বিজ্ঞাপন

মুরাদের আ.লীগের সদস্যপদ নিয়ে সিদ্ধান্ত কার্যনির্বাহী বৈঠকে

December 7, 2021 | 5:50 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে প্রতিমন্ত্রীর পদ থেকে ‘স্বেচ্ছায়’ অব্যাহতি নিয়েছেন ডা. মুরাদ হাসান। জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগও তাকে জেলা কমিটির পদ থেকে অব্যাহতি দিয়েছে। এবার প্রশ্ন উঠেছে— মুরাদ হাসানকে কি আওয়ামী লীগের প্রাথমিক সদস্যপদও হারাতে হবে?

বিজ্ঞাপন

দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলছেন, এ বিষয়ে এককভাবে সিদ্ধান্ত নেওয়ার এখতিয়ার কারও নেই। দলের পরবর্তী কার্যনির্বাহী পরিষদের বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে সিদ্ধান্ত হবে।

মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) সচিবালয়ে ঢাকা সফররত ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

আরও পড়ুন- জেলা কমিটি থেকেও অব্যাহতি মুরাদকে

ডা. মুরাদ হাসানকে আওয়ামী লীগের প্রাথমিক সদস্যপদ থেকে বহিষ্কার করা হবে কি না— এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, এ বিষয়ে আমরা কেন্দ্রীয়ভাবে সিদ্ধান্ত নেব। গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র ও জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদককে (জাহাঙ্গীর আলম) নিয়ে আমরা যেভাবে সিদ্ধান্ত নিয়েছি, তার ক্ষেত্রেও একইভাবে সিদ্ধান্ত হবে।

বিজ্ঞাপন

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠক ছাড়া এ ধরনের সিদ্ধান্ত নেওয়ার সুযোগ নেই। তাই কার্যনির্বাহী কমিটির পরবর্তী বৈঠকে তার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেব।

আরও পড়ুন- মুরাদ হাসানের পদত্যাগপত্র মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে

বিজ্ঞাপন

এর আগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে কটূক্তি করে বিতর্কিত হন গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র পদ থেকে বরখাস্ত হওয়া জাহাঙ্গীর আলম। গত গত ১৯ নভেম্বর আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে তাকে আওয়ামী লীগ থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত হয়। দলের কার্যনির্বাহী কমিটির পরবর্তী বৈঠক কবে হতে পারে— এমন প্রশ্নের অবশ্য কোনো উত্তর দেননি ওবায়দুল কাদের।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, দল থেকে বহিষ্কারের বিষয়ে কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকের জন্য অপেক্ষা করতে হলেও ডা. মুরাদ হাসানকে জেলা আওয়ামী লীগের কমিটি থেকে অব্যাহতির সিদ্ধান্ত আজই (মঙ্গলবার) আসছে। এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে জেলা আওয়ামী লীগ জরুরি বৈঠক ডেকেছে।

বিজ্ঞাপন

আরও পড়ুন- মুরাদের পদত্যাগপত্রেও বড় ভুল

এ প্রতিবেদন লেখার সময়ই অবশ্য জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগ কমিটি জরুরি সভা শেষে জানিয়েছে, ডা. মুরাদ হাসানকে কমিটি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। কমিটিতে তিনি স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্বে ছিলেন।

তথ্য প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব থেকে পদত্যাগ করা ডা. মুরাদ হাসানের সংসদ সদস্যপদ নিয়েও প্রশ্ন উঠছে। এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিষয়টি নিয়ে স্পিকার সিদ্ধান্ত নেবেন। আপাতত এখন প্রতিমন্ত্রীকে তার পদ থেকে সরে যেতে হয়েছে। দলের জেলা কমিটির পদ থেকেও তিনি অব্যাহতি পাচ্ছেন। এখন তার বিষয়ে গুরুতর কোনো অভিযোগ এলে স্পিকার সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।

ফাইল ছবি

সারাবাংলা/জেআর/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন