বিজ্ঞাপন

ধৈর্য, মানসিকতা আর স্কিলের সমন্বয়ে জয়ের সেঞ্চুরি

April 2, 2022 | 6:06 pm

স্পোর্টস ডেস্ক

ডারবান টেস্টের দ্বিতীয় দিনে ব্যাট হাতে বাংলাদেশে ইনিংসের গোড়াপত্তন করেন মাহমুদুল হাসান জয়। এরপর ধৈর্য, দৃঢ় মানসিকতা আর স্কিলের চরম পরীক্ষা দিয়েছেন এই টাইগার ওপেনার। ১৭০ বলে মাত্র ৫টি চারে পূরণ করেন ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ফিফটি। এরপর ধীরেসুস্থে এগিয়েছেন ক্যারিয়ারের প্রথম শতকে দিকে। অবশেষে ২৬৯ বলে ১০টি চার আর একটি ছক্কায় পৌঁছে গেলেন তিন অংকের ম্যাজিক ফিগারে। আর বনে গেলেন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সেঞ্চুরি হাঁকান প্রথম বাংলাদেশি।

বিজ্ঞাপন

সাদমান, শান্ত, মুমিনুল কিংবা মুশফিক কেউই খেলতে পারেননি বড় ইনিংস। ৯৪ রানেই বাংলাদেশ হারায় চার টপ অর্ডার ব্যাটার। তবে এক প্রান্ত আকড়ে পড়ে থাকেন এই তরুণ। ৯৭ ওভার উইকেট আকড়ে পড়ে থাকা জয় একাই খেলেছেন ৪৫ ওভার।

তৃতীয় দিনের মধ্যাহ্ন বিরতির আগে ২৩০ বলে ৮০ রানে অপরাজিত ছিলেন। লাঞ্চের পর নেমে তিন অঙ্ক স্পর্শ করেন ২৬৯ বলে । কেশব মহারাজের বল অফ সাইডে ঠেলে দুই রান দিয়েই লাফ দিয়ে দুহাত উঁচিয়ে ধরেন তিনি। কেবল দক্ষিণ আফ্রিকাতেই নয়, দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দেশের মাটিতেও বাংলাদেশের কোনো ব্যাটারের ছিল না সেঞ্চুরি। অবশেষে ঘুচল সেই আক্ষেপ। মাহমুদুল হাসানের ব্যাটেই দূর হলো বাংলাদেশের এই শূন্যতা।

বিজ্ঞাপন

ধৈর্য, মানসিকতা আর স্কিলের সমন্বয়ে জয়ের সেঞ্চুরি

বাংলাদেশের জার্সিতে মাহমুদুলের প্রথম শতকটাই যে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে বাংলাদেশের কোনো ব্যাটারের প্রথম টেস্ট শতকও। এর আগে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে টেস্টে বাংলাদেশের কোনো ক্রিকেটারের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ছিল মুমিনুল হকের। ২০১৭ সালে পচেফস্ট্রুমে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসে ৭৭ রান করেছিলেন বর্তমান টেস্ট অধিনায়ক।

বিজ্ঞাপন

৪৫ ওভার এবং প্রায় ছয় ঘণ্টা ব্যাট করা জয়ের কল্যাণে বাংলাদেশের সংগ্রহ এখন ৭ উইকেটে ২৩৫ রান। ২৭০ বলে ১০০ রানে অপরাজিত আছেন জয়। আর তার সঙ্গে ৩৫ বলে ১০ রান করে আছেন মেহেদি হাসান মিরাজ। বাংলাদেশ এখনো পিছিয়ে ১৩২ রানে।

ঘরের মাঠে পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট দিয়ে সাদা পোশাকে অভিষেক জয়ের। সেই ম্যাচের দুই ইনিংসে তিনি করেছিলেন ০ ও ৬ রান। তবে চলতি বছরের জানুয়ারিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে ২২৮ বলে ৭৮ রানের ইনিংস খেলে নিজের সামর্থ্যের জানান দেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

সেই ধারাবাহিকতা ধরে রেখে আজ টানা দ্বিতীয় ম্যাচে খেললেন দুর্দান্ত এই ইনিংস। ক্যারিয়ারে দ্বিতীয়বারের মতো পঞ্চাশোর্ধ্ব ইনিংস পেরিয়েই থামেননি জয়। সেটাকে রূপ দিয়েছেন সেঞ্চুরিতে।

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন