বিজ্ঞাপন

গৃহশ্রমিকদের শ্রম আইনে অন্তর্ভুক্তির দাবি বিলসের

March 8, 2022 | 8:23 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: সাম্প্রতিক বছরগুলোতে গৃহকর্মে নিযুক্ত শ্রমিকের ওপর নির্যাতন, হত্যা ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা বেড়ে যাওয়ায় গভীর উদ্বেগ জানিয়েছে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব লেবার স্টাডিস (বিলস)। সংস্থাটি বলছে, গৃহশ্রমিক হিসেবে যেমন তাদের রয়েছে কিছু ন্যায্য অধিকার, তেমনি রয়েছে মানুষ হিসাবে মর্যাদা পাওয়ার অধিকার। তাদের সেই মর্যাদা ও অধিকার রক্ষার জন্য গৃহশ্রমিকদের শ্রম আইনে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (৮ মার্চ) আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে শাহবাগে অবস্থিত জাতীয় জাদুঘরের সামনে আয়োজিত এক সমাবেশে এই দাবি জানান ট্রেড ইউনিয়ন নেতারা। ‘টেকসই আগামীর জন্য জেন্ডার সমতাই আজ অগ্রগণ্য’ স্লোগানকে সামনে রেখে বিলস সুনীতি প্রকল্পের উদ্যোগে এবং অক্সফ্যাম বাংলাদেশ ও গ্লোবাল অ্যাফেয়ার্স কানাডার সহযোগিতা এই মানববন্ধন ও র‍্যালি অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধন ও র‍্যালির আগে সমাবেশে বক্তারা ‘গৃহশ্রমিক সুরক্ষা ও কল্যাণ নীতি ২০১৫’ বাস্তবায়নের মাধ্যমে গৃহশ্রমিকদের সুরক্ষা নিশ্চিতের দাবি জানান। তারা বলেন, গৃহশ্রমিকদের মর্যাদা প্রতিষ্ঠা, নির্যাতন-সহিংসতা বন্ধ এবং ন্যায্য মজুরি, ক্ষতিপূরণ ও শোভন কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করার পাশাপাশি ‘গৃহশ্রমিক সুরক্ষা ও কল্যাণ নীতি’কে আইনে পরিণত করতে হবে।

বিজ্ঞাপন

গৃহশ্রমিকদের শ্রম আইনে অন্তর্ভুক্তির দাবি বিলসের

আয়োজনে বিলসের সহযোগী জাতীয় ট্রেড ইউনিয়ন ফেডারেশনের নেতা, গৃহশ্রমিক অধিকার প্রতিষ্ঠা নেটওয়ার্কের প্রতিনিধি, নাগরিক সমাজের প্রতিনিধি ও সুনীতি প্রকল্পের সহযোগী সংগঠনগুলোর প্রতিনিধিসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা গৃহশ্রমিকরা উপস্থিত ছিলেন। এসময় গৃহশ্রমিকের অধিকার ও মর্যাদার দাবিতে গণসাক্ষরতা অভিযানের পক্ষ থেকে স্বাক্ষর সংগ্রহ কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।

বিজ্ঞাপন

এছাড়া নারী দিবস উপলক্ষে প্রকল্পের পক্ষ থেকে নারী মৈত্রী’র উদ্যোগে বিভিন্ন এলাকায় ভ্যান র‍্যালি, ইউসেপ বাংলাদেশের উদ্যোগে মিরপুরে আলোচনা সভা, হ্যালোটাস্কের উদ্যোগে গৃহশ্রমিক নিয়োগকারীদের নিয়ে আলোচনা সভা এবং রেড অরেঞ্জের উদ্যোগে সোশ্যাল মিডিয়া ক্যাম্পেইনের আয়োজন করা হয়েছে।

গৃহশ্রমিক অধিকার ও প্রতিষ্ঠা নেটওয়ার্কের ভারপ্রাপ্ত সমন্বয়কারী আবুল হোসাইনের সঞ্চালনায় কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ লেবার ফেডারেশনের সভাপতি শাহ মো. আবু জাফর, জাতীয় শ্রমিক জোট বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক নইমুল আহসান জুয়েল, জাতীয় শ্রমিক জোটের কার্যকরী সভাপতি মো. আব্দুল ওয়াহেদ, জাতীয় মহিলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী রহিমা আক্তার সাথী, বাংলাদেশ জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি শামীম আরা, বাংলাদেশ মুক্ত শ্রমিক ফেডারেশনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক শহীদুল্লাহ বাদল, বিলস পরিচালক নাজমা ইয়াসমিন, জাতীয় গার্হস্থ্য নারী শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মোর্শেদা আক্তার নাহারসহ অন্যরা।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/আরএফ/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন