বিজ্ঞাপন

৭৭-এর হত্যাকাণ্ডে জিয়ার বিচারে তদন্ত কমিশন গঠনের দাবি

October 16, 2021 | 3:46 pm

ঢাবি করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ১৯৭৭ সালের ২ অক্টোবর সশস্ত্র বাহিনীর সদস্য ও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মিথ্যা ও প্রহসনমূলক বিচারের নামে ফাঁসি দিয়ে হত্যার প্রতিবাদ জানিয়ে আলোকচিত্র মানববন্ধন করেছে ফোজিত শেখ ক্রিয়েশন নামের একটি সংগঠন। এ সময় বক্তারা সাবেক সেনাপ্রধান জিয়াউর রহমানের মরোণত্তর বিচার চেয়ে জানিয়ে একটি তদন্ত কমিশন গঠনের দাবি জানান।

বিজ্ঞাপন

শনিবার (১৬ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর শাহবাগ জাতীয় জাদুঘরের সামনে কর্মসূচি পালন করা হয়।

মানবন্ধন থেকে বক্তারা ১৯৭৭ সালে সশস্ত্র বাহিনীর সদস্য ও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের হত্যার ঘটনায় তদন্ত কমিশন গঠন ও রিপোর্ট প্রকাশের দাবি জানান। পাশাপাশি জিয়াউর রহমানের অনুসারী বিএনপির সকল এমপি-মন্ত্রীর সম্পদ বাজেয়াপ্ত করে ১৯৭৭ সালে নিহতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ হিসেবে দেওয়ার দাবি জানান তারা।

বিজ্ঞাপন

মানববন্ধনে বাংলাদেশ শিশু কল্যাণ পরিষদের চেয়ারম্যান মো. জাকারিয়া পিন্টু বলেন, ‘প্রেতাত্মা সেনাশাসক জিয়াউর রহমানের মরণোত্তর বিচার করতে হবে। এ মুহূর্তে জিয়াউর রহমান বেঁচে নেই, কিন্তু তার অনুসারীরা এখনও স্বাধীন বাংলাদেশে হুঙ্কার দিয়ে চলেছে। সেদিন যারা সেনাবাহিনী-নৌবাহিনীতে ছিলো, তাদের জিয়াউর রহমান পাখির মতো হত্যা করেছিলো।’

একটি শক্তিশালী কমিশন গঠন করে জিয়াউর রহমানকে বিচারের আওতায় আনার দাবি জানিয়ে স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক উত্তম কুমার বড়ুয়া বলেন, ‘১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করতে এগিয়ে যাওয়ার জন্য সিগন্যাল দিয়েছিলেন জিয়াউর রহমান। পরে তিনি সেনাপ্রধান হয়েছিলেন। এই ব্যক্তিই ১৯৭৭ সালে সশস্ত্র বাহিনীর কর্মকর্তাদের হত্যা করেন। আমি নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাই।’

বিজ্ঞাপন

আলোচিকত্র শিল্পী ফোজিত শেখ বাবুর সঞ্চালনায় অন্যদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টির সহ-সভাপতি স্বপন কুমার সাহা সহ আরও অনেকে।

সারাবাংলা/আরআইআর/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন