বিজ্ঞাপন

প্রথম হজ ফ্লাইট ৩১ মে, কোনো অনিশ্চয়তা নেই: ধর্ম মন্ত্রণালয়

May 19, 2022 | 11:23 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: অন্যান্য বছরের চেয়ে এবারের হজযাত্রার প্রস্তুতি অনেকটাই ভিন্ন। একদিকে সময় কম, তার ওপর এবারের বেশকিছু সিদ্ধান্ত একেবারেই নতুন। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এবার মহামারি করোনা পরিস্থিতির কারণে বিভিন্ন দেশের হজযাত্রীদের হজ করার সুযোগ নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসতেই দেরি হয়। ফলে হজযাত্রার প্রস্তুতিও শুরু হয় দেরিতে। সবকিছু তাই দ্রুত করতে হচ্ছে। সে কারণে হজের প্রথম ফ্লাইট নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছিল। তবে ধর্ম মন্ত্রণালয় জানাচ্ছে, হজ ফ্লাইট নিয়ে কোনো অনিশ্চয়তা নেই। ৩১ মে-ই হবে হজের প্রথম ফ্লাইট।

বিজ্ঞাপন

সূত্রমতে, হজযাত্রীদের নিবন্ধন এখনো চলমান। গত ১৬ মে থেকে শুরু হওয়া নিবন্ধন প্রক্রিয়া শেষ হবে আগামী ২২ মে। আবার আগামী ৩১ মে হজের প্রথম ফ্লাইট চালু করতে চায় ধর্ম মন্ত্রণালয়। অন্যদিকে সৌদি আরব সরকার বিমানের ফ্লাইটের স্লট চূড়ান্ত না করায় পূর্ণাঙ্গ প্রস্তুতিতে কিছুটা ঘাটতি রয়েছে বলে জানিয়েছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। এ পরিস্থিতিতে নির্ধারিত সময়ে হজের প্রথম ফ্লাইট চালু করা নিয়ে কিছুটা হলেও সংশয় রয়েছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে অবশ্য প্রথম হজ ফ্লাইট নিয়ে অনিশ্চয়তার প্রসঙ্গ উড়িয়ে দিচ্ছেন ধর্ম মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা কর্মকর্তা মো. আনোয়ার হোসেন। তিনি সারাবাংলাকে বলেন, এবার হজযাত্রার প্রস্তুতি নিতে সময় অনেক কম পেয়েছি। এই কম সময়েই প্রস্তুতি নিতে দিন-রাত কাজ করছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। তবে আগামী ৩১ মে তারিখেই হজযাত্রার প্রথম ফ্লাইট উদ্বোধন হবে।

বিজ্ঞাপন

জানা গেছে, হজযাত্রী নিবন্ধন, এজেন্সির সমন্বয়ে লিড এজেন্সি নির্ধারণ, মোয়াল্লেম নির্ধারণ, হজযাত্রীদের সৌদি আরবে আবাসন ও মোয়াল্লেম ফি এবং অন্যান্য খরচের অর্থ পাঠানো, বাড়ি হোটেল ভাড়া, ক্যাটারিং সার্ভিস— এসব কাজ অন্যান্য সময়ে দীর্ঘ দিন ধরে করা হয়। এবার সে সুযোগ পাচ্ছে না সরকার কিংবা এজেন্সিগুলো। সব মিলিয়ে ১৫ দিনের মধ্যে সব কাজ শেষ করতে হবে। অথচ এখনো নিবন্ধনই শেষ হয়নি। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, নিবন্ধন শেষ না হওয়ার আগে এসব কাজ শুরু করা যাবে না।

এ প্রসঙ্গে হজ এজেন্সিস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (হাব) সভাপতি এম শাহাদৎ হোসাইন তসলিম সারাবাংলাকে বলেন, এই অল্প সময়ে হজ ব্যবস্থাপনার কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে শেষ করা কঠিন। হজযাত্রা একটি বিশাল প্রক্রিয়া। ২২ মে নিবন্ধন শেষ হওয়ার পরও অনেক কাজ বাকি। সেগুলো এত কম সময়ে শেষ করা কঠিন হয়ে পড়েছে।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, ধর্ম মন্ত্রণালয় ৩১ মে হজের প্রথম ফ্লাইট শুরু করতে চায়। আমরা তারিখ পরিবর্তনের জন্য বলেছিলাম। কিন্তু সেটি সম্ভব হয়নি। মন্ত্রণালয় থেকে আশ্বস্ত করা হয়েছে, এই সময়ের মধ্যেই সব প্রক্রিয়া শেষ করা যাবে।

এবার কম সময় থাকায় পুরো প্রক্রিয়াটিই চ্যালেঞ্জিং উল্লেখ করে হাব সভাপতি আরও বলেন, নানা অনিশ্চয়তা থাকলেও উদ্বোধনী ফ্লাইট ৩১ মে তারিখেই শুরু হবে। তবে ৫ জুন থেকে শুরু হবে হজ ফ্লাইটের মূল পর্ব। মাঝের চার দিন কোনো ফ্লাইট চলবে না।

বিজ্ঞাপন

এর আগে, গত ২৭ এপ্রিল সচিবালয়ে চলতি বছরের হজ ব্যবস্থাপনা কমিটির বৈঠক থেকে ৩১ মে হজের প্রথম ফ্লাইট পরিচালনার সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়। সিদ্ধান্তে বলা হয়, এবার বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের দুইটি ৭৭৭ উড়োজাহাজের ডেটিকেডেট ফ্লাইটের মাধ্যমে হজযাত্রী পরিবহন করা হবে। মোট ফ্লাইট চলবে ৭৫টি। এর মাধ্যমে ৩১ হাজার হজযাত্রী পরিবহন করবে বিমান বাংলাদেশ। বাকি যাত্রী পরিবহন করবে সৌদি এয়ারলাইন্স।

চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ৮ জুলাই হতে পারে এবারের হজ। এবার বাংলাদেশ থেকে সরকারি-বেসরকারি মিলিয়ে ৫৭ হাজার ৫৮৫ জন হজ পালনের সুযোগ পাবেন। সরকারি ব্যবস্থাপনায় দুইটি প্যাকেজ রয়েছে ৫ লাখ ২৭ হাজার ৩৪০ টাকা ও ৪ লাখ ৬২ হাজার টাকা মূল্যমানের। আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ পালনের ন্যূনতম খরচ ৪ লাখ ৬৩ হাজার ৭৪৪ টাকা। এর সঙ্গে অবশ্য কোরবানির জন্য প্রায় ২০ হাজার টাকা আলাদা দিতে হবে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/জেআর/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন