বিজ্ঞাপন

সাকিবের দৃষ্টিতে ম্যাচ বাঁচানো কঠিন তবে সম্ভব

May 26, 2022 | 8:27 pm

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট

শ্রীলংকার বিপক্ষে মিরপুর টেস্টে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসের পর মনে হচ্ছিল বাংলাদেশ অনেকটাই এগিয়ে। কিন্তু পাশার দান এখন পাল্টে গেছে। প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসেও বাংলাদেশের টপ অর্ডার তাসের ঘরের মতো ভেঙে পরলে পরিস্কার ব্যবধানে এগিয়ে গেছে শ্রীলংকা। আপাত দৃষ্টিতে মিরপুরে হার দেখছে বাংলাদেশ। সাকিব আল হাসানও সেটা মানছেন। তবে বাংলাদেশের বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের বিশ্বাস, হার এড়ানো অসম্ভব না।

বিজ্ঞাপন

প্রথম ইনিংসের শুরুতে মাত্র ২৪ রানে ছয় উইকেট হারালেও মুশফিকুর রহিম ও লিটন কুমার দাসের দুর্দান্ত দুটি সেঞ্চুরিতে শেষ পর্যন্ত ৩৬৫ রান তোলে বাংলাদেশ। মিরপুরের উইকেটে এই রান দারুণ সংগ্রহই বটে। কিন্তু শ্রীলংকা তাক লাগিয়ে দেয় তাদের প্রথম ইনিংসে। অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস, দিনের চান্ডিমালের সেঞ্চুরিতে ৫০৬ রান তোলেন লংকানরা।

পরে বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংসে আবারও ধস। ২৩ রানের মাথায় চার উইকেট হারিয়ে ফেলেছে বাংলাদেশ। এখনো ১০৭ রানে পিছিয়ে স্বাগতিকরা, খেলা বাকি পুরো একটা দিন। এমন অবস্থায় ম্যাচ বাঁচানো চাট্টিখানি ব্যাপার নয়। সাকিবও তাই মনে করছেন।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (২৬ মে) মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে চতুর্থ দিনের খেলা শেষে বাংলাদেশের প্রতিনিধি হয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসে বাংলাদেশ তারকা বলেন, ‘আসলে আমাদের জন্য পরিস্থিতিটা কঠিন হয়ে গেছে। পঞ্চম দিন সকালেই ওরা আমাদের ফুল আক্রমণ করবে। এটাই স্বাভাবিক। আমরাও এমনই করতাম।’

সাকিবের দৃষ্টিতে ম্যাচ বাঁচানো কঠিন তবে সম্ভব

বিজ্ঞাপন

এই আক্রমণ কাটিয়ে কিভাবে ম্যাচ বাঁচানো সম্ভব সেই সমীকরণও সাকিবের মুখস্ত। বললেন, ‘দলকে বাঁচাতে হলে আমরা যে ৬টা উইকেট আছি সবাইকেই ভাল করতে হবে। না হলে কঠিন। আমাদের লাঞ্চ পর্যন্ত উইকেট না দেয়ার চেষ্টা থাকতে হবে। এখন যে সিচুয়েশন আমাকে তিন ঘন্টা ব্যাট করতে হবে। লাঞ্চ পর্যন্ত ওরা দুজন (মুশফিক-লিটন) যদি ভাল করে তাহলে আমাকে পরের সময়টা ব্যাকআপ দিতে হবে। এই উইকেটে দুজন ব্যাটার সেট হয়ে গেলে ওদের আউট করা কঠিন। ওদের দু্য়ই পেসার হয়ত ১০ ওভার করে বিশ ওভার বল করবে, এই গরমে তার চেয়ে বেশি করা কঠিন। এই সময়টা যদি আমরা সামলে নিতে পারি ততক্ষণে কিন্তু আমাদের ব্যাটাররাও সেট হয়ে যাবে। তেমনটা হলে ম্যাচ বাঁচানো সম্ভব।’

টেস্টে অনেকদিন সেঞ্চুরি পাননি সাকিব। সর্বশেষ সেঞ্চুরি সেই ২০১৭ সালের মার্চে। সেটি স্মরণ করিয়ে দিলে সাকিব বললেন, কাল উইকেটে যদি ঘণ্টা তিনেক কাটিয়ে দিতে পারেন তবে সেঞ্চুরির চেয়ে দলের জন্য সেটাই হবে গুরুত্বপূর্ণ।

বিজ্ঞাপন

সাকিব বলেন, ‘এখন দলের যে পরিস্থিতি, সেঞ্চুরির চেয়ে ৩ ঘণ্টা যদি ব্যাটিং করতে পারি সেটা বেশি প্রয়োজন। মুশফিক-লিটন যদি লাঞ্চ পর্যন্ত খেলতে পারে এবং আমি তারপর ৩ ঘণ্টা ব্যাট করতে পারি, এটা সেঞ্চুরির চেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ হবে। লাঞ্চের আগে ১ উইকেটের বেশি পড়ে গেলেই আমরা খুব বাজে অবস্থায় থাকব। যখন দুই ব্যাটার সেট হয়ে যাবে তাদের আউট করা কঠিন।’

সারাবাংলা/এসএইচএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন