বিজ্ঞাপন

মৃত্যুঞ্জয় ম্যাজিকে আশা বাঁচিয়ে রাখল চট্টগ্রাম

February 8, 2022 | 4:26 pm

স্পোর্টস ডেস্ক

শেষ ১১ বলে দরকার মাত্র ১৪ রান। তখনও উইকেটে দুই সেট ব্যাটার তামিম ইকবাল এবং শুভাগত হোম। শরিফুলের করা ১৯তম ওভারের দ্বিতীয় বলে বোল্ড হয়ে ফিরলেন শুভাগত। এরপরও ১০ বলে ঢাকার দরকার ১৪ রানের। পরের চার বল থেকে ৫ রান তুলে নেওয়া ঢাকার শেষ ৬ বলে দরকার মাত্র ৯ রানের। বল হাতে এলেন ডেথ ওভারে এবারের বিপিএলে দুর্দান্ত পারফর্ম করা পেসার মৃত্যুঞ্জয়। শেষ পর্যন্ত ঢাকাকে নিতে দেননি ৯ রান। শেষ ওভারে মাত্র পাঁচ রান দিয়ে দিয়ে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সকে এনে দিয়েছেন ৩ রানের দুর্দান্ত এক জয়।

বিজ্ঞাপন

শেষ ওভারের প্রথম বলেই তুলে নিলেন কায়েসকে। পরের দুই বলে কোনো রানই নিতে পারলেন না সদ্যই উইকেটে আসা নাঈম শেখ। চতুর্থ বল ওয়াইড, পঞ্চম বলে এক রান নিয়ে স্ট্রাইক দিলেন তামিমকে। পঞ্চম বলে তামিমকে ইয়োর্কার দিলেন, সেখান থেকে এলো একটি রান। ষষ্ঠ বলটি হাই ফুলটস দেওয়া আম্পায়ার নো বলের সংকেত দিলেন। শেষ বলে তখন ঢাকার দরকার ৫ রান। শেষ বলটিও দিলেন লো ফুলটস কিন্তু সেখান থেকেও সুবিধা আদায় করে নিতে পারেননি নাইম শেখ। মৃত্যুঞ্জয়ের বলটি অন সাইডে স্ট্রেইট ড্রাইভ করে কেবল একটি রানই নিতে পেরেছেন নাঈম শেখ। এতেই শেষ ওভারে ৯ রান নিতে ব্যর্থ ঢাকা হারে ৩ রানে।

মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকার বিপক্ষে এই ম্যাচে হারলে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) থেকে বিদায় অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে যেত চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের। তবে এই ম্যাচে জিতে বিপিএলের এলিমিনেটর-কোয়ালিফায়ার রাউন্ডের আশা বাঁচিয়ে রাখলো চট্টগ্রাম।

বিজ্ঞাপন

১৪৯ রানের জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকা। তৃতীয় ওভারে এসে মোহাম্মদ শাহজাদ (৭) ফেরেন দলীয় ১০ রানের মাথায়। এক ওভার পরে ইমরান উজ্জামান ফেরেন দলীয় ১৯ রানে। সবাইকে চমকে দিয়ে চারে ব্যাট করতে নামানো হয় মাশরাফি বিন মুর্ত্তজাকে। পাওয়ার প্লে'তে দ্রুত রান তোলারজন্যই তাকে নামানো হয়। তবে মৃত্যুঞ্জয়ের বলে বোল্ড হয়ে মাশরাফি ফেরেন রানের খাতা খোলার আগেই। এতেই ৪.২ ওভারে ২১ রানে ৩ উইকেট হারায় ঢাকা।

চতুর্থ উইকেটে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ এবং তামিম ইকবাল মিলে গড়েন ৭১ রানের দুর্দান্ত এক জুটি। মাহমুদউল্লাহ ২৯ বলে ২৪ রান করে ফেরার পর দলকে জেতানোর ভার পড়ে তামিমের কাঁধে। পঞ্চম উইকেটে শুভাগত হোমকে সঙ্গে নিয়ে দলকে জয়ের পথেই রেখেছিলেন তামিম। এই ১৯তম ওভারে শুভাগত ফেরেন ১১ বলে ২২ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে। তখনও জয়ের জন্য ঢাকার দরকার ছিল ১৪ রানের। এরপর শেষ ওভারে মৃত্যুঞ্জয়ের দুর্দান্ত বোলিংয়ে জয়ের বন্দরে নোঙর করা হয়নি ঢাকার।

বিজ্ঞাপন

শেষ ওভারে মাত্র একটি বল খেলা তামিম শেষ পর্যন্ত ৫৬ বলে ৭৩ রানে অপরাজিত থাকেন। দুর্দান্ত ইনিংসটি তামিম সাজিয়েছিলেন ৬টি চার আর তিনটি ছক্কায়। তবে তার দুর্দান্ত ইনিংসটি পারেনি দলকে জয় এনে দিতে। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকা তুলতে পারে ১৪৫ রান। আর চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স পায় ৩ রানের জয়।

চট্টগ্রামের হয়ে সর্বোচ্চ দুটি উইকেট নেন শরিফুল ইসলাম এবং মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী। আর একটি করে উইকেট নেন নাসুম এবং মিরাজ।

বিজ্ঞাপন

এর আগে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে শামিম আহমেদের অর্ধশতকে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স তোলে ৬ উইকেটে ১৪৮ রান।

পরের পর্বের আশা বাঁচানোর ম্যাচে চট্টগ্রামের সংগ্রহ ১৪৮

বিজ্ঞাপন

সংক্ষিপ্ত স্কোরকার্ড

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স: ২০ ওভার, ১৪৮/৬; (জাকির ১, জ্যাকস ২৬, আফিফ ২৭, মিরাজ ২, শামিম ৫২, আকবর ৯, হাওয়েল ২৪*, মৃত্যুঞ্জয় ০*); (মাশরাফি ৪-০-২৪-১, ফজলহক ৪-০-৩২-১, সানি ৩-০-১৬-১, এবাদত ৪-০-৩৪-১, কায়েস ৪-০-৩৩-১, মাহমুদউল্লাহ ১-০-৫-১)।

মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকা: ২০ ওভার, ১৪৫/৬; (তামিম ৭৩*, শাহজাদ ৭, ইমরান ৮, মাশরাফি ০, শুভাগত ২২, কায়েস ১, নাঈম ২*); (শরিফুল ৪-০-২৮-২, নাসুম ৪-০-১৫-১, মৃত্যুঞ্জয় ৪-০-২১-২, মিরাজ ৩-০-২৯-১, হাওয়েল ৪-০-৪১-০ জ্যাকস ১-০-৯-০)।

ফলাফল: চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ৩ রানে জয়ী।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ২০২২ বিপিএল। এবারের বিপিএলের সবকটি ম্যাচ সরাসরি সম্প্রচার করবে দেশের জনপ্রিয় স্যাটেলাইট চ্যানেল জিটিভি। এছাড়াও বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় অনলাইন প্ল্যাটফর্ম র‍্যাবিটহোলের ওয়েবসাইটে দেখা যাবে বিপিএলের খেলা। অনলাইনে র‍্যাবিটহোলে খেলা দেখতে ব্রাউজ করুন https://www.rabbitholebd.com/

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন