বিজ্ঞাপন

‘ফখরুলের বক্তব্যে পরিষ্কার হামলায় বিএনপি-জামাতের ইন্ধন ছিল’

October 16, 2021 | 8:23 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো : ধর্মান্ধ ও সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীর হামলায় বিএনপি-জামায়াতের ইন্ধন ছিল বলে অভিযোগ করেছেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বক্তব্য সবকিছু পরিষ্কার হয়েছে— এমন মন্তব্য করেছেন মন্ত্রী।

বিজ্ঞাপন

শনিবার (১৬ অক্টোবর) চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী এ সব কথা বলেন। রাঙ্গুনিয়া উপজেলা সদরে অ্যাডভোকেট নুরুচ্ছফা তালুকদার মিলনতায়নে এ সম্মেলন হয়েছে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ধর্মান্ধ ও সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠি কুমিল্লার ঘটনা ঘটিয়ে দেশকে অস্থিতিশীল করতে চেয়েছে। রাজনৈতিক ফায়দা লোটার চেষ্টা করেছে। কিন্তু তাদের সে অপচেষ্টা সফল হয়নি। সরকার কঠোর হাতে দমন করে দেশে শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রেখেছে। এ ঘটনায় বিএনপি-জামাতের ইন্ধন ছিল।’

বিজ্ঞাপন

‘বিএনপি মহাসচিবের বক্তব্য থেকে সবকিছু পরিস্কার হয়ে গেছে। ঘটনা ঘটার পর কারা মিছিল করেছে তা মানুষ দেখেছে। বিএনপি মহাসচিব বক্তব্য দিয়ে দেশের মানুষকে বোকা বানানোর চেষ্টা করছেন। কিন্তু মানুষ সব বুঝতে পারছে। তার বক্তব্য শুনে তাই মানুষ হাসাহাসি করে। হনুমানও হাসে।’

তিনি বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াত আওয়ামী লীগকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করতে ব্যর্থ হয়ে এখন ষড়যন্ত্রের পথ বেছে নিয়েছে। বিভিন্ন ঘটনা ঘটিয়ে দেশের বদনাম করার চেষ্টা করছে। বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারী কাউকে ছাড় দেওয়া হবেনা। দৃষ্টান্তমূলক বিচার করা হবে।’

বিজ্ঞাপন

ছাত্রলীগকে পড়াশোনায় মনোযোগী ও বিনয়ী হওয়ার পরামর্শ দিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘পড়াশোনা বাদ দিয়ে রাজনীতি করা যাবে না। ক্ষমতার দোহাই দিয়ে অন্যায় করা বা ক্ষমতা জাহির করা যাবে না। ক্ষমতাবানদের দায়িত্ব অনেক। তাদের সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে। উদ্ধত আচরণ মানুষ পছন্দ করেনা। ক্ষমতা দেখালে মানুষ বিরক্ত হয়।’

‘প্রধানমন্ত্রী লেখাপড়া পছন্দ করেন। তিনি অনেককে অর্থায়ন করে বিদেশ থেকে পড়ালেখা শিখিয়ে এনেছেন। তিনি ছাত্রদের হাতে বই, খাতা কলম তুলে দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী ছাত্রজীবনে ছাত্রলীগ করেছেন। ইডেন কলেজের ভিপি নির্বাচিত হয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়, এমন কাজ ছাত্রলীগ করতে পারবে না।’

বিজ্ঞাপন

উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. নুরুল আলমের সভাপতিত্বে চট্টগ্রাম উত্তর জেলার সভাপতি তানভীর হোসেন চৌধুরী তপু, সাধারণ সম্পাদক মো. রেজাউল করিম, উপজেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক শিমুল গুপ্ত এতে বক্তব্য রাখেন।

সারাবাংলা/আরডি/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন