বিজ্ঞাপন

কাঁচপুরে বাসের ধাক্কায় প্রাণ গেল দাদি-নাতনির

June 17, 2022 | 3:52 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: নারায়ণগঞ্জের কাঁচপুরে বাস ধাক্কায় শামসুন্নাহার (৫৯) ও আরফি আক্তার (৮) নামে দু’জন প্রাণ হারিয়েছেন। সম্পর্কে তারা দু’জন দাদি-নাতনি।

বিজ্ঞাপন

শুক্রবার (১৭ জুন) সকাল পৌনে ১১টার দিকে কাঁচপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত দু’জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক দুপুর ১টার দিকে শামসুন্নাহারকে মৃত ঘোষণা করেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুর ২টার দিকে মারা যায় আরফি।

শামসুন্নাহারের বাড়ি নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলায়। ছয় ছেলে ও এক মেয়ের জননী ছিলেন তিনি। অন্যদিকে আরফির বাবার নাম নাসির হোসেন। দুই ভাই-বোনের মধ্যে ছোট ছিল আরফি। স্থানীয় একটি স্কুলের দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল।

বিজ্ঞাপন

দুর্ঘটনার সময় শামসুন্নাহার ও আরফির সঙ্গে ছিলেন শামসুন্নাহারের ননদ জহুরা খাতুন। তিনি জানান, তারা নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার দড়ি সোনাকান্দা এলাকায় থাকেন। সকালে তার ভাই নুর মোহাম্মাদ, ভাবি শামসুন্নাহার ও তাদের নাতনি আরফিকে নিয়ে নরসিংদী যাচ্ছিলেন। সেখানে শামসুন্নাহারের মেয়ের ঘরের আরেক নাতনি অসুস্থ থাকায় তাকে দেখতে যাচ্ছিলেন।

জরুরা খাতুন বলেন, আমি কবিরাজি চিকিৎসা করেন। এ জন্য আমাকে সঙ্গে নিয়েছিলেন ভাবি (শামসুন্নাহার)। চার জন বাসে করে বন্দর থেকে কাঁচপুর নামি। এরপর রাস্তা পার হতে যাই। আমার ভাই নুর মোহাম্মদ একাই রাস্তা পার হয়ে যান। ওই সময় নাতনির হাত ধরে পার হচ্ছিলেন শামসুন্নাহার। আমি ছিলাম পেছনে। তখন দ্রুত গতিতে এসে একটি বাস ভাবি ও আরফিকে চাপা দেয়।

বিজ্ঞাপন

সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান জানান, রাস্তা পার হওয়ার সময় একটি বাসের চাপায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকা মেডিকেলে দাদি-নাতনি মারা গেছে। ঘটনার পরপরই ঘাতক বাসটি জব্দ করা হয়েছে। তবে চালক পালিয়ে গেছে। তাকে আটকের চেষ্টা চলছে।

সারাবাংলা/এসএসআর/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন