বিজ্ঞাপন

ঢাবির হল কমিটি নিয়ে ছাত্রলীগের শীর্ষ নেতাদের বৈঠক কাল

January 13, 2022 | 4:42 pm

ঢাবি করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: পাঁচ বছর আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোতে সর্বশেষ কমিটি গঠন করে ছাত্রলীগ। এর পর দীর্ঘদিন পেরিয়ে গেলেও কমিটি গঠন হয়নি। অবশেষে আটকে থাকা হল কমিটি দেওয়া নিয়ে শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) বৈঠকে বসছেন কেন্দ্রীয় ও ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের শীর্ষ চার নেতা। সেখানে হল কমিটিসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হতে পারে বলে বিশ্বস্ত সূত্র জানিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

জানা গেছে, বুধবার (১৩ জানুয়ারি) দিবাগত রাত ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের হল কমিটি নিয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের সঙ্গে কথা বলতে রাজধানীর ইস্কাটন গার্ডেনে লেখক ভট্টাচার্য‌ের বাসার সামনে যান বিভিন্ন হলের পদপ্রত্যাশী নেতারা। পরে ছাত্রলীগের শীর্ষ দুই নেতা তাদের নিয়ে টিএসসিসিতে এলে প্রায় ঘণ্টা দুয়েক তাদের সঙ্গে তর্কবিতর্ক হয়।

সেখানে উপস্থিত একটি হলের শীর্ষ পদপ্রত্যাশী ছাত্রলীগ নেতা সারাবাংলাকে বলেন, ‘এক পর্যায়ে জয়-লেখক তাদের আশ্বাস দিয়ে বলেন, আগামীকাল (১৪ জানুয়ারি) ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের শীর্ষ দুই নেতা সনজিত চন্দ্র দাস ও সাদ্দাম হোসেনের সঙ্গে বৈঠক করে চলতি মাসের মধ্যেই কমিটি করে দেবেন।’

বিজ্ঞাপন

পাঁচ বছরেরও বেশি সময় আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোতে সর্বশেষ কমিটি গঠন করতে পেরেছিল ছাত্রলীগ। এর পর ২০১৮ সালের ৩১ জুলাই কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি হিসেবে রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে গোলাম রাব্বানীকে পদায়ন করা হয়। একই দিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি হিসেবে সনজিত চন্দ্র দাস এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে সাদ্দাম হোসেনের নাম ঘোষণা করা হয়।

কিন্তু কিছুদিন পর চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অভিযোগে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের শীর্ষ দুই নেতা রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও গোলাম রাব্বানীকে পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়। তাদের জায়গায় দায়িত্বে আসেন কমিটির এক নম্বর সহ-সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় এবং এক নম্বর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য। তবে কেন্দ্রীয় দুই নেতার রদবদল হলেও ঢাবির হল কমিটি দিতে পারেনি তারা। পক্ষান্তরে সময়ে সময়ে কাদা ছোড়াছুঁড়ি চলেছে। কখনো কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের শীর্ষ দুই নেতার অসহযোগিতা, কখনো বা ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের অসহযোগিতা— এমন সব পাল্টাপাল্টি অভিযোগেই বয়ে গেছে সময়।

বিজ্ঞাপন

সর্বশেষ গত দুই মাসে হলগুলোর কমিটি গঠনের জন্য দুই দফায় সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ করা হলেও শেষ পর্যন্ত তা আর হয়নি। গত ডিসেম্বরে হল সম্মেলন হওয়ার কথা থাকলেও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতাদের একটি অংশ এবং আসন্ন হল কমিটিতে শীর্ষ পদপ্রার্থীদের একাংশের অভিযোগ— কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের দুই শীর্ষ নেতার অসহযোগিতার কারণে শেষ পর্যন্ত হল সম্মেলন হয়নি।

এদিকে, হল কমিটি নিয়ে জয়-লেখকের অসহযোগিতার অভিযোগটি আরও স্পষ্ট হয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাসের একটি মন্তব্যে। সাম্প্রতিক এক স্ট্যাটাসের মন্তব্যে তিনি লেখেন, ‘চলতি মাসে (জানুয়ারি) হল কমিটি না দিলে তিনি নিজেও আন্দোলনে নামবেন।’

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/আরআইআর/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন