বিজ্ঞাপন

রোমাঞ্চকর ম্যাচে ডর্টমুন্ডকে হারাল বায়ার্ন

December 5, 2021 | 9:21 am

স্পোর্টস ডেস্ক

'ডার ক্ল্যাসার' বা জার্মান ক্লাসিকোতে সিগ্ন্যাল ইদুনা পার্কে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডকে ৩-২ গোলের ব্যবধানে পরাজিত করেছে বায়ার্ন মিউনিখ।

বিজ্ঞাপন

ম্যাচের শুরুতে এগিয়ে যায় বরুশিয়া কিন্তু রবার্ট লেভান্ডোফস্কির জোড়া গোলে শেষ পর্যন্ত জয়টা পায় জার্মান চ্যাম্পিয়নরাই। সিগ্ন্যাল ইদুনা পার্কের ম্যাচে রোমাঞ্চকর শুরু, এরপর আক্রমণ-প্রতি আক্রমণ, গোল-পাল্টা গোল; গতিময় ফুটবলের এক অনন্য প্রদর্শনীই দেখল ফুটবল বিশ্ব। তবে শেষ পর্যন্ত নিজেদের ভুলেই বায়ার্নের কাছে হারল বরুশিয়া।

ম্যাচের মাত্র পাঁচ মিনিটের মাথায় জুলিয়ান ব্র্যান্ডিটের দুর্দান্ত এক গোলে এগিয়ে যায় ডর্টমুন্ড। বাঁ দিক থেকে সতীর্থের বাড়ানো ক্রস ডান পায়ে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে দুইজনকে কাটিয়ে জোরালো শটে ম্যানুয়েল নয়্যারকে ফাঁকি দিয়ে বল জালে জড়ান ব্র্যান্ডিট। তবে ম্যাচে ফিরতে বায়ার্ন সময় নেয় মাত্র চার মিনিট। ডর্টমুন্ডের খেলোয়াড়দের অসর্তকতায় বল পেয়ে যান থমাস মুলার। আর বল পেয়েই তা পাঠিয়ে দেন রবার্ট লেভান্ডোফস্কির দিকে আর বল ধরেই কাছের পোস্ট ধরে জালে পাঠান।

বিজ্ঞাপন

বল দখলের পাশাপাশি প্রথমার্ধে আক্রমণে এগিয়ে থাকা বায়ার্ন ৪৪তম মিনিটে লিড নেয়। এই গোলেও দায় আছে স্বাগতিক রক্ষণের। দলকে বিপদমুক্ত করতে গিয়ে ডিফেন্ডার মানুয়েল আকানজির নেওয়া শট তার সতীর্থের পায়ে লেগে চলে যায় কিংসলে কোম্যানের পায়ে। ডান পায়ের জোরালো শটে গোলটি করেন ফরাসি এই ফরোয়ার্ড। এতেই প্রথমার্ধ শেষ হয় বায়ার্নের ২-১ গোলে এগিয়ে থাকা দিয়ে।

রোমাঞ্চকর ম্যাচে ডর্টমুন্ডকে হারাল বায়ার্ন

বিজ্ঞাপন

দ্বিতীয়ার্ধে তৃতীয় মিনিটে বড় ভুল করে বসেন বায়ার্নের ডিফেন্ডার উপামেকানো। ডি-বক্সে তিনি বুক দিয়ে বল নিয়ন্ত্রণে নিতে গিয়ে উল্টো জুড বেলিংহ্যামের পায়ে তুলে দেন। তার পাস ধরে উঁচু কোনাকুনি দূরের পোস্ট দিয়ে স্কোরলাইন ২-২ করেন এর্লিং হালান্ড। আসরে নরওয়ের তরুণ এই ফরোয়ার্ডের গোল হলো মাত্র ৮ ম্যাচ খেলে ১১টি।

এরপর বল দখলে রেখে প্রচন্ড ক্ষীপ্রতা নিয়ে আক্রমণ করতে থাকে বায়ার্ন। অবশেষে মেলে ফলও। পাল্টা আক্রমণে ডর্টমুন্ডের ডি-বক্সে হামেলসের হাতে বল লাগলে ভিএআরের সাহায্যে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। সফল স্পট কিকে দলকে আবারও এগিয়ে নেন লেভান্ডোফস্কি। আসরে সর্বোচ্চ গোলদাতা লেভানদোভস্কির এটি ১৬তম গোল। এরই সঙ্গে জার্মানির শীর্ষ লিগের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি অ্যাওয়ে ম্যাচে গোলের রেকর্ডটি নিজের করে নিলেন পোলিশ তারকা, ১১৮টি। ১১৭ গোল নিয়ে রেকর্ডটি এতদিন ছিল সাবেক জার্মান ফরোয়ার্ড ক্লাউস ফিশারের।

বিজ্ঞাপন

শেষ পর্যন্ত ওই ৩-২ গোলের ব্যবধানে ডার ক্ল্যাসার জিতে মিউনিখে ফেরে বায়ার্ন।

বুন্দেস লিগায় এখন পর্যন্ত ১৪ ম্যাচে ১১ জয় ও এক ড্রয়ে ৩৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে বায়ার্ন। ১০ জয়ে ৪ পয়েন্ট কম নিয়ে দুইয়ে বরুশিয়া ডর্টমুন্ড।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন