বিজ্ঞাপন

প্লাস্টিক সার্জারিতে গেল কন্নড় অভিনেত্রীর প্রাণ

May 17, 2022 | 5:18 pm

এন্টারটেইনমেন্ট ডেস্ক

নিজেকে সুন্দর দেখাতে মানুষের কতই না আয়োজন। কিন্তু সে সৌন্দর্যচর্চা মাঝে মধ্যে ভয়ংকর হয়ে উঠতে পারে। হতে পারে প্রাণঘাতী! ঠিক এমনটাই ঘটেছে ভারতের কন্নড় অভিনেত্রী চেতনা রাজের ক্ষেত্রে। সৌন্দর্য বাড়াতে গিয়েছিলেন প্লাস্টিক সার্জারি করাতে। কিন্তু অপারেশনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় মারা গেলেন তিনি। ১৬ মে যখন মারা যান তখন তার বয়স হয়েছিল মাত্র ২১।

বিজ্ঞাপন

শরীরে একটু মেদ বেড়ে গিয়েছিল চেতনার। অভিনেত্রী হিসেবে নিজেকে স্লিম দেখাতে ভর্তি হয়েছিলেন বেঙ্গালুরের একটি হাসপাতালে। বাবা-মাকে না জানিয়ে এক বন্ধুকে নিয়ে হাসপাতালটিতে ‘ফ্যাট ফ্রি’ সার্জারি করিয়েছিলেন। সকালে সার্জারির পর সন্ধ্যায় তার শরীরে পরিবর্তন ঘটতে থাকে। ফুসফুসে পানি জমতে থাকে। হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ায় হাসপাতালের কর্মীরা তাঁকে বিকেল সাড়ে ৫টা নাগাদ একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যান। ওই অবস্থাতেও হাসপাতালের চিকিৎসকদের চেতনা হুমকি দিয়ে নির্দেশ দেন, তার অসুস্থতা সম্পর্কে যেন বাইরের কেউ কিছু জানতে না পারে।

চেতনা বলেছিলেন, কেউ কিছু জিজ্ঞাসা করলে যেন বলা হয়, তিনি হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন। হাসপাতাল সূত্রে খবর, চিকিৎসকরা প্রায় ৪৫ মিনিট ধরে বুকে পাম্প করা সত্ত্বেও বাঁচাতে পারেননি চেতনাকে।

বিজ্ঞাপন

মেয়ের মৃত্যুর জন্য চিকিৎসকের অবহেলাকে দায়ী করেছেন চেতানার বাবা-মা। পুলিশ জানিয়েছে, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় একটি মামলাও দায়ের হয়েছে।

বেঙ্গালুরুতেই চেতনার বড় হয়ে ওঠা। কলেজের পড়াশোনা শেষ করতে পারেননি তিনি। মডেলিং জগতে পা রাখার পর বিভিন্ন দক্ষিণী টিভি ধারাবাহিকে অভিনয় করার সুযোগ পান চেতনা। ‘গীতা’, ‘দোরেসানি’, ‘ওলাভিনা নিলদানা’ নামে কন্নড় ধারাবাহিকে অভিনয় করে সুনাম অর্জন করছিলেন তিনি। এছাড়াও কন্নড় সিনেমা ‘হাভাইয়ামি’তেও অভিনয় করেন চেতনা।

বিজ্ঞাপন

অভিনয়ে সুনাম করার সঙ্গে স্বাস্থ্য সচেতন হয়ে পড়েন তিনি। হঠাৎ মেদ ঝরানোর শখ জাগে তার। ঘনিষ্ঠদের বক্তব্য, সেই শখ ক্রমে মারাত্মক আকার নেয়।

সারাবাংলা/এজেডএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন