বিজ্ঞাপন

ইভিএমে ভোট দিতে পেরে খুশি তৃতীয় লিঙ্গের পায়েল

January 16, 2022 | 1:11 pm

গোলাম সামদানী, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

নারায়ণগঞ্জ থেকে: ছবি তুলে, কথা বলে কী লাভ! আমরা তো কিছুই পাই না। কেউ আমাদের খবরও রাখে না। এখন সবাই ভোট কেন্দ্রে ছবি তুলতে ব্যস্ত! এটা ভালো লাগে না।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, ‘প্রথমবারের মতো আমি ইভিএমে ভোট দিতে পারছি, এতেই আমি খুশি।’

রোববার (১৬ জানুয়ারি) সকাল সোয়া ১১ টায় নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে নগরীর বেপারিপাড়া এলাকার শিশুবাগ বিদ্যালয়ে ভোট দিয়ে ফেরার পথে স্কুল মাঠে সাংবাদিকদের এ সব কথা বলেন তৃতীয় লিঙ্গের পায়েল।

বিজ্ঞাপন

কাকে ভোট দিয়েছেন জানতে চাইলে কিছুটা বিরক্ত হয়ে তিনি বলেন, ‘আমি এটা কেন বলব? যাকে পছন্দ তাকেই ভোট দিয়েছি।’

পায়েল বলেন, ‘আমার প্রত্যাশা হলো যেই পাস করুক তারা যেন আমাদের দিকে খেয়াল রাখে। আমরা যেন সমাজে অন্য দশটা মানুষের মতো সমান মর্যাদা নিয়ে বাঁচতে পারি।’

বিজ্ঞাপন

নগরীর ১৩২/৪ পশ্চিম দেওভোগ নারায়ণগঞ্জ এলাকার বাসিন্দা পায়েল। তার বাবার নাম আব্দুল কাদের ও মা আমেনা বেগম। ১৯৮২ সালের ১৭ ডিসেম্বর জন্ম নেওয়া পায়েল ২০১৭ সালের ১৮ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জ সিটির ভোটার হন।

এবার নাসিক নির্বাচনে ৫ লাখ ৬১ হাজার ৩৬১ ভোটারের মধ্যে মাত্র চারজন তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার রয়েছেন। তাদের একজন পায়েল। পায়েলের ভোটার নম্বর ১৬৫১।

বিজ্ঞাপন

পায়েল বলেন, ‘মেয়র নির্বাচনে ভোট দিতে পেরে খুব ভালো লাগছে। কোনো ঝামেলা হয়নি। সবাই যেন শেষ পর্যন্ত এমন পরিবেশে ভোট দিতে পারে।’

তিনি বলেন, ‘আমি এর আগেও ভোট দিয়েছি তবে এবার প্রথম ইভিএমে ভোট দিতে পেরে ভালো লাগছে।’

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/জিএস/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন