বিজ্ঞাপন

শ্রীলংকাকে চারশর আগেই থামালো বাংলাদেশ

May 16, 2022 | 5:03 pm

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট

আগের দিন বাংলাদেশের স্পিন বোলিং কোচ রঙ্গনা হেরাথ বলেছিলেন, চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম ইনিংসে শ্রীলংকাকে ৪০০ রানের আগেই আটকে রাখতে চায় বাংলাদেশ। মনে হচ্ছিল টেস্টের প্রথম দিনে ৪ উইকেটেই ২৫৮ রান তুলে ফেলা লংকানদের বিপক্ষে এটি উচ্চভিলাসী প্রত্যাশা কিনা! তবে বাংলাদেশ কিন্তু কথা মতোই কাজ করে দেখালো। চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম ইনিংসে লংকানদের চারশর আগেই আটকে রেখেছে মুমিনুল হকের দল। শেষ পর্যন্ত ৩৯৭ রানে থেমেছে সফরকারীদের স্কোর।

বিজ্ঞাপন

এদিকে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসের জন্য এখন পর্যন্ত অভিজ্ঞতা অম্ল -মুধুর। বড় ইনিংস খেলেছেন শ্রীলংকার সাবেক অধিনায়ক। কিন্তু মাত্র ১ রানের জন্য মিস করেছেন ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় টেস্ট ডাবল সেঞ্চুরি। ১৯৯ রান করে শ্রীলংকার শেষ ব্যাটার হিসেবে আউট হয়েছেন ম্যাথুস।

সোমবার (১৬ মে) চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ৪ উইকেটে ২৫৭ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করে সকালটা ভালোই করেছে শ্রীলংকা। সকালে নতুন বলের সুবিধা নিতে পারেননি বাংলাদেশি পেসাররা। আগের দিনের দুই অপরাজিত ব্যাটার অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস ও দিনেশ চান্ডিমাল সকালে দারুণ ব্যাটিং করেছেন।

বিজ্ঞাপন

তবে পানি পানের বিরতির পরই লংকানদের বড় ধাক্কা দেন সাকিব আল হাসান ও নাঈম হাসান। মাত্র ৯ রানের ব্যবধানে ৪ উইকেট তুলে নেন সাকিব-নাঈম। শ্রীলংকার অষ্টম উইকেটের পতন হয় ৩২৮ রানে। তখন মনে হচ্ছিল সাড়ে তিনশর মধ্যেই হয়তো আটকে রাখা যাচ্ছে লংকানদের। কিন্তু লেজের দুই ব্যাটারকে নিয়ে এরপর অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস লড়াই করেছেন দুর্দান্ত।

শ্রীলংকাকে চারশর আগেই থামালো বাংলাদেশ

বিজ্ঞাপন

বিশ্ব ফার্নান্দো ও অসিথা ফার্নান্দোকে সাথে নিয়ে ডাবল সেঞ্চুরির একদম প্রান্তে গিয়ে দাঁড়িয়েছিলেন ম্যাথুস। ১৯৯ রানের মাথায় স্বাভবাবিকভাবেই তাকে ঘিরে ধরেছিল বাংলাদেশি ফিল্ডাররা, যেন সিঙ্গেল নিতে না পারেন। বাইরে থাকা  ফিল্ডারদের ডেকে মিড অফ ও মিড উইকেটেও ফিল্ডার দাঁড়িয়ে দেন ১৫৩তম ওভার করতে আসা নাঈম হাসান।

ম্যাথুস হয়তো তাতে চাপই অনুভব করেছিলেন! ডাবল সেঞ্চুরি থেকে মাত্র এক রান দূরে থাকতে নাঈমের লেগ স্টাম্পে থাকা বলটি ক্রিজ ছেড়ে লেগ সাইডে খেলতে গিয়ে স্কয়ার লেগে সাকিবের হাতে ক্যাচ তুলে দেন ম্যাথুস! ৯ ঘণ্টা ৩৮ মিনিট পর আউট হন ম্যাথুস মাত্র ১ রানের আক্ষেপ নিয়ে। তারপর নাঈমের উল্লাস আর দেখে কে! ১৯৯ রান করতে ৩৯৭ বল খেলে ১৯টি চার ১টি ছক্কা মেরেছেন ম্যাথুস।

বিজ্ঞাপন

নাঈম শেষ পর্যন্ত ৬ উইকেট পেয়েছেন ১০৫ রান খরচায়। এক বছর পর দলে ফেরা নাঈমের এটা ক্যারিয়ার সেরা বোলিং। আগের সেরা বোলিং ছিল ৬১ রানে পাঁচ উইকেট। সাকিব আল হাসান ৩৯ ওভার বোলিং করে মাত্র ৬০ রান খরচায় নিয়েছেন তিন উইকেট।

সারাবাংলা/এসএইচএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন