বিজ্ঞাপন

আফ্রিকা থেকে এসে নিখোঁজ ২৪০ জনকে নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ক্ষোভ

November 30, 2021 | 3:02 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন নিয়ে উদ্বেগ ছড়িয়েছে সারাবিশ্বেই। এর মধ্যেই গত এক মাসে দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে দেশে এসেছেন ২৪০ জন। তবে তাদের সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না। দেশে প্রবেশের সময় তারা ইমিগ্রেশনে ভুল নাম-ঠিকানা দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। এমনকি তাদের মোবাইল নম্বরও বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। এ নিয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন মন্ত্রী।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) দুপুরে সচিবালয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন রোধে করণীয় নির্ধারণী সভা শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি আফ্রিকা ফেরতদের নিয়ে ক্ষোভ জানান। সকাল ১১টা ৪০ মিনিটে ১৮ মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিদের নিয়ে আন্তঃমন্ত্রণালয় এ বৈঠক শুরু হয়। পরে দুপুর আড়াইটার দিকে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, ডেল্টার চেয়েও বেশি ঝুঁকিপূর্ণ করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন। এই ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণ রোধে সরকার সতর্ক অবস্থানে আছে। তবে দুঃখের বিষয়, গত এক মাসে ২৪০ জন আফ্রিকা থেকে এসেছেন, এখন তাদের খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। তাদের ফোনও বন্ধ।

বিজ্ঞাপন

আরও পড়ুন- ওমিক্রন প্রতিরোধে ভ্যাকসিনের বুস্টার ডোজ পাবেন ষাটোর্ধ্বরা

ক্ষোভ জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, এই যে লোকজন আমাদের ফাঁকি দিয়ে চলে গেল, আমরা তাদের অ্যাড্রেসই করতে পারছি না। তারা ওই দেশ থেকে এসেছে, এরপর মোবাইল ফোনটা পর্যন্ত বন্ধ করে রাখেছে। ভুল ঠিকানা দিয়েছে। এই জিনিসগুলো কী রকম!

বিজ্ঞাপন

‘এ কারণেই আমরা ওইসব দেশ থেকে আসা লোকজনের ব্যাপারে বেশি কড়াকড়ি করব। যারা আফ্রিকান দেশগুলো থেকে আসবে, তাদের ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে তো থাকবেই, আমরা ওখান থেকে আসতেই নিরুৎসাহিত করব। এলেও ১৪ দিনের কঠোর কোয়ারেন্টাইন অবশ্যই মানতে হবে। কর্তৃপক্ষকে বলব, বিদেশ থেকে যারা আসবে, তাদের যেন মনিটরিং করা হয়,’— বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুন- ওমিক্রন সতর্কতা: সীমিত হবে সামাজিক-রাজনৈতিক অনুষ্ঠান

বিজ্ঞাপন

করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতি মোকাবিলায় দেশের সক্ষমতা বেড়েছে জানিয়ে জাহিদ মালেক বলেন, সীমান্তে কঠোর কড়াকড়ি আরোপ করা হবে। সব জেলায় চিঠি দেওয়া হবে। সংক্রমণ ঠেকাতে সব ধরনের সামাজিক-রাজনৈতিক অনুষ্ঠান সীমিত করতে হবে।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসতে থাকলেও সাম্প্রতিক সময়ে উদ্বেগ ছড়িয়েছে এই ভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন (বি.১.১.৫২৯)। দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ছড়িয়ে পড়া এই ভ্যারিয়েন্ট এরই মধ্যে বেশ কয়েকটি দেশে শনাক্ত হয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এই ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে গভীর উদ্বেগ জানিয়েছে। গবেষকরা বলছেন, এটি ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের চেয়েও ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠতে পারে। এই পরিপ্রেক্ষিতেই স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এই ভ্যারিয়েন্ট রোধে নানা ধরনের সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসবি/এএম/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন