বিজ্ঞাপন

তামাক নিয়ে সরকার খুবই দ্বিধা-দ্বন্দ্বে: কৃষিমন্ত্রী

November 24, 2021 | 3:14 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: দেশে দিনকে দিন তামাকের চাষ বাড়ছেই। এতে কমে যাচ্ছে কৃষি জমি, উজার হচ্ছে বন। কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, তামাক নিয়ে সরকার খুবই দ্বিধা-দ্বন্দ্বের মধ্যে রয়েছে। তবে নীতিনির্ধারণী পর্যায়ে ভবিষ্যতে তামাক ফসল হিসেবে থাকবে না বলে সিদ্ধান্ত রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (২৪ নভেম্বর) সচিবালয়ে কৃষি মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে নেদারল্যান্ড ও যুক্তরাজ্য সফর পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা জানান।

তামাক চাষের ফলে কৃষিজমি উর্বরতা হারাচ্ছে ও মানুষের স্বাস্থ্যের ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। তাই তামাক চাষ বন্ধে সরকারের পরিকল্পনার বিষয়ে জানতে চাইলে কৃষিমন্ত্রী বলেন, আমরা কৃষি মন্ত্রণালয় থেকে তামাক চাষে একদম উৎসাহিত করি না। আমাদের নীতিগত সিদ্ধান্ত হলো, এটাকে নিরুৎসাহিত করা। তারপরও আমাদের এখনও কিছু মানুষ তামাক খায়।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, ইদানিং দেখা গেছে জাপানের মতো একটি দেশ, যারা নীতি ও আদর্শের প্রশ্নে মানবিক দিকগুলো নিয়ে অনেক কাজ করেন এবং নীতিতে খুবই অটল, তারা এদেশে এসে তামাক খাতে বিনিয়োগ করছেন। যেন রফতানি করা যায়। ফলে একটা ভাল আয় আসছে তামাক থেকে।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, তামাক নিয়ে সরকার খুবই দ্বিধা-দ্বন্দ্বের মধ্যে রয়েছে। তবে আমি বলি আমাদের নীতিগত সিদ্ধান্ত হচ্ছে আমরা আস্তে আস্তে তামাক থেকে বেরিয়ে আসব। একসময় তামাক এদেশের ফসল হিসেবে থাকবে না।

বিজ্ঞাপন

উল্লেখ্য, দেশের প্রায় ৩৬ জেলার ৭০ ভাগ জমিতে তামাক চাষ করা হয়।

সারাবাংলা/জেআর/এসএসএ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন