বিজ্ঞাপন

পাম তেল রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিচ্ছে ইন্দোনেশিয়া

May 19, 2022 | 5:35 pm

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

পাম তেল রফতানিতে জারি করা নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে ইন্দোনেশিয়া। দেশটির প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো জানিয়েছেন, ভোজ্যতেলের অভ্যন্তরীণ বাজার পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় আগামী সোমবার (২৩ মে) থেকে ফের পাম তেল রফতানি করা হবে।

বিজ্ঞাপন

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়, বিশ্বের শীর্ষ ভোজ্যতেল রফতানিকারক দেশগুলোর মধ্যে ইন্দোনেশিয়া অন্যতম। তবে এ বছরের শুরু থেকেই দেশটিতে ভোজ্যতেলের দাম বাড়তে থাকে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে গত ২৮ এপ্রিল থেকে দেশটি অপরিশোধিত পাম তেলসহ পাম তেলজাত বিভিন্ন পণ্য রফতানি বন্ধ করে দেয়।

গত কিছুদিন হলো আবার পাম তেলের উৎপাদন বেড়েছে ইন্দোনেশিয়ায়। এখনো দেশটিতে তেলের দাম কাঙ্ক্ষিত দামে নামেনি। গত এপ্রিলে পাম তেল রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা আরোপের আগে দেশটিতে তেলের দাম প্রতি লিটার ১৯ হাজার ৮০০ রুপিয়া (ইন্দোনেশিয়ার মুদ্রা) পর্যন্ত উঠে গিয়েছিল। এর দাম ১৪ হাজার রুপিয়ায় নামিয়ে আনার লক্ষ্য ছিল। সে মাত্রায় না নামলেও রফতানি নিষিদ্ধ ঘোষণার পর প্রতি লিটার তেলের দাম ১৭ হাজার ২০০ রুপিয়া থেকে ১৭ হাজার ৬০০ রুপিয়াতে নেমে এসেছে।

বিজ্ঞাপন

তেলের দামের এই নিম্নমুখী প্রবণতার পাশাপাশি পাম তেল শিল্পে নিযুক্ত প্রায় পৌনে ২ কোটি শ্রমিকের কল্যাণও বিবেচনায় নিচ্ছে ইন্দোনেশিয়া সরকার। সে কারণেই তেল রফতানি বন্ধের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করছে দেশটি।

প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো এক ভিডিওবার্তায় বলেন, ইন্দোনেশিয়ার অভ্যন্তরীণ চাহিদা মেটানোর জন্য যে পরিমাণ তেলের উৎপাদন দরকার, তার চেয়ে বেশি তেলের সরবরাহ রয়েছে। ফলে সোমবার থেকে তেল রফতানি করা যাবে।

বিজ্ঞাপন

ইন্দোনেশিয়ার নতুন এই সিদ্ধান্ত বিশ্ববাজারে অনেকটাই স্বস্তি নিয়ে আসবে। কেননা যুদ্ধ পরিস্থিতির কারণে সূর্যমুখী তেলের রফতানি আগেই বন্ধ করেছিল ইউক্রেন। অন্যদিকে, বিশ্বের ভোজ্যতেলের বাজারের প্রায় এক-তৃতীয়াংশ ‘ভেজিটেবল অয়েলে’র দখলে, যার প্রায় ৬০ শতাংশ সরবরাহ করে ইন্দোনেশিয়া। ফলে দেশটি পাম তেল রফতানি বন্ধ করে দিলে বিশ্বব্যাপী তেলের বাজার অস্থির হয়ে ওঠে। সোমবার থেকে তারা ফের পাম তেল রফতানি শুরু করলে তেলের বাজার কিছুটা হলেও শান্ত হবে।

সারাবাংলা/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন