বিজ্ঞাপন

প্রশ্নবিদ্ধ পেনাল্টিতে সাফে বাংলাদেশের স্বপ্নভঙ্গ

October 13, 2021 | 7:13 pm

স্পোর্টস ডেস্ক

ম্যাচের নবম মিনিটে এগিয়ে যাওয়া বাংলাদেশ নেপালকে আটকে রেখেছিল দারুণভাবে। কিন্তু শেষ মুহূর্তে এক ভুলেই হলো সর্বনাশ। ৭৮ মিনিটে গোল বাঁচাতে গিয়ে লাল কার্ড দেখেন ম্যাচের সেরা পারফরমার গোলরক্ষক আনিসুর রহমান জিকো। চাপে পড়া দশ জনের বাংলাদেশের বিপক্ষে ৮৮ মিনিটে পেনাল্টি পায় নেপাল। পেনাল্টি গোলে স্বপ্নভঙ্গ হয়েছে বাংলাদেশের। যদিও এই পেনাল্টি নিয়ে উঠেছে বড় প্রশ্ন।

বিজ্ঞাপন

শেষ পর্যন্ত ১-১ গোলের ড্র নিয়ে মাঠ ছেড়েছে বাংলাদেশ। সমীকরণ অনুযায়ী এই ড্রতে বাংলাদেশকে বিদায় করে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে উঠে গেছে নেপাল। ফাইনালের কাছে গিয়েও হতাশার বিদায় নিশ্চিত হওয়া বাংলাদেশের এতে সাফ দুঃখ আরও বাড়ল। ২০০৫ সালে সর্বশেষ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল খেলেছিল বাংলাদেশ। এই টুর্নামেন্টে একমাত্র শিরোপা জয় তারও দুই বছর আগে।

বুধবার (১৩ অক্টোবর) মালদ্বীপের রাজধানী মালের রাশমি ধান্দু স্টেডিয়ামে জিকোর ওই লাল কার্ডটাই ফাইনালের লড়াই থেকে ছিটকে দিয়েছে বাংলাদেশকে। জিকোর লাল কার্ডটি রাকিব হাসানের ভুলের খেসারত। মাঝমাঠ থেকে বল বাতাসে ভাসিয়ে ব্যাক পাস করেন রাকিব। দিয়েছিলেন গোলকিপার জিকোকে। কিন্তু ভুল পাসটা ছিল ডি-বক্সের অনেকটা উপরে। বল পেতে যাচ্ছিলেন অঞ্জন বিষ্টা। জিকো ডি-বক্সের বাইরে ছুটে এসে বল ক্লিয়ার করতে জান। দুর্ভাগ্যবশত বল হাতে লাগে বাংলাদেশি গোলরক্ষকের। সরাসরি লাল কার্ড দেখান রেফারি। রাকিবের ভুলে সর্বনাশ যা হবার তখনই হয়ে যায়।

বিজ্ঞাপন

৮৮ মিনিটে রেফারিংও হলো বাংলাদেশের বিপক্ষে। ডি-বক্সে অঞ্জন বিষ্টাকে হেড নিতে বাধা দিয়েছিলেন সাদ উদ্দিন। কিন্তু তার বিরুদ্ধে অভিযোগ অঞ্জনকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দিয়েছেন তিনি। কিন্তু আসলেই ধাক্কা দিয়েছিলেন কিনা তা নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন। প্রশ্নবিদ্ধ পেনাল্টিতে গোল করতে ভুল করেননি অঞ্জন। জেতার সমীকরণ মেলাতে বাকি কয়েক মিনিটে গোল আদায় করতে পারেনি বাংলাদেশ।

চার পরিবর্তন নিয়ে আজকের ম্যাচের একাদশ সাজিয়েছিলেন বাংলাদেশ কোচ অস্কার ব্রুজন। আগের ম্যাচ খেলা মতিন মিয়ার জায়গায় নেমেছেন সুমন রেজা। রহমত মিয়ার জায়গায় খেলছেন টুটুল হোসেন বাদশা। ইয়াছিন আরাফাত দুই হলুদ কার্ডের কারণে নেই। দলে ফিরেছেন রাকিব হোসেন ও বিশ্বনাথ ঘোষ। পরিবর্তন কাজে লেগেছে ম্যাচের নবম মিনিটেই।

বিজ্ঞাপন

দারুণ গতিতে বক্সে ঢুকছিলেন রাকিব। বাংলাদেশি ফুটবলারকে থামাতে বক্সের বাঁ প্রান্তে তাকে ফাউল করেন নেপাল ডিফেন্ডার। এতেই প্রথম গোল আদায় করে নেয় বাংলাদেশ। অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়ার ফ্রি-কিক নেপালের মানব দেয়ালে বাঁধা পেয়ে এগিয়ে যাচ্ছিল। বলে মাথা ছুইয়ে বল জালে জড়িয়ে দেন সুমন রেজা।

বাকি সময়ে গোল পাওয়া বাংলাদেশের বিপক্ষে মরিয়া ফুটবল খেলেছে নেপাল। বলের দখল ধরে রেখে লম্ব শটে বারবার আক্রমণে উঠতে চেয়েছে নেপালিরা। তবে গোছালো ফুটবল খেলে বাংলাদেশের রক্ষণ ভাঙতে পারছিল না। অপর দিকে বাংলাদেশ খেলেছে প্রতিআক্রমণের ফুটবল। তবে প্রতিপক্ষের ডি-বক্সে গিয়ে কেন জানি বারবার খেই হারিয়ে ফেলছিল লাল-সবুজের দল। সাদ উদ্দিনকে একাধীকবার মনে হলো উদ্দেশ্যেহীন।

বিজ্ঞাপন

প্রশ্নবিদ্ধ পেনাল্টিতে সাফে বাংলাদেশের স্বপ্নভঙ্গ

২৩ মিনিটে বিষ্টার ফ্রি-কিক লাফিয়ে উঠে ফিস্ট করে দলকে বাঁচান জিকো। দুই মিনিট বাদে সুবিধাজনক স্থানে বল পেয়েও তাড়াহুড়া করে সুযোগ হারান সাদ উদ্দিন। প্রথমার্ধের শেষ মুহূর্তে আয়ুশ খালানের হেড ক্রসবারের অল্প উপর দিয়ে বেরিয়ে যায়। ১-০ তে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় বাংলাদেশ।

বিজ্ঞাপন

৫০ মিনিটে আবারও দলকে বাঁচান জিকো। আয়ুশ খালানের ফ্রি-কিক পাঞ্চ করে বল বাইরে পাঠান। তিন মিনিট পর অনন্ত তামাংয়ের হেড বিপদমুক্ত করেন বাংলাদেশ গোলরক্ষক। ৫৫ মিনিটে প্রতিআক্রমণে গোল পেতে পারত বাংলাদেশ। কিন্তু সুমন রেজা গোলরক্ষককে একা পেয়েও গোল করতে পারেননি। ৬৫ মিনিটে নবযুগ শ্রেষ্ঠার হেড দারুণ দক্ষতায় ঠেকিয়ে দেন জিকো।

৭৬ মিনিটে রাকিবের সেই শিশুসুলভ ভুলে জিকোর লাল কার্ড। গোলবারের নিচে দাড়ান রানা। ৮৮ মিনিটে বাংলাদেশের বিপক্ষে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। কয়েকবার রিপ্লে দেখলেও অঞ্জনকে সাদ উদ্দিনের ধাক্কা দেওয়ার বিষয়টি দেখা যায়নি। পেনাল্টি শটে অঞ্জনকে রুখতে পারেননি রানা। বাকি সময়ে বাংলাদেশ গোল আদায় করতে পারল না বলে না হেরেও সাফ থেকে বিদায় নিশ্চিত হয়েছে লাল-সবুজের দলের।

ভারতের আয়োজনে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও ওমানে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ২০২১ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। এবারের বিশ্বকাপের সবকটি ম্যাচ সরাসরি সম্প্রচার করবে দেশের জনপ্রিয় স্যাটেলাইট চ্যানেল জিটিভি। এছাড়াও বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় অনলাইন প্ল্যাটফর্ম র‍্যাবিটহোলের ওয়েবসাইটে দেখা যাবে বিশ্বকাপের খেলা। অনলাইনে র‍্যাবিটহোলে খেলা দেখতে ব্রাউজ করুন https://www.rabbitholebd.com/

সারাবাংলা/এসএইচএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন