বিজ্ঞাপন

সেনেগালে হাসপাতালের আগুন কেড়ে নিল ১১ নবজাতকের প্রাণ

May 26, 2022 | 1:23 pm

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

সেনেগালের টিভাউয়েন শহরে একটি হাসপাতালের প্রসূতি বিভাগে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ১১টি নবজাতক প্রাণ হারিয়েছে। সেখান থেকে তিন নবজাতককে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় শোক জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ম্যাকি সল।

বিজ্ঞাপন

সেনেগালের পশ্চিমাঞ্চলের শহর টিভাউয়েনের ওই হাসপাতালের নাম আবতো আজিজ সাই দাবাখ হাসপাতাল। স্থানীয় গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে বিবিসি ও এএফপি বলছে, হাসপাতালটি কয়েকদিন আগেই উদ্বোধন করা হয়েছে। শর্ট সার্কিট থেকে সেখানে আগুনের সূত্রপাত হয়ে থাকতে পারে বলে ধারণা করছেন দেশটির রাজনীতিকরা।

সেগেনাল স্থানীয় সময় বুধবার (২৫ মে) রাত সাড়ে ১১টার দিকে (বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে) এ ঘটনায় টুইট করেন সেনেগালের প্রেসিডেন্ট ম্যাকি সল। তিনি বলেন, অত্যন্ত দুঃখ ও বেদনার সঙ্গে জানাচ্ছি, মাত্রই জানতে পারলাম— আবতো আজিজ সাই দাবাখ হাসপাতালের প্রসূতি ও নবজাতক বিভাগে অগ্নিকাণ্ডে ১১টি নবজাতক প্রাণ হারিয়েছে। এ ঘটনায় আমি শোকস্তব্ধ। সন্তান হারানো মা ও পরিবারগুলোর প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি।

বিজ্ঞাপন

টিভাউয়েনের মেয়র ডেমবা ডিওপ সাই ১১ নবজাতকের প্রাণহানির তথ্য জানিয়ে বলেন, সেখানে আগুন লাগার পর খুব দ্রুত সবখানে ছড়িয়ে পড়তে থাকে। সেখানে জরুরি ব্যবস্থা থাকলেও কাজে আসেনি। তবে তিনটি নবজাতককে জীবিত উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এক বৈঠকে যোগ দিতে সেনেগালের স্বাস্থ্যমন্ত্রী আবদোলে ডিওফ সার বর্তমানে অবস্থান করছেন জেনেভায়। সেখান থেকেই তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, এটি অত্যন্ত অনাকাঙ্ক্ষিত এবং বেদনাদায়ক একটি ঘটনা। এ ঘটনায় আমরা শোকাহত।

বিজ্ঞাপন

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, এরই মধ্যে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাটি তদন্তে একটি কমিটি করে দেওয়া হয়েছে। তিনি নিজে জেনেভা সফর সংক্ষিপ্ত করে যত দ্রুতসম্ভব সেনেগালে ফিরবেন বলেও জানান।

সেনেগালে হাসপাতালে আগুন লেগে শিশুমৃত্যুর ঘটনা এ বছরে এটি দ্বিতীয়। এর আগে এ বছরের এপ্রিলের শুরুর দিকে উত্তরাঞ্চলের লিংগুয়ের শহরেও এক হাসপাতালের প্রসূতি বিভাগে আগুন লাগে। ওই ঘটনায় চার নবজাতককে প্রাণ হারাতে হয়েছিল।

বিজ্ঞাপন

এর দুই মাসের মধ্যেই ফের একটি হাসাপাতালের অগ্নিকাণ্ডে ১১ নবজাতকের মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে সেনেগালে। একইসঙ্গে দেশটির স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা নিয়ে তীব্র ক্ষোভও জানিয়েছেন বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ।

বিরোধী দলীয় সংসদ সদস্য মামাদো লামিন ডিয়ালো সরকারের সমালোচনা করে বলেন, হাসপাতালে এভাবে আরও আরও শিশু মারা যাচ্ছে। এটি কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন