বিজ্ঞাপন

রায়ের ১৩ মাসের মাথায় মৃত্যুদণ্ডের আসামি আ.লীগ নেতা গ্রেফতার

November 14, 2021 | 4:39 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: ২২ বছর আগে চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় ইউনিয়ন পরিষদের এক চেয়ারম্যানকে খুনের মামলায় মৃত্যুদণ্ড পাওয়া এক আসামিকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। বশির আহাম্মদ (৫৬) নামে ওই আসামি সাতকানিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি।

বিজ্ঞাপন

শনিবার (১৩ নভেম্বর) রাতে সাতকানিয়া উপজেলার সদর ইউনিয়নের দক্ষিণ রূপকানিয়া গ্রামে নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে র‌্যাবের চট্টগ্রাম জোনের প্রধান লেফটেন্যান্ট কর্নেল এম এ ইউসুফ জানিয়েছেন।

লে. কর্নেল এম এ ইউসুফ সারাবাংলাকে বলেন, ‘চেয়ারম্যান হত্যা মামলায় গত বছরের ১৩ অক্টোবর আদালত বশিরসহ ১০ জনের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছিলেন। বশির পলাতক ছিলেন। সম্প্রতি তিনি এলাকায় ফিরে আসেন। রায় ঘোষণার ১৩ মাসের মাথায় আমরা তাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি।’

বিজ্ঞাপন

১৯৯৯ সালের ৪ অক্টোবর রাত ১২টায় সাতকানিয়া থানার মির্জাখীল বাংলাবাজার এলাকার একটি চায়ের দোকানে বসে কথা বলার সময় আওয়ামী লীগ নেতা ও সাতকানিয়া উপজেলার সোনাকানিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেনকে গুলি করে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা।

এ ঘটনায় তার স্ত্রী সৈয়দা রওশন আক্তার বাদী হয়ে ২০ জনকে আসামি করে সাতকানিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা তদন্ত শেষে ২০ জনের বিরুদ্ধে ২০০০ সালের ২২ ডিসেম্বর আদালতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। এদের মধ্যে একজন আসামি বিচার চলাকালে মারা যান। ২০০৪ সালের ২৫ অক্টোবর দণ্ডবিধির ৩০২/৩৪ ধারায় আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়।

বিজ্ঞাপন

২১ বছর পর ২০২০ সালের ১৩ অক্টোবর ১০ জনকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়ে রায় ঘোষণা করেন আদালত।  দণ্ডিত ১০ জনের মধ্যে বশির আহাম্মদ ছাড়া বাকি সবাই কারাগারে আছেন।

গ্রেফতারের পর বশির আহাম্মদকে সাতকানিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে সাতকানিয়া ও বান্দরবানের লামা থানায় আরও মামলা আছে বলে র‌্যাব জানিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/আরডি/টিআর

Tags: , ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন