বিজ্ঞাপন

যমজ দুই সন্তানকে হত্যার অভিযোগে মা গ্রেফতার

February 19, 2022 | 12:03 pm

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

খুলনা: খুলনার তেরখাদায় পুকুর থেকে যমজ দুই শিশুর লাশ উদ্ধারের ঘটনায় তাদের মা কনা বেগমকে গ্রেফতার দেখিয়েছে পুলিশ। পারিবারিক অশান্তির জেরে আড়াই মাস বয়সী দুই শিশুকে কনা বেগম শ্বাসরোধে হত্যার পর লাশ পুকুরে ফেলে দেন বলে মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

শুক্রবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) সকালে খুলনার তেরখাদা উপজেলার ছাগলাদাহ ইউনিয়নের কুশলা গ্রামের কনা বেগমের বাবার বাড়ির পুকুর থেকে দুই যমজ শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়। আড়াই মাস বয়সী দুই যমজ শিশুর নাম মনি ও মুক্তা।

পুলিশ বলছে, পারিবারিক অশান্তি ও যমজ শিশুকে দেখভাল করতে অতিষ্ঠ হওয়ার ক্ষোভ থেকে শিশু দুটিকে শ্বাসরোধে হত্যা করেন মা কনা বেগম। পরে তিনি দুই শিশুকে তাদের বাড়ির পুকুরে ফেলে দেন। সকালের দিকে শিশু দুটিকে পাওয়া যাচ্ছে না এমন অজুহাত তুলে খোঁজাখুজি শুরু করেন। পরে এলাকাবাসী পুকুর থেকে শিশু দুটির মরদেহ উদ্ধার করে।

বিজ্ঞাপন

এ ঘটনায় গতকাল রাত ১১টার দিকে তেরখাদা থানায় কনা বেগমের বিরুদ্ধে মামলা করেন তার স্বামী মাসুম বিল্লাহ।

কনা বেগমের স্বামী মাসুম বিল্লাহর বাড়ি বাগেরহাটের মোল্লাহাট উপজেলায়। তিনি একটি ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানিতে চাকরি করেন। বাচ্চা মারা যাওয়ার খবর শুনে তিনি শ্বশুরবাড়ি গিয়েছিলেন।

বিজ্ঞাপন

তেরখাদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জহুরুল আলম বলেন, ‘যমজ শিশু জন্মগ্রহণের পর স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে দ্বন্দ্ব শুরু হয়। মাসুম বিল্লাহ সন্তানদের দেখতে আসতেন না। নিজের বাড়িও নিয়ে যেতেন না। অন্যদিকে যমজ শিশু লালন-পালন করাও কনা বেগমের একার জন্য বেশ কঠিন হয়ে পড়ে। পারিবারিক অশান্তি থেকে কনা বেগম শিশু দুটিকে হত্যা করে বলে পুলিশকে জানিয়েছে।’

সারাবাংলা/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন