বিজ্ঞাপন

সালজবুর্গকে বিধ্বস্ত করে চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টারে বায়ার্ন

March 9, 2022 | 3:49 am

স্পোর্টস ডেস্ক

সালজবুর্গের বিপক্ষে শেষ ষোলর প্রথম লেগে ১-১ গোলে ড্র করে কোয়ার্টারের টিকিটের জন্য দ্বিতীয় লেগের দিকে তাকিয়ে ছিল বায়ার্ন মিউনিখ। ঘরের মাঠ অ্যালিয়েঞ্জ অ্যারেনায় রবার্ট লেভান্ডোফস্কির ১১ মিনিটের হ্যাটট্রিকের সঙ্গে থমাস মুলারের জোড়া গোলে সালজবুর্গকে বিধ্বস্ত করেছে বায়ার্ন। দ্বিতীয় লেগে ৭-১ ব্যবধানে জিতেছে বাভারিয়ানরা। আর দুই লেগ মিলিয়ে ৮-২ গোলের ব্যবধানে জিতে ২০২১/২২ মৌসুমের চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ আটের টিকিট কাটল ছয়বারের চ্যাম্পিয়নরা।

বিজ্ঞাপন

মাত্র ১৩ মিনিটের ঝড়ে লণ্ডভণ্ড সালজবুর্গ। ম্যাচের ১১তম মিনিটে রবার্ট লেভান্ডোফস্কিকে ডি-বক্সের ভেতর ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। স্পটকিক থেকে বল জালে জড়িয়ে দলকে ১-০ গোলের লিড এনে দেন লেভা। এরপর ১৯তম মিনিটে এসে আবারও নিজেদের ডি-বক্সে সেই লেভান্ডোফস্কিকেই ফাউল করে বসেন ওবার। এবার ভিএআর দেখে রেফারি পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেন। আবারও স্পটকিক নিতে আসেন লেভা, আবারও সেই একই ফলাফল। বল জলে জড়ালেন লেভা আর বায়ার্নকে এনে দিলেন ২-০ গোলের লিড।

তবে এটা তো ছিল কেবলই শুরু। গোল বন্যা শুরুর মাত্র ১৩ মিনিটের মধ্যে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করলেন লেভা। ম্যাচের ২৩তম মিনিটে থমাস মুলারের থ্রু বল রুখতে গোললাইন ছেড়ে বেরিয়ে আসেন সালজবুর্গ গোলরক্ষক কোহ্ন। কিন্তু বল রুখতে ব্যর্থ হলে সুযোগ পেয়ে যান লেভান্ডোফস্কি। আর সহজ এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে তৃতীয় বারের মতো লক্ষ্যভেদ করেন এই পোলিশ স্ট্রাইকার।

বিজ্ঞাপন

সালজবুর্গকে বিধ্বস্ত করে চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টারে বায়ার্ন

ম্যাচের সময় আধা ঘণ্টা ছুঁয়েছে তখন। ডি-বক্সের ভেতর কোম্যানের কাছে বল হারান সালজবুর্গ মিডফিল্ডার কামারা। কোম্যান বল জিতে খুঁজে নেন সার্জ গ্ন্যাব্রিকে। বল পেয়ে কোহ্নকে পরাস্ত করে বল জালে জড়ান গ্ন্যাব্রি। আর এতেই ম্যাচের ৩১ মিনিটে ৪-০ গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিক বায়ার্ন।

বিজ্ঞাপন

দ্বিতীয়ার্ধে ফিরেও আক্রমণের ধারা অব্যাহত রাখে বায়ার্ন। দ্বিতীয়ার্ধে নিজেদের প্রথম গোল পেয়ে বায়ার্নকে অপেক্ষা করতে হয় ম্যাচের ৫৪ মিনিট পর্যন্ত। এবার স্কোরশিটে নাম লেখান থমাস মুলার। গোলটা দিতে পারতেন লেরয় সানে নিজেই কিন্তু ডি-বক্সের ভেতর তার চেয়ে আরও ভালো পজিশনে ছিলেন স্বদেশী মুলার। আর তাই তো পেনাল্টি অঞ্চলে থাকা মুলারকেই বলটি পাস দিয়ে দিলেন। আর বাঁ পায়ের জোরালো শটে মুলারও করে ফেললেন লক্ষ্যভেদ। বায়ার্ন তখন এগিয়ে ৫-০ গোলের ব্যবধানে।

ম্যাচের ৭০ মিনিটে কিছুটা সম্মান ফিরে পায় সালজবুর্গ। মধ্যমাঠ থেকে বল নিয়ে এগিয়ে যান ব্রেন্ডন অ্যানসন। এরপর থ্রু বলে খুঁজে নেন মাউরটিস কায়েগার্ডকে। ম্যানুয়েল নয়্যারকে পরাস্ত করে বল জালে জড়িয়ে ব্যবধান ৫-১ করেন কায়েগার্ড। আর এতেই যেন আরও তেড়েফুঁড়ে উঠলো গোটা বায়ার্ন। আরও গোলের জন্য মরিয়ে হয়ে উঠলো স্বাগতিকরা।

বিজ্ঞাপন

সালজবুর্গকে বিধ্বস্ত করে চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টারে বায়ার্ন

অবশ্য ষষ্ঠ গোলের জন্য বায়ার্নকে অপেক্ষা করতে হয়েছে ম্যাচের ৮৩তম মিনিটে পর্যন্ত। সানে এবং মুলারের দুর্দান্ত যুগলবন্দিতে বায়ার্ন পেল ষষ্ঠ গোল। লেরয় সানের দ্বিতীয় অ্যাসিস্ট থেকে মুলারের এই ম্যাচে দ্বিতীয় গোল। এর মিনিট দুই পরে প্রথমার্ধেই হ্যাটট্রিক করা লেভান্ডোফস্কি বনে গেলেন গোলের যোগানদাতা। সালজবুর্গের পেনাল্টি অঞ্চলে বল পজিশনে রেখে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করলেন লেভা। এরপর গোলমুখে ভালো পজিশনে চলে এলেন লেরয় সানে। সুযোগ বুঝে তার কাছে বল পাঠিয়ে দিলেন লেভান্ডোফস্কি। দুটি অ্যাসিস্টের পর গোলের দেখা পেলেন সানে। আর লেভা হ্যাটট্রিক করার পর নাম লেখালেন অ্যাসিস্টের খাতাতেও। বায়ার্ন এগিয়ে গেল ৭-১ গোলের ব্যবধানে।

বিজ্ঞাপন

প্রথম লেগে সালজবুর্গের মাঠে ১-১ গোলের ড্র করে আসা বায়ার্ন দুই লেগ মিলিয়ে জিতল ৮-২ গোলের ব্যবধানে। আর তাতেই উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ আটের টিকিট কাটল জুলিয়ান নাগেলসম্যানের দল বায়ার্ন মিউনিখ।

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন