়দ মুহাম্মদ অছিয়র রহমান, আনজুমান-এ রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্টের অতিরিক্ত সচিব মুহাম্মদ সামশুদ্দীন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক কাজী সামশুর রহমান, জামেয়ার চেয়ারম্যান মুহাম্মদ দিদারুল ইসলাম, গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশের চেয়ারম্যান পেয়ার মুহাম্মদ, যুগ্ম মহাসচিব মোছাহেব উদ্দিন বখতিয়ার।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/আরডি/পিটিএম

বিজ্ঞাপন

Tags:

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন