বিজ্ঞাপন

চলতি বছরেই চট্টগ্রামে হাইকোর্টের বেঞ্চ, আশা জাগালেন আইনমন্ত্রী

January 15, 2022 | 6:12 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো : চলতি বছরের মধ্যেই চট্টগ্রামে হাইকোর্টের একটি সার্কিট বেঞ্চ স্থাপনের বিষয়টি প্রধান বিচারপতি সদয় বিবেচনায় নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক।

বিজ্ঞাপন

শনিবার (১৫ জানুয়ারি) দুপুরে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির ‘আইনজীবী মিলনমেলা-২০২১’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী একথা জানান। অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে বক্তব্য রাখেন আইনমন্ত্রী।

আইনজীবীদের উদ্দেশে মন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, ‘আমি আপনাদের একটা সুখবর দিতে চাই। সেটি হচ্ছে নতুন প্রধান বিচারপতি যিনি হয়েছেন, আমি তার সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি সার্কিট বেঞ্চ স্থাপনের বিষয়টি সদয় বিবেচনায় নিয়েছেন। আমার মনে হয়, এই বছর শেষ হওয়ার আগেই আমরা চট্টগ্রামে একটা সার্কিট বেঞ্চ পেতে যাচ্ছি। সার্কিট বেঞ্চ হবে, সে বিষয়ে আপনারা আমার ওপর আস্থা রাখতে পারেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীও এটা চান। এ ব্যাপারে কিছুদিনের মধ্যেই হয়ত আমরা একটা ঘোষণা দেব।’

বিজ্ঞাপন

মন্ত্রী আরও বলেন, ‘সরকার দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় বদ্ধপরিকরই শুধু নয়, এক্ষেত্রে যা যা করার তাই করা হবে। দেশে যত গণতান্ত্রিক আন্দোলন হয়েছে, সেখানে আইনজীবীরা মুখ্য ভূমিকা পালন করেছেন। জাতি এটি কখনোই ভুলবে না।’

উল্লেখ্য সাবেক সামরিক শাসক হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের শাসনামলে ১৯৮২ সালের ১১ মে চট্টগ্রামে হাইকোর্টের স্থায়ী বেঞ্চ প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৮৬ সালের ১৭ জুন সামরিক ফরমান বলে স্থায়ী বেঞ্চগুলোকে সার্কিট (অস্থায়ী) বেঞ্চের মর্যাদা দেওয়া হয়। সংবিধান পুনরুজ্জীবীত হবার পর অষ্টম সংশোধনীর ২ (ক) অনুচ্ছেদবলে চট্টগ্রামসহ দেশের ৬টি সার্কিট বেঞ্চ আবারও স্থায়ী বেঞ্চের মর্যাদা লাভ করে।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু ১৯৮৯ সালের ২ সেপ্টেম্বর সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের সংখ্যাগরিষ্ঠ সিদ্ধান্তে অষ্টম সংশোধনীর ২ (ক) অনুচ্ছেদ বাতিল হয়। এর ফলে হাইকোর্টের বেঞ্চগুলো ঢাকায় ফিরিয়ে নেওয়া হয়।

২০১০ সালের ৮ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রামে আইনজীবী ও সুধীজনদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রামে হাইকোর্টের একটি সার্কিট বেঞ্চ স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন।

বিজ্ঞাপন

এদিকে শনিবারের অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল আদালত পাড়ায় ব্যাপক জনসমাগমের কথা উল্লেখ করে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার অনুরোধ করেন।

চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ‍মুহাম্মদ এনামুল হকের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক এ এইচ এম জিয়াউদ্দিনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন, আইন সচিব মো. গোলাম সারওয়ার, চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমান, চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. রবিউল আলম এবং সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন