বিজ্ঞাপন

১০০ টাকা বেশি পাবেন প্রতিবন্ধীরা, উপকারভোগী বাড়ছে সাড়ে ৩ লাখ

June 9, 2022 | 7:36 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা : প্রস্তাবিত ২০২২-২৩ অর্থবছরে সামাজিত সুরক্ষা খাতের আওতায় প্রতিবন্ধীদের মাসিক ভাতা ১০০ টাকা বাড়ানো হয়েছে। পাশাপাশি এই খাতে উপকারভোগীর সংখ্যা ৩ লাখ ৫৭ হাজার বৃদ্ধি করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

গত ২০২১-২০২২ অর্থবছরে ২০ লাখ ৮ হাজার প্রতিবন্ধী মাসিক ৭৫০ টাকা হারে ভাতা প্রদান করা হয়েছে।

আগামী ২০২২-২০২৩ অর্থবছরে এ খাতে উপকারভোগীর সংখ্যা ৩ লাখ ৫৭ হাজার বৃদ্ধি করে ২৩ লাখ ৬৫ হাজারে উন্নীত করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে মাসিক ভাতার হার ৭৫০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৮৫০ টাকা করা হবে। এই জন্য এই খাদে বরাদ্দ করা হয়েছে ২ হাজার ৪২৯ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (৯ জুন) বিকেলে জাতীয় সংসদে ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এ তথ্য জানান।

আরও পড়ুন-

বিজ্ঞাপন

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, ‘২০২২-২০২৩ অর্থবছরে প্রতিবন্ধী ভাতা বাবদ দুই হাজার ৪২৯ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়ার প্রস্তাব করছি। ভাতা কর্মসূচির বাইরেও সরকার প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য প্রতিবন্ধী শিক্ষা উপবৃত্তি চালু করেছে। ২০২১-২০২২ অর্থবছরে যার উপকারভোগীর সংখ্যা ছিল এক লাখ এবং বার্ষিক বরাদ্দ ছিল ৯৫ কোটি ৬৪ লাখ টাকা। দেশের অটিজম ও নিউরো-ডেভেলপমেন্টাল প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের স্বাস্থ্য ও জীবন ঝুঁকি হ্রাসকল্পে নিউরো-ডেভেলপমেন্টাল প্রতিবন্ধী সুরক্ষা ট্রাস্টের আওতায় বঙ্গবন্ধু প্রতিবন্ধী সুরক্ষা বিমা চলতি বছরের জাতীয় বিমা দিবসে প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক উদ্বোধন করা হয়েছে। তবে বয়স্ক ভাতা বাড়ছে না এবারের বাজেটে। আগের মতই চালু থাকবে বয়স্ক ভাতার পরিমাণ।’

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘সরকার দীর্ঘমেয়াদি ও স্থায়ী কার্যক্রম পরিচালনার মাধ্যমে প্রবীণদের অধিকার সমুন্নত রাখায় সচেষ্ট। দুঃস্থ প্রবীণ ব্যক্তিদের অধিকার সুরক্ষায় ব্যাপক পরিসরে বয়স্ক ভাতা প্রদান করা হচ্ছে এবং বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা ভাতার ক্ষেত্রে প্রবীণ নারীকে অগ্রাধিকার প্রদান করা হচ্ছে। ২০২১-২০২২ অর্থবছর থেকে জনপ্রতি মাসিক ৫০০ টাকা হারে ৫৭ লাখ ১ হাজার ভাতাভোগীর জন্য বয়স্ক ভাতা খাতে তিন হাজার ৪৪৪ কোটি ৫৪ লাখ টাকা বরাদ্দ প্রদান করা হচ্ছে, যা চলমান থাকবে।’

বিজ্ঞাপন

২০২২-২৩ অর্থবছরের জন্য প্রণীত বাজেটের শিরোনাম ‘কোভিডের অভিঘাত পেরিয়ে উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় পরিবর্তন’।

আরও পড়ুন-

বিজ্ঞাপন

নতুন বাজেটের আকার ধরা হয়েছে ছয় লাখ ৭৮ হাজার ৬৪ কোটি টাকা। এর আগে, ২০২১-২২ অর্থবছরের বাজেটের আকার ছিল ছয় লাখ তিন হাজার ৬৮১ কোটি টাকা। সংশোধিত বাজেটে তা ১০ হাজার ১৮১ কোটি টাকা কমে পাঁচ লাখ ৯৩ হাজার ৫০০ কোটি টাকায় নেমে আসে। সে হিসাবে নতুন বাজেটের আকার সবশেষ বাজেটের তুলনায় ৭৪ হাজার ৩৮৩ কোটি টাকা বা ১২ দশমিক ৩২ শতাংশ বেশি। আর সংশোধিত বাজেটের চেয়ে এটি ৮৪ হাজার ৫৬৪ কোটি বা ১৪ দশমিক ২৪ শতাংশ বেশি।

আগামী অর্থবছরের জন্য বাজেটে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপি) আকার ধরা হয়েছে দুই লাখ ৪৬ হাজার ৬৬ কোটি টাকা। অন্যদিকে জিডিপি’র আকার প্রাক্কলন করা হয়েছে ৪৪ লাখ ৪৯ হাজার ৯৫৯ কোটি টাকা। জিডিপি প্রবৃদ্ধি ধরা হয়েছে ৭ দশমিক ৫ শতাংশ। অন্যদিকে আগামী অর্থছরের বাজেটে মূল্যস্ফীতি ৫ দশমিক ৬ শতাংশ হবে বলে প্রক্ষেপণ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন-

সারাবাংলা/জিএস/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন