বিজ্ঞাপন

‘পত্রিকা পড়ে ঘাবড়ানোর দরকার নেই, সিদ্ধান্ত নেওয়ারও দরকার নেই’

May 17, 2022 | 9:02 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, কিছু পত্রিকা আছে এক দিন ভালো লিখলে পরের সাত দিন খারাপ লিখবে। আমি বোধহয় দেশের প্রবীণ রাজনীতিবিদদের মধ্যে এক জন। হাই স্কুল থেকে তো রাজনীতি করি। সবাইকে আমার চেনাই আছে। সব পরিবারকেও চেনা আছে। কাজেই এটা তাদের চরিত্র। ওইসব পত্রিকা দেখে ঘাবড়ানোর দরকার নেই। আর পত্রিকা পড়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ারও দরকার নেই।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (১৭ মে) জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ (এনইসি) সভার সূচনা বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন। রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত এ সভায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে সংযুক্ত ছিলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা সিদ্ধান্ত নেব দেশের মানুষের মুখের দিকে তাকিয়ে, দেশের কথা চিন্তা করে, উন্নয়নের কথা চিন্তা করে। এই কথাটা সব সময় মনে রাখতে হবে। কারণ, আমি সেভাবেই চলি। আর সেই সিদ্ধান্ত নিয়ে চলছি বলেই আজ দেশটা এগিয়ে যাচ্ছে। আমি যদি ভয়ে ভয়ে থাকতাম, ও কী লিখল, ও কী বলল, ও কী করল- তাহলে কোনো কাজ করতে পারতাম না। নিজের বিশ্বাস হারাতাম।’

বিজ্ঞাপন

কর্মকর্তাদের আত্নবিশ্বাস নিয়ে চলার পরামর্শ দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘অনেক সময় আপনাদের অনেকের মুখেই শুনি পত্রিকা এটা লিখেছে, ওটা লিখেছে। ওটা নিয়ে কখনো ঘাবড়ানোর কিছু নেই। ওটা নিয়ে চিন্তাও করবেন না। নিজের আত্নবিশ্বাস নিয়ে চলবেন। তাহলেই দেশ এগিয়ে যাবে।’

কারও নাম উল্লেখ না করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘তারাই বেশি কথা বলে, তারাই সমালোচনা বেশি করেন, যারা ইমার্জেন্সি সরকারের পদলেহন করেছে, চাটুকারী করেছে। এটা হচ্ছে বাস্তবতা। যাই হোক কে কী বলল সেটা নিয়ে আমি কখনো ঘাবড়াই না, চিন্তাও করি না। দেশকে ভালোবেসে, দেশের মানুষের জন্য যেটা করা ন্যায়সঙ্গত সেটাই করি।’

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এনআর/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন