বিজ্ঞাপন

ইন্টারকে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন রিয়াল

December 8, 2021 | 3:56 am

স্পোর্টস ডেস্ক

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ১৬ নিশ্চিত ছিল আগেই। তবে বাকি ছিল গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন নির্বাচন। সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ইন্টার মিলানের সঙ্গে ড্র করলেও চলত কিন্তু টনি ক্রুস এবং মার্কো অ্যাসেন্সিও দুর্দান্ত গোলে ২-০ ব্যবধানের জয়ে গ্রুপ সেরা হয়েই পরের পর্বে রিয়াল মাদ্রিদ। আর লস ব্ল্যাঙ্কোসদের কাছে হেরেও তাদের সঙ্গী হয়ে পরের পর্বে ইন্টার মিলান।

বিজ্ঞাপন

চোটে পড়ে দলের সেরা খেলোয়াড় করিম বেনজেমার খেলা অনিশ্চিত ছিল আগেই। তার জায়গায় লুকা জোভিচকে একাদশে জায়গা দেন কার্লো আনচেলোত্তি। এছাড়া অপরিবর্তিত ছিল রিয়ালের একাদশ।

একাদশে এক পরিবর্তন এলেও খেলার ধরনে ছিল কোনো পরিবর্তন। ম্যাচের শুরু থেকেই ইন্টারের উপর চড়াও হয়ে খেলতে থাকে রিয়াল। একের পর এক আক্রমণে ইন্টারের রক্ষণকে দম ফেলার সময় দিচ্ছিলেন না ভিনিসিয়াস, জোভিচ, রদ্রিগোরা। গোল পেতে অপেক্ষা করতে হয় ম্যাচের ১৭ মিনিট পর্যন্ত।

বিজ্ঞাপন

ডি-বক্সের ঠিক সামনে থেকে বাঁ-দিকে টনি ক্রুসের দিকে বল বাড়ান রদ্রিগো। বল নিয়ে কয়েক পা এগিয়ে বাঁ-দিকের ডি-বক্সের কোনা থেকে বাঁ পায়ের দূরপাল্লার শটে বল জালে জড়ান টনি ক্রুস। হতভম্ভ হয়ে দাঁড়িয়ে থাকা ছাড়া আর কিছুই করতে পারেননি ইন্টার গোলরক্ষক হ্যান্ডানোভিচ। ঘরের মাঠে রিয়াল এগিয়ে ১-০ ব্যবধানে।

ইন্টারকে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন রিয়াল

বিজ্ঞাপন

খেলার সময় আধা ঘণ্টা পেরোতেই কার্ভাহালের দারুণ এক পাস ডি-বক্সে পেয়ে যান জোভিচ কিন্তু তার শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে ব্যবধান বাড়েনি রিয়ালের। প্রথমার্ধের শেষ দিকে এসে ক্রুসের থ্রু বল ডি-বক্সে খুঁজে নেয় রদ্রিগোকে। বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে দারুণ এক শটও করেছিলেন তিনি কিন্তু জালে জড়ানোর আগে তা গোলপোস্টে লেগে ফিরে আসলে হতাশ হন রদ্রিগো। আর ১-০ গোলে এগিয়ে থেকেই যেতে হয় বিরতিতে।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই দারুণ কিছু সুযোগ তৈরি করে ইন্টার কিন্তু শেষটা টানতে পারছিল না কিছুতেই। ১-০ গোলে পিছিয়ে থাকা ইন্টারের মড়ার ওপর খাঁড়ার ঘা হিসেবে ৬৪ মিনিটে নিকোলো বারেল্লা লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন। বল দখলের লড়াইয়ে রিয়াল ডিফেন্ডার এডার মিলিতাও কাঁধ দিয়ে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেন বারেল্লাকে, পড়ে গিয়ে মিলিতাওয়ের পায়ের পেছনের অংশে ঘুষি দেন বারেল্লা। এতে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে দুই পক্ষের খেলোয়াড়দের মধ্যে, তেড়ে যান মিলিতাও কিন্তু তাকে রুখে দেন সতীর্থরা। এরপর রেফারি মিলিতাওকে হলুদ কার্ড দেখিয়ে সতর্ক করেন আর সরাসরি লাল কার্ড দেখিয়ে দেন বারেল্লাকে।

বিজ্ঞাপন

ইন্টারকে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন রিয়াল

ম্যাচের বাকি থাকা প্রায় আধা ঘণ্টা ১০ জনের দল নিয়ে খেলতে হয় ইন্টারকে। এরপর ৭৮ মিনিটের মাথায় তিন খেলোয়াড় পরিবর্তন করেন কার্লো আনচেলোত্তি। রদ্রিগোর বদলি হিসেবে মাঠে নামেন মার্কো অ্যাসেন্সিও। আর মাঠে নামার মাত্র এক মিনিটের মাথায় অবিশ্বাস্য এক গোল করে দলকে ২-০ ব্যবধানের লিড এনে দেন। ডান পাশে কার্ভাহালের কাছ থেকে পাওয়া পাস ডি-বক্স থেকে খানিকটা দূর থেকে শট করেন গোল বরাবর। ইন্টার গোলরক্ষক আর দুই ডিফেন্ডার তখনও গোল লাইনেই ছিলেন। কিন্তু তারা বুঝতেই পারেননি অ্যাসেন্সিওর শট জালে জড়াবে। কিন্তু তাদের বোকা বানিয়ে বল গোলবারে লেগে গোললাইন পার হয়ে ড্রপ করে। এতেই ২-০'তে এগিয়ে যায় রিয়াল।

বিজ্ঞাপন

শেষ পর্যন্ত আরও কিছু গোলের সুযোগ তৈরি করলেও আর গোলের দেখা পায়নি দুই দলের কেউই। এতেই জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে লস ব্ল্যাঙ্কোসরা। এতেই গ্রুপ ডি থেকে ৫ জয় আর এক হারে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে থেকেই শেষ ১৬তে রিয়াল। তিন জয় এক ড্র আর দুই হারে ১০ পয়েন্ট নিয়ে রানারআপ হয়ে শেষ ১৬'তে ইন্টার মিলান। এছাড়া রিয়ালকে হারিয়ে দেওয়া এফসি শেরিফ দুই জয় এক ড্র আর তিন হারে ৭ পয়েন্ট নিয়ে খেলবে ইউরোপা। আর শাখতার দোনেৎস্ক দুই ড্র আর চার হারে ২ পয়েন্ট নিয়ে তলানিতে থেকে শেষ করল এবারের চ্যাম্পিয়নস লিগের যাত্রা।

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন