বিজ্ঞাপন

এবার সাংবাদিক পেটালেন ভাইজান, কেন ক্ষেপেছিলেন?

March 23, 2022 | 3:27 pm

এন্টারটেইনমেন্ট ডেস্ক

ঘটনার সময়কাল ২০১৯ সালের ২৪ এপ্রিল। দুই বডি গার্ডের সাথে সাইকেল চালাতে ব্যস্ত ছিলেন বলিউড ভাইজান সালমান খান। আর সেইসময় অন্য এক গাড়িতে ক্যামেরাপার্সনদের সাথে ছিলেন সাংবাদিক অশোক পাণ্ডে। জানা যায়, সালমানের বডিগার্ডদের অনুমতি নিয়ে সেই দৃশ্য ভিডিও করতে শুরু করেন অশোক। একপর্যায়ে সেটা চোখে পড়ে অভিনেতার। দেখেই রাগে ফেটে পড়েন সালমান। এর পরপরই সালমানের বডিগার্ডরা এসে মারধর করেন অশোককে। সালমান নাকি মেরে ওই সাংবাদিকের মোবাইলও কেড়ে নেন। এরপর পুলিশকে জানানোর ভয় দেখালে ফোন ফেরত দেয় সালমানের বডিগার্ডরা। ব্যাস, এই ঘটনায় ২০১৯ সালেই সালমান খানের নামে আদালতে অভিযোগ করেছিলেন সাংবাদিক অশোক পাণ্ডে। আইপিসি-র ৫০৪ ও ৫০৬ ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সেই অভিযোগের ভিত্তিতে ভারতের আন্ধেরি ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের পক্ষ থেকে সমন পাঠানো হয়েছে সালমানকে। আর তাতে আগামী ৫ এপ্রিল সালমানকে কোর্টে হাজিরা দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। অশোক নিজের অভিযোগে জানান, পুলিশ তার অভিযোগ নিতে অস্বীকার করায় তিনি আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। তাকে বারবার বলা হয়েছিল কোনও অপরাধ ঘটেনি।

বিজ্ঞাপন

ভারতীয় সংবাদসংস্থা এ.এন.আই’র পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘মুম্বাইয়ের আন্ধেরি কোর্ট সালমানের কাছে সমন পাঠিয়েছে ৫ এপ্রিল আদালতে উপস্থিত থাকার জন্য। ২০১৯ সালে সাংবাদিক অশোক পাণ্ডের দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে তার বিরুদ্ধে আইপিসি-র ৫০৪ ও ৫০৬ ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে।’

উল্লেখ্য, সালমানের নামে এমনিতেই একাধিক মামলা চলছে ভারতের আদালতে, যার মধ্যে রয়েছে ১৯৮৮ সালের কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলা। এসবেরই মধ্যে ফের একবার আইনি লড়াইয়ে জড়ালেন ভাইজান।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এএসজি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন