বিজ্ঞাপন

‘ভ্যাকসিনে খরচ ২০ হাজার কোটির বেশি’

February 7, 2022 | 2:59 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: চলতি বছরের ডিসেম্বর নাগাদ বুস্টার ডোজসহ সবার করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন প্রয়োগ সম্পন্ন হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক।

বিজ্ঞাপন

সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারি) মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

মন্ত্রী বলেন, ১৪ কোটি মানুষকে ভ্যাকসিন দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে, দেশের ৭০ শতাংশ লোকের ভ্যাকসিন দেওয়া সম্পন্ন হয়েছে। 'টার্গেটেড পিপলের' ৮২ শতাংশের ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। ভ্যাকসিনের জন্য এখন পর্যন্ত ২০ হাজার কোটি টাকার বেশি খরচ হয়েছে বলেও তিনি জানান।

বিজ্ঞাপন

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ভ্যাকসিন কার্যক্রম সফলভাবে চলছে। করোনা ভ্যাকসিনের ১০ কোটি প্রথম ডোজ, প্রায় সাত কোটি দ্বিতীয় ডোজ এবং শিক্ষার্থীদের দেড় কোটির মতো ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। এখন পর্যন্ত সাড়ে ২৭ কোটি ভ্যাকসিন পাওয়া গেছে, এর মধ্যে ১০ কোটির মতো ভ্যাকসিন হাতে রয়েছে। শতভাগ ভ্যাকসিন দিতে না পারলে কিছু ভ্যাকসিন রয়ে যেতে পারে। সেগুলো কী করা হবে, সে ব্যাপারে পরে সিদ্ধান্ত হবে।

তিনি বলেন, হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা এখন আড়াই হাজারের মতো। ঢাকা বিভাগে দেড় হাজারের মতো। ভ্যাকসিন নেওয়ার কারণে মৃত্যুহার সেভাবে বাড়েনি।

বিজ্ঞাপন

তিনি আরও বলেন, মানুষ ইউরোপ বা অন্য অনেক দেশের মতো ভ্যাকসিন না নেওয়ার দাবিতে রাস্তায় নামেনি। তবে ভ্যাকসিন মৃত্যুঝুঁকি কমায়, সংক্রমণ নয়। তাই মাস্ক পরতে হবে, স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। সবাইকে ভ্যাকসিন নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, দেশে দেড় থেকে পৌনে দুই কোটি মানুষ এখনও ভ্যাকসিন নেননি।

সারাবাংলা/জিএস/একেএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন