বিজ্ঞাপন

ভিসি ফরিদের আত্মসম্মান থাকলে সরে দাঁড়াতেন— পদত্যাগ দাবি সংসদে

January 23, 2022 | 6:35 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: জাতীয় সংসদে সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) ভাইস চ্যান্সেলরকে (ভিসি) আজকের মধ্যে সরিয়ে দেওয়ার দাবি করেছে বিরোধীদলীয় সংসদ সদস্যরা। তারা বলেছেন— আত্মসম্মানবোধ থাকলে ভিসি ফরিদ উদ্দিন আহমেদ সরে দাঁড়াতেন। কিন্তু তা না করে তিনি জোর করে বসে আছেন।

বিজ্ঞাপন

রোববার (২৩ জানুয়ারি) জাতীয় সংসদের অধিবেশনে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে বিরোধী দল জাতীয় পার্টির ঢাকা-৬ আসনের সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ ও সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য পীর ফজলুর রহমান এ দাবি করেন। তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনিকে এই বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানান। এ সময় প্রধান মন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রী অধিবেশনে উপস্থিত ছিলেন।

কাজী ফিরোজ রশীদ ছাত্রজীবনে আন্দোলনের প্রসঙ্গ টেনে বলেন, ‘গত কয়েকদিন ধরে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ভাইস চ্যান্সেলরের বিরুদ্ধে, হাউজ টিউটরের (প্রোভোস্ট) বিরুদ্ধে আন্দোলন করে যাচ্ছেন। তারা ১১ দিন ধরে অনশনে আছেন, ১৬ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে, এতে কারও টনক নড়ছে না। ভাইস-চ্যান্সেলর কোনও স্থায়ী পদ নয় যে তিনি চলে গেলে ওই বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ হয়ে যাবে? একজন ভাইস চ্যান্সেলরকে সরাতে গিয়ে ছাত্ররা যদি অনশন করে এরচেয়ে দুঃখজনক কিছু নেই।’

বিজ্ঞাপন

ফিরোজ রশীদ বলেন, ‘বুঝতে হবে ভাইস চ্যান্সেলরের উপরে ছাত্রদের কোনো আস্থা নেই, বিশ্বাস নেই। তার প্রতি কোনো ভালোবাসা নেই, শ্রদ্ধাবোধ নেই এবং থাকা উচিত না। ওনার যদি বিন্দুমাত্র আত্মসম্মানবোধ থাকত উনি অবশ্যই এখান থেকে সরে আসতেন। উনি জোর করে বসে আছেন পুলিশ ঘেরাও করে।’

তিনি ঘটনার প্রসঙ্গ টেনে বলেন, ‘ছাত্ররা গিয়েছিলেন হাউজ টিউটরের সঙ্গে দেখা করতে পারেনি। ছাত্রদের সঙ্গে খুব খারাপ আচরণ করেছেন হাউজ টিউটর। সেখান থেকেই ঘটনার উৎপত্তি। আন্দোলন করার পরই পুলিশ ডেকে আনল। এটি কি আইয়ুব, মোনায়েম খানের আমল নাকি যে, কথায় কথায় পুলিশ আনবেন? লাঠিপেটা করল, কাঁদানে গ্যাস মারল, আমরা দেখলাম। কেন এটির উৎপত্তি হলো, কোনো ছাত্র আন্দোলনকে ছোট করে দেখা উচিত না।’

বিজ্ঞাপন

পীর ফজলুর রহমান বলেন, ‘শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে লাগাতার আন্দোলন চলছে। শিক্ষার্থীরা ভিসির সঙ্গে আলাপ করতে গেলে গ্রেনেড হামলা, লাঠিপেটা করা হয়েছে। ছাত্রদের ওপর আক্রমণ করার কারণেই ভিসির পদত্যাগের দাবিতে তারা আন্দোলন শুরু করে।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের অভিভাবক হিসেবে ভিসি কোনও আলোচনা না করার কারণে শিক্ষার্থীরা আমরণ অনশনে গিয়েছে। যে প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ভিসিকে চায় না। কিন্তু লখিন্দরের বাসার মতো সুরক্ষা নিয়ে নিজের বাসায় বসে আছেন। তিনি পদত্যাগ করবেন না। স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করতে না চাইলে সরকারের উচিত আজকের মধ্যে তাকে অব্যাহতি দেওয়া।

বিজ্ঞাপন

আরও পড়ুন
শাবিপ্রবিতে হামলার প্রকাশ্যে ব্যাখ্যা চায় শিক্ষকদের একাংশ
শাবিপ্রবি— মামলা প্রত্যাহারে রাত ১০টা পর্যন্ত আল্টিমেটাম
‘শাবিপ্রবির ভিসির পদত্যাগ দাবি নীতি বর্হিভূত’
২৪ জনের সঙ্গে গণঅনশনে শাবিপ্রবি’র অন্যরাও
কাফন পরে শাবিপ্রবির শিক্ষার্থীদের মৌন মিছিল
শাবিপ্রবি: অনশনরত ১৩ শিক্ষার্থী হাসপাতালে
শাবিপ্রবি: গভীর রাতের মশাল মিছিলে হাজারো শিক্ষার্থী
শাবিপ্রবির ভিসি না সরালে সরকার পতন— হুঁশিয়ারি ছাত্রদলের
তদন্ত করে সরকার যে সিদ্ধান্ত দেবে, মেনে নেব: শাবিপ্রবি উপাচার্য
শাবিপ্রবি উপাচার্য স্বেচ্ছায় পদত্যাগ না করলে আমরণ অনশন

সারাবাংলা/এএইচএইচ/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন