বিজ্ঞাপন

ডিপোতে বিস্ফোরণ: ফায়ার সার্ভিসকর্মীদের মধ্যে নিহত ও নিখোঁজ যারা

June 5, 2022 | 9:39 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের ভাটিয়ারীতে বিএম কনটেইনার ডিপোতে ভয়াবহ আগুন ও বিস্ফোরণে নিজেদের নিহত ও নিখোঁজ কর্মীদের নামের তালিকা প্রকাশ করেছে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কর্তৃপক্ষ।

বিজ্ঞাপন

রোববার (৫ জুন) রাতে ফায়ার সার্ভিস সদর দফতরের সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) এম শাহজাহান মিয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

শাহজাহান মিয়া বলেন, ডিপোর দুর্ঘটনায় এখন পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিসের ৯ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। এর মধ্যে আটটি মরদেহের নাম-পরিচয় শনাক্ত করা সম্ভব হয়েছে। একটি মরদেহ শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। এছাড়া নিখোঁজ রয়েছেন চার জন। তাদেরই কোনো এক জন মারা গিয়েছেন, যা শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।

বিজ্ঞাপন

দুর্ঘটনায় নিহত যারা

দুর্ঘটনায় নিহতদের মধ্যে রয়েছেন কুমিরা ফায়ার স্টেশনের ফায়ার ফাইটার মো. রানা মিয়া। তার বাড়ি মানিকগঞ্জ। আরেক ফায়ার ফাইটার আলাউদ্দিনের বাড়ি নোয়াখালী, আর সীতাকুণ্ড স্টেশনের ফায়ার ফাইটার সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর বাড়ি ফেনী।

বিজ্ঞাপন

নিহতদের মধ্যে মনিরুজ্জামান ছিলেন নার্সিং অ্যাটেনডেন্ট। তার বাড়ি কুমিল্লায়। কুমিরা ফায়ার স্টেশনের লিডার নিহত মিঠু দেওয়ানের বাড়ি রাঙ্গামাটি। নিহতদের মধ্যে আরও আছেন রাঙ্গামাটির নিপন চাকমা ও শেরপুরের রমজানুল ইসলাম। নিহত মো. শাকিল তরফদারের বাড়ি ঠিকানা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

নিখোঁজ যারা

বিজ্ঞাপন

ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের মধ্যে যারা নিখোঁজ রয়েছেন, তাদের মধ্যে কুমিরা ফায়ার স্টেশনের লিডার মো. ইমরান হোসেন মজুমদারের বাড়ি চাঁদপুর। নিখোঁজ রয়েছেন ফায়ার ফাইটার শফিউল ইসলাম, তার বাড়ি সিরাজগঞ্জ। নওগাঁর মো. রবিউল ইসলাম ও রংপুরের ফরিদুজ্জামানেরও কোনো সন্ধান এখনো মেলেনি। তারা দু’জনেই ফায়ার ফাইটার হিসেবে সীতাকুণ্ড ফায়ার স্টেশনে কর্মরত ছিলেন।

ভয়াবহ এ অগ্নিকাণ্ড ও বিস্ফোরণে এখন পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিসের এই ৯ জনসহ মোট ৪৯ জনের প্রাণহানির তথ্য জানিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। এছাড়া আরও দুই শতাধিক ব্যক্তি দগ্ধ ও আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে এরই মধ্যে ১৫ জনকে ঢাকায় শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে। আহত ও দগ্ধদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় প্রাণহানি আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

বিজ্ঞাপন

আরও পড়ুন-

সারাবাংলা/ইউজে/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন