বিজ্ঞাপন

না.গঞ্জে গ্যাস লিকেজ: আগুনে দগ্ধ ৪ জনের এক জন মারা গেছেন

December 7, 2021 | 12:17 am

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে একটি বাসায় গ্যাস লিকেজ থেকে আগুনে দগ্ধ চার জনের মধ্যে এক জন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। আগুনে দগ্ধ চার জনই একই পরিবারের সদস্য। তাদের মধ্যে দুইটি শিশুও রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সোমবার (৬ ডিসেম্বর) রাত ১০টার দিকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন আড়াইহাজারে দগ্ধ সোলায়মান (৪৪)। ইনস্টিটিউটের জরুরি বিভাগের আবাসিক সার্জন ডা. এস এম আইউব হোসেন তার মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সোমবার ভোর ৬টার দিকে আড়াইহাজার উপজেলার কুমারপাড়া গ্রামের ওই বাসায় আগুন লাগে। এতে সোলায়মান ছাড়াও দগ্ধ হন তার স্ত্রী রীমা আক্তার (৩০) এবং দুই সন্তান মুশফিকুর রহমান মাহিদ (১৩) ও মাহমুদুল হাসান আরশ (৫)।

বিজ্ঞাপন

আরও পড়ুন- গ্যাস লিকেজ থেকে আগুন, ২ শিশুসহ দগ্ধ ৪

ডা. আইউব জানান, আড়াইহাজারে একই পরিবারের যে চার জন দগ্ধ হয়েছিলেন, তাদের মধ্যে সোলায়মান নামে একজন মারা গেছেন। তার শরীরের ৯৫ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল। বাকি তিন জন চিকিৎসাধীন রয়েছে। এদের মধ্যে রিমা আক্তারের শরীরের ১৫ শতাংশ, মাহিদের শরীরের ১৬ শতাংশ ও আরশের শরীরের ৫ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

আড়াইহাজার কুমারপাড়া নিজেদের একতলা বাড়িতে পরিবার নিয়ে থাকতেন সোলায়মান। তিনি কাপড়ের ব্যবসা করতেন। রিমা গৃহিণী। ছেলে মাহিদ একটি স্কুলে ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী। আরশ এখনো স্কুলে ভর্তি হয়নি।

দগ্ধ রিমা আক্তার জানান, ভোরে তার স্বামী সোলায়মানের ব্যবসার কাজে বাইরে যাওয়ার কথা ছিল। ঘুম থেকে উঠে গোসলের পানি গরম করতে তিনি রান্না ঘরে যান। দিয়াশলাই দিয়ে চুলায় আগুন জ্বালাতেই বিস্ফোরণের বিকট শব্দের পর সারাঘরে আগুন লেগে যায়।

বিজ্ঞাপন

দগ্ধ মাহিদের চাচী হাওয়া বেগম জানান, তারাও একই বাড়িতে থাকেন। ভোরে বিকট বিস্ফোরণ ও চিৎকারের শব্দে তাদের ঘুম ভেঙে যায়। মাহিদের ঘরে গিয়ে দেখি ওরা চার জন দগ্ধ হয়ে পড়ে আছে। পরে দ্রুত তাদের বার্ন ইনস্টিটিউটে নিয়ে আসি।

সারাবাংলা/এসএসআর/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন