বিজ্ঞাপন

আদালত থেকে পালিয়েছে ফাঁসির আসামি

April 28, 2022 | 6:16 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ঢাকার জেলা ও দায়রা আদালতের হাজতখানা থেকে কলেজ ছাত্র মুনসের আলী ওরফে মুন্না হত্যা মামলার এক আসামি পালিয়ে গেছেন।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (২৮ এপ্রিল) পুরান ঢাকার জেলা ও দায়রা জজ আদালত থেকে পালিয়ে যান বাদশা মিয়া নামে ওই আসামি।

মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার শিমুলিয়া গ্রামের কলেজছাত্র মনির হোসেন হত্যা মামলায় বাদশা মিয়ার ফাঁসির আদেশ হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এদিকে পুলিশ হেফাজত থেকে হত্যা মামলার আসামি পালিয়ে যাওয়ায় আদালতে এটি নিয়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে পালিয়ে যাওয়া আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

বিজ্ঞাপন

ঢাকার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের কোর্ট ইন্সপেক্টর মতিয়ার রহমান মিঞা বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে বাদশা মিয়া পালিয়ে যান। তাকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

জানা যায়, সাভার বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ছাত্র মুন্না হত্যা মামলাটি আজ সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য ধার্য ছিল। এ মামলার ৬ আসামির মধ্যে বাদশা মিয়া ও লাল মিয়া কারাগারে ছিলেন। এদিন তাদের কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়। তাদের জেলা ও দায়রা জজ আদালতের হাজতখানায় রাখা হয়। মামলার শুনানির আগে ঢাকার ৮ম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ সৈয়দা মিনহাজ উম মুনীরার আদালতে তাদের নেওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন

এদিন মামলার সাক্ষ্য গ্রহণ হয়নি। পরে তাদের ৫ তলার এ এজলাস থেকে নামিয়ে হাজতখানায় নিয়ে আসছিল পুলিশ। আদালতের তৃতীয় তলায় আসলে বাদশা মিয়া এক পুলিশ কনস্টেবলের হাত থেকে ছুটে পালিয়ে যায় বলে জানা যায়।

জানা যায়, সাভার বিশ্ববিদ্যালয়ের কলেজের ছাত্র মুন্না বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জায়গায় আর্ট করত। ২০১৫ সালের ২৫ আগষ্ট আর্ট করার কথা বলে মুন্নাকে ফোন দিয়ে নিয়ে যায় আসামিরা। পরে মুন্নার পরিবারের কাছে ৩ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। মুন্নার পরিবার আসামিদের ১০ হাজার টাকাও দেয়। তারপরও আসামিরা মুন্নাকে হত্যা করে। ১২ সেপ্টেম্বর এই ৬ জনকে গ্রেফতার করে সাভার থানা ও মানিকগঞ্জ থানা পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

২০১৬ সালের ২ এপ্রিল মামলাটি তদন্ত করে ছয়জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন তদন্ত কর্মকর্তা সাভার মডেল থানার সাব-ইন্সপেক্টর মোফাজ্জল হোসেন।

সারাবাংলা/এআই/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন