বিজ্ঞাপন

রোগীও রক্ষা পেল না ‘ব্যবসায়ীদের’ হাত থেকে, অ্যাম্বুলেন্স ভাঙচুর

April 19, 2022 | 3:04 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: নিউ মার্কেটের ব্যবসায়ীরা ও ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ চলছে। সেই সংঘর্ষ রূপ নেয় রণক্ষেত্রে। এতে নিউমার্কেট, নীলক্ষতে, সিটি কলেজসহ পুরো এলাকায় যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। কিন্তু সংঘর্ষ চলাকালীন একটি অ্যাম্বুলেন্স ঢাকা মেডিকেল থেকে রোগী নিয়ে মতলবের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করে নীলক্ষেত মোড়ে গেলে সেটি ব্যবসায়ীদের তোপের মুখে পড়ে। এক পর্যায়ে তারা অ্যাম্বুলেন্সটি ভাঙচুর করে বলে দাবি রোগীর স্বজন ও চালকের। মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) দুপুরে নীলক্ষেত মোড়ে হামলার এই ঘটনা ঘটে।

বিজ্ঞাপন

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, অ্যাম্বুলেন্সটি রোগী নিয়ে মতলব যাচ্ছিল। সব দিকের রাস্তা বন্ধ থাকায় নীলক্ষেত দিয়ে বের হওয়ার চেষ্টা করে তারা। অ্যাম্বুলেন্সটি যখন নীলক্ষেত মোড়ে পৌঁছায় তখন ব্যবসায়ীরা অতর্কিত হামলা করে। এ সময় অ্যাম্বুলেন্সে থাকা রোগীর স্বজন এবং গাড়ির চালক বার বার ব্যবসায়ীদের কাছে হাত জোড় করছিলেন। কিন্তু তারা সেই অনুরোধ রাখেনি। বরং ব্যবসায়ীরা অ্যাম্বুলেন্সের সব গ্লাস ভেঙে ফেলে। এ সময় রোগী ও তার স্বজনরা ভয়ে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন।

রোগীও রক্ষা পেল না ‘ব্যবসায়ীদের’ হাত থেকে, অ্যাম্বুলেন্স ভাঙচুর

বিজ্ঞাপন

প্রত্যক্ষদর্শীরা আরও জানান, পড়ে অ্যাম্বুলেন্সটি নীলক্ষেত মোড় থেকে ঘুরিয়ে ফের ঢাকা মেডিকেলের দিকে যায়। গাড়িটিতে হামলা করার সময় ব্যবসায়ীদের হাতে লোহার রড এবং পাইপ ছিল। এ সময় মোবাইল ফোনে ভিডিও করতে গেলে গণমাধ্যমকর্মীদের দিকে তেড়ে আসেন ব্যবসায়ীরা।

এদিকে, অ্যাম্বুলেন্সের চালকের সঙ্গে কথা হয় সারাবাংলার এই প্রতিবেদকের। তিনি বলেন, ‘আমার গাড়িতে জরুরি রোগী। ঢাকা মেডিকেল থেকে রোগী নিয়ে চাঁদপুরের মতলব যাওয়ার কথা ছিল। সব দিকে যানজট থাকায় নীলক্ষেত মোড় দিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিলাম। কিন্তু নীলক্ষেত মোড়ে পৌঁছানোর সঙ্গে সঙ্গে হামলার ঘটনা ঘটে। বার বার মাপ চাই, হাত জোড় করি, বলি- গাড়িতে রোগী আছে; তখন তারা আমাকে গাড়ি থেকে নামতে বলে। আমি ভয়ে নামিনি। গাড়িতে রোগী থাকার পরও তারা পুরো অ্যাম্বুলেন্সটি ভেঙে চুরমার করে দিল।’

বিজ্ঞাপন

হামলার সময় রোগীর শরীরেও আঘাত করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

সারাবাংলা/এসজেড/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন