বিজ্ঞাপন

বিউটি সার্কাসের অপেক্ষা ফুরালো

May 19, 2022 | 6:29 pm

আহমেদ জামান শিমুল

মাহমুদ দিদার ‘বিউটি সার্কাস’ নির্মাণ করছেন দীর্ঘ দিন ধরে। বিভিন্ন সময়ে অর্থাভাবে ছবিটি আটকে গিয়েছিল। অবশেষে ছবিটি শুটিং শেষ হয়ে সেন্সর ছাড়পত্রও পেয়েছে। দিদার জানালেন, বৃহস্পতিবার (১৯ মে) সেন্সর বোর্ড ছবিটিকে বিনা কর্তনে ছাড়পত্র প্রদানে সম্মত হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

অনেক বড় চিন্তা মুক্ত হলেন দিদার। তিনি বলেন, ‘অনেকেই ছবিটি নিয়ে অপেক্ষা ছিলেন। আমি অন্য কোন ছবির কাজ করতে পারছিলাম না। অবশেষে দর্শকদের সামনে ছবিটি আনতে পারতেছি, ভালো লাগছে। আমরা আগামী সপ্তাহে ছবিটির মুক্তির তারিখ ঘোষণা করবো।’

২০১৪-১৫ অর্থ বছরে সরকার থেকে ৩৫ লাখ টাকা অনুদান পায় ‘বিউটি সার্কাস’। কিন্তু তখন থেকেই ছবিটির নির্মাণের জন্য এ পরিমাণ অর্থ উপযুক্ত নয় জানিয়ে সহ-প্রযোজক খুঁজতে থাকেন দিদার। তখন তার পাশে দাঁড়ায় ইমপ্রেস টেলিফিল্ম।

বিজ্ঞাপন

‘ছবি নির্মাণ করতে আমাদের এখন পর্যন্ত ১ কোটি ৪৫ লাখ টাকা খরচ হয়েছে। সরকারি অনুদানের বাইরে এর বেশির ভাগ অংশই দিয়েছে ইমপ্রেস। আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি ইবনে হাসান খানের প্রতি। তিনি শেষ মুহুর্তে আগের টাকার সঙ্গে অতিরিক্ত ৫৫ লাখ টাকা দিয়েছেন, যা দিয়ে ছবিটির পোস্ট প্রোডাকশনের কাজ শেষ করেছি। বলতে পারেন তিনি একজন ট্রু সিনেমা প্রডিউসার’,—বলেন দিদার।

‘বিউটি সার্কাস’-এর শুটিং শুরু হয় ২০১৭ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি থেকে। নওগাঁর সাপাহার ও মানিকগঞ্জে সার্কাসের বিশাল যজ্ঞে চলচ্চিত্রটিতে দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান সেজেছেন সার্কাসকন্যা ‘বিউটি’রূপে। এতে তার বিপরীতে আহসানের বিপরীতে অভিনয় করেছেন তৌকির আহমেদ, এ বি এম সুমন, শতাব্দী ওয়াদুদসহ আরও অনেকে।

বিজ্ঞাপন

সার্কাসকে কেন্দ্র করে এক নারীর টিকে থাকার গল্প ‘বিউটি সার্কাস’। সার্কাস আক্রান্ত হওয়ার পরও গণমানুষের পক্ষ নিয়ে হুমকির মুখেও একজন নারীর আপন শক্তিতে টিকে থাকার গল্প ফুটে উঠবে চলচ্চিত্রটিতে।

সারাবাংলা/এজেডএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন